অক্টোবর থেকে গাড়ি চালানোর সময় কেবল এই কাজে ব্যবহার করা যাবে মোবাইল

mobile-phones-while-driving-to-be-allowed-only-for-route-navigation-from-october

বাইক কিংবা গাড়ি চালানোর সময় ফোন ব্যবহার করায় দুর্ঘটনা হয়েছে – এমনটা আকছার শোনা যায়। কিন্তু হাজার নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও, অনেক সময়েই এক হাতে স্টিয়ারিং আর অন্য হাতে মোবাইল নিয়ে ব্যস্ত থাকেন চালক। নানা আইন বা বিধি নিষেধ চালু করেও অবস্থার তেমন কোনো পরিবর্তন হয়নি। তবে এবার দুর্ঘটনা এড়াতে বিশেষ নিয়ম আনতে চলেছে দেশের সড়ক পরিবহন মন্ত্রক।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই মাসের শুরু থেকেই নতুন নিয়ম কার্যকরী হয়েছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তি চালানোর সময় কেবলমাত্র রুট নেভিগেশনের জন্য মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবে। এছাড়া চালক, তার গাড়ির ড্যাশবোর্ডে ডিভাইসটি বিশেষভাবে সেট করে রাখতে পারেন যাতে, গাড়ি চালানোর সময় কোনো ধরণের বিভ্রান্তির সৃষ্টি না হয়।

কোনো ভাবে এই নিয়মের অমান্য করলে তা মোটরযান আইনের ‘বিপজ্জনক ড্রাইভিং’ সেকশনের অধীনে শ্রেণিবদ্ধ করা হবে, এবং শাস্তি হিসেবে চালকের ৫,০০০ টাকা জরিমানা বা এক বছরের জেল হতে পারে।

শুধু তাই নয়, সড়ক পরিবহন মন্ত্রক, কোনো চালকের লাইসেন্স, পারমিট, বিমা, রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট বা ফিটনেস সার্টিফিকেটের মতো নথিপত্র যাতে সহজে বৈদ্যুতিনভাবে যাচাই করা যায় এবং কোনো ভায়োলেন্স রেকর্ড করা যায় সেই ব্যবস্থাও নিয়েছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা চারগুণ বেশি থাকে। ওই সময় মোবাইলে টেক্সট করা বা টাইপ করা আরো বিপজ্জনক! ফলে নতুন আইন দুর্ঘটনা কিছু কমাতে পারে বলেই আশা করা হচ্ছে। যদিও নিজেরা সচেতন না থাকলে দুর্ঘটনা এড়াতে আইনি ব্যবস্থা কতটা সফল হবে সেটা সময় বলবে।