Homeমোবাইলমোবাইল ফোনের তুলনাএই তিনটি ফোনের দাম প্রায় 15000 টাকা, তবে আপনার জন্য সেরা কোনটি দেখে নিন

এই তিনটি ফোনের দাম প্রায় 15000 টাকা, তবে আপনার জন্য সেরা কোনটি দেখে নিন

Infinix Note 12 Pro vs Realme 9i 5G vs iQOO Z6 5G, কোন ফোন কেমন হবে

স্মার্টফোন ব্র্যান্ডগুলি বর্তমানে বাজেট-রেঞ্জের অধীনেও উন্নত ফিচারের একাধিক হ্যান্ডসেট লঞ্চ করছে। এমনকি অ্যাডভান্স ফিচারের পাশাপাশি কিছু ফোনে আবার 5G কানেক্টিভিটির সাপোর্টও উপলব্ধ থাকছে। এক্ষেত্রে চলতি মাসের ১৮ তারিখ আগত Realme 9i 5G এবং গতপরশু আত্মপ্রকাশ করা Infinix Note 12 Pro 4G এই দুটি ফোনই বাজেট সেগমেন্টের অধীনে একাধিক উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য, শক্তিশালী পারফরম্যান্স এবং স্টাইলিশ বডি ডিজাইন সহ এসেছে। যেমন উল্লেখিত দুটি ফোনেই – FHD+ ডিসপ্লে প্যানেল, সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার, অ্যান্ড্রয়েড ১২ অপারেটিং সিস্টেম, ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এবং ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি সমর্থিত ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি পাওয়া যাবে। দেখতে গেলে, আলোচ্য ফিচারগুলি চলতি বছরের প্রথম কোয়ার্টারে (১৬ মার্চ) ১৫,৯৯৯ টাকার প্রারম্ভিক প্রাইজ ট্যাগের সাথে লঞ্চ হওয়া iQOO Z6 5G ফোনেও দেখা গিয়েছিল। ফলে আপনারা যদি একটি সাশ্রয়ী মূল্যের 4G অথবা 5G মোবাইল কেনার পরিকল্পনা করে থাকেন, তাহলে উক্ত তিনটি সংস্থা আনীত স্মার্টফোনগুলির মধ্যে একটিকে বেছে নিতে পারেন। তবে মডেল-ত্রয়ীর বিশেষত্ব ও দাম অতন্ত্য সাদৃশ্যপূর্ণ হওয়ায় বিভ্রান্তি দেখা দেওয়াই স্বাভাবিক। তাই আজ আমরা এই প্রতিবেদনে Infinix Note 12 Pro, Realme 9i 5G এবং iQOO Z6 5G স্মার্টফোনের মধ্যে দাম ও ফিচারগত তুলনামূলক আলোচনার মাধ্যমে কোনটি সেরা তা নির্ণয় করতে আপনাদের সাহায্য করবো।

Infinix Note 12 Pro vs Realme 9i 5G vs iQOO Z6 5G: ডিসপ্লে, সেন্সর

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো ফোনে একটি ৬.৭-ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০০ পিক্সেল) AMOLED ডিসপ্লে দেখা যাবে, যা ৬০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও অফার করে। নিরাপত্তা প্রদানের জন্য এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার পাওয়া যাবে।

রিয়েলমি ৯ আই ৫জি ফোনে আছে একটি ৬.৬-ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০০ পিক্সেল) ডিসপ্লে, যা ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ৪০০ নিটস ব্রাইটনেস অফার করে। সিকিউরিটি ফিচার হিসাবে এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর উপলব্ধ।

আইকো জেড৬ ৫জি ফোনে আছে একটি ৬.৫৮ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০৮ পিক্সেল) ডিসপ্লে, যা ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ২৪০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট সাপোর্ট করে। সিকিউরিটির জন্য এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর বিদ্যমান।

Infinix Note 12 Pro vs Realme 9i 5G vs iQOO Z6 5G: প্রসেসর, অপারেটিং সিস্টেম, র‍্যাম, স্টোরেজ

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো ফোনে মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৯ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে এতে অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক সংস্থার নিজস্ব এক্সওএস ১০.৬ (XOS 10.6) কাস্টম স্কিন পাওয়া যাবে। এই ৪জি ফোনে ৮ জিবি র‌্যাম এবং ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ উপস্থিত। প্রসঙ্গত সংস্থার দাবি অনুসারে, আলোচ্য হ্যান্ডসেট ৫জি ভার্চুয়াল র‌্যামের সাপোর্ট সহ এসেছে।

