Homeমোবাইলমহা সুযোগ! iPhone 12 এর দামে কিনে নিন iPhone 14, এখানে রয়েছে লোভনীয় অফার

মহা সুযোগ! iPhone 12 এর দামে কিনে নিন iPhone 14, এখানে রয়েছে লোভনীয় অফার

বছরের শেষ প্রান্তে এসে ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মগুলি একের পর এক ধামাকাদার অফারের ঘোষণা করছে। যেমন ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইনে শপিং সাইট Amazon বর্তমানে Apple এর iPhone 14 মডেলটির সাথে বাম্পার ডিসকাউন্ট ও লোভনীয় অফার দেওয়ার কথা প্রচার করছে। এক্ষেত্রে, এই ডিলের ভরপুর ফায়দা তুলতে পারলে প্রায় ৮০,০০০ টাকা দামের উক্ত আইফোনকে নূন্যতম ৫৭,০০০ টাকা খরচ করে বাড়ি নিয়ে আসা যাবে। তাই আপনিও যদি এরূপ ‘ওয়ান্স-ইন-এ-লাইফটাইম’ অফারের লাভ ওঠাতে চান, তাহলে আর দেরি না করে আমাদের এই প্রতিবেদন থেকে Apple iPhone 14 -এর সাথে প্রযোজ্য যাবতীয় অফার সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নিন।

Amazon থেকে কম দামে কিনুন লেটেস্ট iPhone 14 মডেল

গত সেপ্টেম্বর মাসে টেক জায়ান্ট অ্যাপল তাদের লেটেস্ট আইফোন ১৪ মডেলটিকে ৭৯,৯০০ টাকায় লঞ্চ করেছিল। এই দাম ফোনটির ১২৮ জিবি স্টোরেজ যুক্ত বেস মডেলের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছিল। কিন্তু এখন, ই-কমার্স সাইট অ্যামাজন আলোচ্য ভ্যারিয়েন্টের সাথে ফ্লাট ১,৫০০ টাকার ডিসকাউন্ট দিচ্ছে। যারপর এটি ৭৮,৪০০ টাকায় বিক্রির জন্য উপলব্ধ রয়েছে উক্ত অনলাইন শপিং সাইটে।

অন্যান্য অফারের কথা বললে, যেসকল ক্রেতারা HDFC ব্যাঙ্কের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে আইফোন ১৪ ফোনটি কিনবেন তাদের ফ্লাট ৫,০০০ টাকার ইনস্ট্যান্ট ডিসকাউন্ট দেওয়া হবে। যার দরুন মডেলটির দাম কমে ৭৩,৪০০ টাকা হবে। আর যদি পুরোনো হ্যান্ডসেট আপগ্রেড করে এই নয়া ১৪তম প্রজন্মের আইফোন মডেলটি কেনা হয়, তবে ১৬,৩০০ টাকা পর্যন্ত এক্সচেঞ্জ বোনাস মিলবে। এই পুরো এক্সচেঞ্জ ভ্যালু হস্তগত করতে পারলে মাত্র ৫১,১০০ টাকা খসিয়ে আপনি পকেটস্থ করতে পারবেন একটি ঝাঁচকচকে আইফোন ১৪ মডেল। কিন্তু আগেই বলে দিই, এক্সচেঞ্জ ডিসকাউন্টের পরিমাণ আপনার বিদ্যমান স্মার্টফোনের মডেল নম্বর, ব্র্যান্ড, আঞ্চলিক উপলব্ধতা এবং বাহ্যিক তথা অভ্যন্তরীণ অবস্থার উপর নির্ভর করবে।

Apple iPhone 14 -এর স্পেসিফিকেশন

অ্যাপল আইফোন ১৪ ফ্লাট-এজ অ্যারোস্পেস গ্রেড অ্যালুমিনিয়াম ফ্রেমের সাথে এসেছে এবং নিরাপত্তার জন্য ডিভাইসের সামনে ব্যবহার করা হয়েছে সিরামিক শিল্ড। এতে একটি ৬.১-ইঞ্চির (২,৫৩২×১,১৭০ পিক্সেল) সুপার রেটিনা এক্সডিআর OLED ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে, যা ৬০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ১২০০ নিট পিক ব্রাইটনেস, P3 ওয়াইড কালার গ্যামেট, ডলবি ভিশন এবং HDR টেকনোলজি সাপোর্ট করে। পারফরম্যান্সের জন্য এতে সংস্থার নিজেস্ব এ১৫ বায়োনিক চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটি আইওএস ১৬ অপারেটিং সিস্টেমে রান করে। স্টোরেজ হিসাব এতে ৬ জিবি র‌্যাম ও ৫১২ জিবি পর্যন্ত মেমোরি পাওয়া যাবে। তদুপরি, বায়োমেট্রিক সিকিউরিটি অপশন হিসেবে এতে ফেস আইডি উপলব্ধ।

ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, আইফোন ১৪ ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ সহ এসেছে। এগুলি হল – এফ/১.৭ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং ১২ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড সেন্সর। এই রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ নতুন স্টেবিলাইজেশন ফিচার, ডিপ ফিউশন ও অ্যাকশান মোড সাপোর্ট করে। LED ফ্ল্যাশ লাইটটি ক্যামেরা মডিউলের ভিতরে স্থাপন করা হয়েছে। তদুপরি, সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে এফ/১.৯ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা পাওয়া যাবে। আইফোন ১৪ সিরিজের এই স্ট্যান্ডার্ড মডেলের পরিমাপ ১৪৬.৭x৭১.৫x৭.৮ মিমি এবং ওজন ১৭২ গ্রাম। এটি IP68 সার্টিফাইড, ফলে জল ও ধুলো লাগা সত্ত্বেও ডিভাইসটির কোনো ক্ষতি হবে না।

আরও পড়ুন