মোবাইল

iPhone 14 আসছে এই চারটি ওয়াইল্ডকার্ড ফিচারের সাথে, পাত্তা পাবে না Xiaomi থেকে Samsung

হাতে গুনে আর কয়েকটা দিনই বাকি টেক জায়ান্ট Apple এর iPhone 14 সিরিজের আগমনের। আর কোনো আপকামিং ডিভাইসের লঞ্চের সময় ঘনিয়ে আসা মানেই, সেটির সম্পর্কে নতুন নতুন তথ্য সামনে আসা। বিশেষত ১৪তম প্রজন্মের আইফোন সিরিজের সম্পর্কে মানুষের কৌতূহল যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাতে ফিচার লিকের ঘটনা ঘটা তো খুবই স্বাভাবিক। এক্ষেত্রে, আলোচ্য লাইনআপের সম্ভাব্য ফিচার বা ডিজাইন কিরূপ হবে সেই সংক্রান্ত একাধিক রিপোর্ট পূর্বেও ফাঁস হয়েছে। আর এখন জানা যাচ্ছে যে, এই সিরিজকে আগামী ৭ই সেপ্টেম্বর ‘ফার আউট’ ইভেন্ট চলাকালীন ঘোষণা করতে চলেছে Apple। একই সাথে Macrumours তাদের একটি সাম্প্রতিক রিপোর্টে দাবি করেছে, টিম কুকের সংস্থাটি এই নয়া সিরিজে ‘ওয়াইল্ডকার্ড’ ফিচার অন্তর্ভুক্ত করতে পারে। যার উপর ভিত্তি করে আমাদের আজকের প্রতিবেদন। চলুন Apple তাদের iPhone 14 সিরিজে কি কি নতুন ফিচার সামিল করতে পারে সেই সম্পর্কে বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

স্যাটেলাইট কানেক্টিভিটি:

অ্যাপল অবশেষে হয়তো আসন্ন আইফোন ১৪ সিরিজের সাথে স্যাটেলাইট কানেক্টিভিটি ফিচার আনতে পারে। এই বৈশিষ্ট্যটি প্রথম আইফোন ১৩ (iPhone 13) সিরিজের সাথে অফার করা হবে বলে গত বছর গুজব রটেছিল। যদিও লঞ্চের পর খবরটি ভুয়ো প্রমাণিত হয়ে যায়। যদিও এবছর এই ফিচার পাওয়া যাবে বলে মনে হয়। ব্লুমবার্গ তাদের একটি সাম্প্রতিক রিপোর্টে উল্লেখ করেছে যে, এই ফিচারটি প্রত্যন্ত অঞ্চলে জরুরী পরিস্থিতিতে মেসেজ পাঠানোর জন্য ব্যবহারকারীদের মোবাইল নেটওয়ার্কের সাথে সংযোগ করার অনুমতি দেবে। এমনকি, ব্যবহারকারীরা আইফোন ব্যবহার করে সেলুলার কভারেজ নেই এমন এলাকাতেও নিজ অবস্থা জানান দেওয়ার জন্য রিপোর্ট করতে সক্ষম হবেন। এক্ষেত্রে কিছু বিশেষজ্ঞের মতে, অ্যাপল তাদের আসন্ন আইফোন মডেলগুলিতে এই ফিচার যোগ করার জন্য হয়তো গ্লোবালস্টারের সাথে অংশীদারিত্ব করবে।

ভেপার চেম্বার থার্মাল ব্যবস্থা:

অ্যাপল বিশ্লেষক মিং-চি কুও তার একটি পূর্ববর্তী রিপোর্টে বলেছিলেন যে, ২০২২ সালে আগত হাই-এন্ড আইফোন মডেলগুলিতে তাপ ব্যবস্থাপনা বা হিট ম্যানেজমেন্টের জন্য উন্নত ভেপার থার্মাল চেম্বার থাকতে পারে। আর সম্প্রতি জানা গেছে যে, অ্যাপল তাদের আইফোন ১৪ সিরিজের জন্য এমনই একটি কুলিং টেকনোলজি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছিল। উল্লেখ্য, ভেপার চেম্বার থার্মাল সিস্টেম ইতিমধ্যেই হাই-এন্ড অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে উপলব্ধ, যা দীর্ঘ সময় পর্যন্ত অধীক ব্যবহারেও ডিভাইসটিকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে।

২ টেরাবাইট (TB) স্টোরেজ:

Apple তাদের iPhone 13 সিরিজেকে পূর্বসূরি iPhone 12 -এর ন্যায় ৬৪ জিবি স্টোরেজ সহ নিয়ে আসেনি। বরং গত বছরে আগত সিরিজের স্টোরেজ ক্যাপাসিটি আপগ্রেড করে, ১ টেরাবাইট পর্যন্ত করা হয়েছিল। আর এখন শোনা যাচ্ছে উত্তরসূরী iPhone 14 সিরিজ ২ টেরাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ সহ আসবে। এক্ষেত্রে, এই নতুন স্টোরেজ ক্যাপাসিটি হয়তো সিরিজের হাই-এন্ড মডেল দুটিতে পাওয়া যাবে।

Wi-Fi 6E:

Apple তাদের আপকামিং iPhone 14 লাইনআপকে ওয়াই-ফাই ৬ই কানেক্টিভিটির সাথে নিয়ে আসতে পারে বলেও Macrumours তাদের রিপোর্টে দাবি করেছে। এই লেটেস্ট ওয়াইফাই স্ট্যান্ডার্ড – ফাস্ট স্পিড এবং উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কাজের চাপ সামলানোর ক্ষেত্রে আরও ভাল পারফরম্যান্স প্রদান করে। প্রসঙ্গত বর্তমান প্রজন্মের আইফোন (iPhones), ম্যাক (Macs) এবং আইপ্যাড (iPads) ওয়াই-ফাই ৬ বিকল্পের সাথে আসে।

Back to top button