পারফরম্যান্সের জন্য রিয়েলমি ৯ আই ৫জি স্মার্টফোনটি অক্টা কোর মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮১০ প্রসেসর সহ এসেছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক রিয়েলমি ইউআই ৩.০ কাস্টম স্কিনে রান করে। স্টোরেজ হিসাবে উক্ত ডিভাইসে ৬ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ১২৮ জিবি পর্যন্ত রম পাওয়া যাবে। যদিও মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ক্যাপাসিটি ১ টিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

আইকো জেড৬ ৫জি ফোনটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৯৫ প্রসেসরের সাথে সজ্জিত হয়ে এসেছে। ডিভাইসটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক ফানটাচ ১২ কাস্টম ইউজার ইন্টারফেসে চলে। এতে ৮ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম (LPDDR4X) ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে। তবে মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ক্যাপাসিটি ১টিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

Infinix Note 12 Pro vs Realme 9i 5G vs iQOO Z6 5G: ক্যামেরা সেটআপ

ছবি তোলার জন্য ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো ফোনের পিছনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এই ক্যামেরাগুলি হল – ১০৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল টারশিয়ারি লেন্স। আর সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা উপস্থিত থাকছে।

ফটোগ্রাফির জন্য রিয়েলমি ৯ আই ৫জি ফোনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, একটি পোট্রেট শুটার ও একটি ম্যাক্রো ক্যামেরা। অন্যদিকে সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা পাওয়া যাবে।

ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, আইকো জেড৬ ৫জি ফোনের পিছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল Samsung ISOCELL JN1 প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো শুটার ও ২ মেগাপিক্সেল বোকেহ ক্যামেরা। যদিও ৪ জিবি ভ্যারিয়েন্টে বোকেহ ক্যামেরা পাওয়া যাবে না। আর সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে এফ/২.০ লেন্স সহ ১৬ মেগাপিক্সেল Samsung 3P9 ফ্রন্ট ক্যামেরা বিদ্যমান।

Infinix Note 12 Pro vs Realme 9i 5G vs iQOO Z6 5G: ব্যাটারি, চার্জিং টেকনোলজি, কানেক্টিভিটি অপশন

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো ফোনে – ৩.৫মিমি হেডফোন জ্যাক, ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট এবং এনএফসি কানেক্টিভিটির সাপোর্ট পাওয়া যাবে। আবার পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য ডিভাইসে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে, যা ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে।

রিয়েলমি ৯ আই ৫জি স্মার্টফোনে কানেক্টিভিটির জন্য – ডুয়েল সিম স্লট, ব্লুটুথ, ওয়াই-ফাই, জিপিএস এবং ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট অন্তর্ভুক্ত। আর পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য উক্ত মডেলে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে, যা ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে।

আইকো জেড৬ ৫জি ফোনটির কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে সামিল রয়েছে 5G, 4G LTE, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, জিপিএস, ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট ও ৩.৫মিমি হেডফোন জ্যাক। আর পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি, যা ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে।

Infinix Note 12 Pro vs Realme 9i 5G vs iQOO Z6 5G: পরিমাপ

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো ফোনের পরিমাপ ১৬৪.৪x৭৬.৫x৭.৮ মিমি এবং ওজন ১৯২ গ্রাম।

রিয়েলমি ৯ আই ৫জি স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৬৪.৪x৭৫.১x৮.১ মিমি এবং ওজন ১৮৭ গ্রাম।

আইকো জেড৬ ৫জি ফোনের পরিমাপ ১৬৪x৭৫.৮x৮.৩ মিমি এবং ওজন ১৮৫ গ্রাম।

Infinix Note 12 Pro vs Realme 9i 5G vs iQOO Z6 5G: দাম

ভারতে ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো ফোনের ৮ জিবি র‌্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ যুক্ত একক ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ১৬,৯৯৯ টাকা। এটি – হোয়াইট, ব্লু ও গ্রে কালারে এসেছে। আর আগামী ১লা সেপ্টেম্বর থেকে ফোনটিকে ফ্লিপকার্টের মাধ্যমে কেনা যাবে।

রিয়েলমি ৯ আই ৫জি ফোনের ৪ জিবি র‌্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৪,৯৯৯ টাকা। আবার ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টকে ১৬,৯৯৯ টাকায় কেনা যাবে। এটি – মেটালিক গোল্ড, রকিং ব্ল্যাক ও সোলফুল ব্লু কালারে এসেছে।

আইকো জেড৬ ৫জি ফোনের দাম শুরু হয়েছে ১৫,৯৯৯ টাকা থেকে। এই মূল্য ফোনটির ৪ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের। আবার ফোনটির ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ এবং ৮ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম থাকছে যথাক্রমে ১৬,৯৯৯ টাকা ও ১৭,৯৯৯ টাকা। এটি – ক্রোমাটিক ব্লু ও ডায়নামিক ব্লু কালার অপশনে এসেছে।

আরও পড়ুন