বিক্রিতে সবাই কে পিছনে ফেললো iPhone 13, প্রথম পাঁচে Samsung ও Redmi-র এই মডেল দুটি রয়েছে

২০২১ সালের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে ভারতের সর্বাধিক বিক্রিত স্মার্টফোনের তালিকার শীর্ষস্থানে ছিল রিয়েলমি সি১১ (Realme C11)

5 Best selling Smartphones in 2023

২০২২ সালে স্মার্টফোনের দুনিয়ায় অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন একাধিক ডিভাইসের আবির্ভাব ঘটেছে। একদিকে যেমন iPhone-এর ক্যামেরা সেন্সরে উন্নতি ঘটানো হয়েছে, তেমনই অন্যদিকে ২০০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরাসহ Android স্মার্টফোনও বাজারে এসেছে। সেক্ষেত্রে ক্রেতারাও নিজেদের পছন্দের নিরিখে যথাযথ স্মার্টফোনগুলিকে পকেটস্থ করে ফেলেছেন। এখন অনেকেই নিশ্চয়ই জানতে আগ্রহী হবেন যে, গত বছর কোন হ্যান্ডসেটগুলি সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ইউজারদের মন জয় করে নিয়েছে? সেক্ষেত্রে আপনার মনেও যদি এই একই প্রশ্ন এসে থাকে, তাহলে বলি, সম্প্রতি প্রখ্যাত গ্লোবাল টেকনোলজি মার্কেট রিসার্চ ফার্ম কাউন্টারপয়েন্ট রিসার্চ (Counterpoint Research) ২০২২ সালের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে ভারতে সর্বাধিক বিক্রিত সেরা ৫ টি স্মার্টফোনের তালিকা প্রকাশ করেছে। এই তালিকা থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, ৪ শতাংশ মার্কেট শেয়ার সহ গত বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে Apple iPhone 13 ছিল এদেশের সর্বাধিক বিক্রিত স্মার্টফোন।

এরপর তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১৩ (Samsung Galaxy M13), যার মার্কেট শেয়ার ৩ শতাংশ। এরপরে ৩ শতাংশ মার্কেট শেয়ার নিয়ে তালিকাটির তৃতীয় স্থানে রয়েছে রেডমি এ১ (Redmi A1), এবং চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানটি নিজেদের দখলে রেখেছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এ০৪এস (Samsung Galaxy A04s) এবং রিয়েলমি সি৩৫ (Realme C35)। উল্লেখ্য যে, উভয়েরই মার্কেট শেয়ার ৩ শতাংশ। ফলে স্পষ্টতই দেখা যাচ্ছে যে, অ্যাপল আইফোন ১৩ ছাড়া বাকি সব স্মার্টফোনেরই মার্কেট শেয়ার সমান (অর্থাৎ ৩ শতাংশ)। উল্লেখ্য, এই প্রথম ভারতের বাজারে সর্বাধিক বিক্রিত স্মার্টফোনের তালিকার শীর্ষস্থানে রয়েছে আইফোন। তবে দামি হ্যান্ডসেটের পাশাপাশি বাজেট রেঞ্জের ফোনগুলিও গত বছর ইউজারদের কাছে ব্যাপকভাবে জনপ্রিয় হয়েছে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, ২০২১ সালের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে ভারতের সর্বাধিক বিক্রিত স্মার্টফোনের তালিকার শীর্ষস্থানে ছিল রিয়েলমি সি১১ (Realme C11)। এরপর পরবর্তী স্থানগুলিতে একে একে বিরাজ করছিল ওপ্পো এ৫৪ (Oppo A54), গ্যালাক্সি এম১২ (Galaxy M12), রেডমি নোট ১০এস (Redmi Note 10s) এবং রেডমি ৯এ (Redmi 9A)। যাইহোক, গত বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে আইফোন ১৩ এদেশের সর্বাধিক সংখ্যক মানুষের মন জয় করেছে – এটা জানার পর যারা বর্তমানে ফোনটি কেনার পরিকল্পনা করছেন, তাদের জন্য ডিভাইসটির দাম এবং সেইসাথে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিচার এবং স্পেসিফিকেশন নীচে উল্লেখ করা হল।

Apple iPhone 13-এর ফিচার এবং স্পেসিফিকেশন

এ১৫ বায়োনিক (A15 Bionic) চিপসেট দ্বারা চালিত আইফোন ১৩-এ আছে ৬.১ ইঞ্চি সুপার রেটিনা এক্সডিআর ডিসপ্লে, যার রিফ্রেশ রেট ৬০ হার্টজ। ডিভাইসটি আইওএস ১৫ (iOS 15) কাস্টম স্কিনে রান করে। অ্যাপলের এই স্মার্টফোনটি তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে মার্কেটে উপলব্ধ – ১২৮ জিবি, ২৫৬ জিবি এবং ৫১২ জিবি। ফটোগ্রাফির জন্য এই আইফোনটিতে ১২ মেগাপিক্সেল ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এবং ১২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা বিদ্যমান। এছাড়াও, আইফোন ১৩-এ রয়েছে ৫জি (5G) কানেক্টিভিটি, ম্যাগসেফ (MagSafe) ওয়্যারলেস চার্জিং এবং ওয়াই-ফাই ৬ (Wi-Fi 6) কানেক্টিভিটি।

Apple iPhone 13-এর দাম

বর্তমানে অ্যাপল স্টোর (Apple Store), ফ্লিপকার্ট (Flipkart), অ্যামাজন (Amazon) এবং অন্যান্য বেশ কয়েকটি ই-কমার্স ওয়েবসাইটে iPhone 13 বিক্রির জন্য উপলব্ধ রয়েছে। চলতি সময়ে ফ্লিপকার্ট থেকে ডিভাইসটির ১২৮ জিবি, ২৫৬ জিবি এবং ৫১২ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টগুলি কিনতে হলে খরচ পড়বে যথাক্রমে ৬১,৯৯৯ টাকা, ৭১,৯৯৯ টাকা এবং ৮৩,৯৯৯ টাকা। অন্যদিকে, বর্তমানে অ্যামাজনে হ্যান্ডসেটটির ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ মডেলের দাম যথাক্রমে ৬১,৯৯৯ টাকা এবং ৭৪,৯৯০ টাকা।