মোবাইল

সাক্ষাৎ যমের মুখ থেকে ফিরলেন ব্যক্তি, রক্ষাকর্তা হয়ে দাঁড়াল স্মার্টফোনের এই ফিচার

Apple সম্প্রতি iOS 16.1 আপডেটের সাথে একটি স্যাটেলাইট ভিত্তিক এমার্জেন্সি এসওএস (Emergency SOS via Satellite) ফিচার চালু করেছে। উল্লেখ্য যে, ফিচারটি শুধুমাত্র iPhone 14 সিরিজের মডেলেই উপলব্ধ রয়েছে। এই ফিচারের সহায়তায় কোনো জায়গায় সেলুলার নেটওয়ার্ক বা ওয়াই-ফাইয়ের অ্যাক্সেস না পাওয়া গেলে স্যাটেলাইট কানেক্টিভিটি ব্যবহার করে জরুরি পরিষেবাগুলির (emergency services) সাথে যোগাযোগ করতে সক্ষম হবেন ইউজাররা। এর ফলে দুর্গম অঞ্চলে থাকলেও ব্যবহারকারীদেরকে কোনো সমস্যায় পড়তে হবে না। ফলে ফিচারটি যে কতটা কার্যকর, সে সম্পর্কে নিশ্চয়ই আর আলাদা করে কিছু বলার প্রয়োজন নেই। আর সম্প্রতি জানা গিয়েছে যে, এই স্যাটেলাইট কানেক্টিভিটি ফিচারের সহায়তায় হালফিলে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন আলাস্কার তুষারাবৃত পর্বতমালায় আটকে পড়া এক ব্যক্তি। আসুন ঘটনাটি ঠিক কী ঘটেছে, সে সম্পর্কে একটু বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

হিমশীতল বরফাবৃত জায়গায় আটকে পড়া সত্ত্বেও iPhone 14-এর দৌলতে প্রাণ বাঁচলো এক ব্যক্তির

ম্যাকরুমার্স (MacRumours)-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, আলাস্কার পুলিশ এজেন্সির (Alaska State Troopers) কাছে আচমকাই একটি মেসেজ গিয়ে পৌঁছোয়, যেটির মাধ্যমে তারা জানতে পারেন যে, নূরভিক থেকে কোটজেবুতে যাওয়ার পথে একটি স্নো মেশিনে আটকে পড়েছেন এক ভ্রমণকারী। কিন্তু আলাস্কার মতো চির তুষারাবৃত জায়গা যেখানে ইন্টারনেট বা ওয়াই-ফাই কোনো কিছুরই অ্যাক্সেস নেই, সেখানে কীভাবে পুলিশের কাছে এই সতর্কবার্তা গিয়ে পৌঁছোলো? আসলে ব্যাপারটা হল, এই হিমশীতল জায়গায় এক চরম বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে আটকে পড়লেও ওই ব্যক্তির কাছে ছিল আইফোন ১৪, আর তাতে মজুত ছিল অ্যাপলের নয়া স্যাটেলাইট ভিত্তিক এমার্জেন্সি এসওএস ফিচার। ফলে তৎক্ষণাৎ এটিকে ব্যবহার করে তিনি তার সমস্যার কথা নিকটবর্তী পুলিশ কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেন, এবং তারপরে সেই খবর পাওয়া মাত্রই উদ্ধারকারী দলকে সাথে নিয়ে অনতিবিলম্বে ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে আলাস্কার পুলিশ।

আশ্চর্যজনকভাবে এ যাত্রায় প্রাণে বেঁচে গিয়ে Apple কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানালেন ওই ব্যক্তি

একথা হলফ করে বলা যায় যে, আলোচ্য ঘটনাটিতে ওই ব্যক্তির প্রাণ বাঁচানোর পিছনে পুলিশ কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি অ্যাপলের অবদানও নিঃসন্দেহে অনস্বীকার্য। এমন বিপজ্জনক পরিস্থিতি থেকে কেবল উন্নত টেকনোলজির দৌলতে কার্যত অলৌকিকভাবে বেঁচে ফিরে আসতে পারায় ওই ব্যক্তি কার্পেটিনো ভিত্তিক টেক জায়েন্টটিকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। ঘটনাটির প্রসঙ্গে অ্যাপলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে, নয়া ফিচারটি অত্যন্ত দুর্গম এলাকায় কাজ করলেও সর্বত্র কিন্তু সঠিকভাবে যথাযথ পরিষেবা নাও দিতে পারে। সংস্থার মতে, ৬২ ডিগ্রি অক্ষাংশের উপরিস্থিত স্থানগুলিতে স্যাটেলাইট কানেক্টিভিটি ফিচার ঠিকভাবে কাজ করবে কি না, সে ব্যাপারে কোনো নিশ্চয়তা নেই। তবে কানাডা ও আলাস্কার উত্তর অংশ এবং নূরভিক ও কোটজেবু ৬৯ ডিগ্রি অক্ষাংশের কাছাকাছি অবস্থিত, এবং সেই কারণেই ওই ব্যক্তি এই ফিচারটি ব্যবহার করে নিজের প্রাণ বাঁচাতে সক্ষম হয়েছেন।

Apple-এর তরফে আরও জানা গিয়েছে যে, সেলুলার এবং ওয়াই-ফাই কভারেজের বাইরে থাকলে ইউজাররা অতি অনায়াসে এই ফিচারটি ব্যবহার করে মাত্র ১৫ সেকেন্ডের মধ্যে একটি মেসেজ পাঠিয়ে প্রয়োজনীয় সাহায্য চাইতে সক্ষম হবেন। তবে সর্বত্র (যেমন – কোনো ঘন জঙ্গল, যেখানে স্যাটেলাইটের সঙ্গে কানেক্ট করতে গেলে প্রচুর বাধার সম্মুখীন হতে হবে) এই পরিষেবা উপলব্ধ নাও হতে পারে (যেমনটা আগেই বলেছি)। উল্লেখ্য, স্যাটেলাইট ভিত্তিক এমার্জেন্সি এসওএস ফিচার শুধুমাত্র iPhone 14 এবং iPhone 14 Pro মডেলগুলিতে কাজ করে। প্রসঙ্গত বলে রাখি, iPhone 14 বা iPhone 14 Pro অ্যাক্টিভেশনের পরে দুই বছরের জন্য এই ফিচারটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন ইউজাররা। যদিও এটি বর্তমানে কেবলমাত্র উত্তর আমেরিকাতে উপলব্ধ রয়েছে, তবে Apple-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, খুব শীঘ্রই ফ্রান্স, জার্মানি, আয়ারল্যান্ড এবং যুক্তরাজ্যের বাসিন্দারাও এই ফিচারটি ব্যবহার করার সুযোগ পাবেন।

Back to top button