Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G: সবচেয়ে সস্তা 5G ফোনের লড়াইয়ে কে এগিয়ে, রেডমি নাকি পোকো

Redmi 11 Prime 5G এবং Poco M4 Pro 5G এর মধ্যে কে এগিয়ে কে পিছিয়ে দেখে নিন

Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G comparison

গত ৬ই জুলাই ‘Prime’ লাইনআপের প্রথম 5G স্মার্টফোন হিসাবে Redmi 11 Prime 5G -কে লঞ্চ করেছিল Redmi India। আলোচ্য মডেলটি চীনে আত্মপ্রকাশ করা Redmi Note 11E -এর রিব্যাজড ভার্সন রূপে এদেশের বাজারে আত্মপ্রকাশ করেছে। আর সংস্থার দাবি অনুসারে, এটি সারা দেশের মোট ২২টি সার্কেলে 5G নেটওয়ার্ক সমর্থন করবে। শুধু তাই নয়, একে সংস্থার সবচেয়ে সস্তা 5G-এনাবল ফোন বলেও আখ্যায়িত করা হয়েছে। এক্ষেত্রে, উক্ত হ্যান্ডসেটটি ১৩,৯৯৯ টাকার প্রারম্ভিক মূল্যের সাথে এসেছে। দেখতে গেলে প্রায় একই প্রাইজ রেঞ্জে আরেকটি দুর্দান্ত এন্ট্রি-লেভেল 5G স্মার্টফোন বিদ্যমান রয়েছে ভারতের বাজারে, যা হল Poco M4 Pro 5G। আলোচ্য দুটি মডেলের দামের মধ্যে মাত্র ১,০০০ টাকারই ফারাক দেখা যাবে। আর ফোন দুটির ফিচারও প্রায় অনুরূপ। যেমন দুটি মডেলেই – ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের FHD+ ডিসপ্লে প্যানেল, সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, সর্বোচ্চ ১২৮ জিবি স্টোরেজ, ৫০ মেগাপিক্সেল মুখ্য সেন্সর সমন্বিত ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা ইউনিট এবং ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি উপস্থিত। এমনকি উভয় ফোনেই মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে, কিন্তু ভিন্ন ভার্সনের। তবে সেরার প্রতিযোগিতায় Poco হ্যান্ডসেট সামান্য এগিয়ে আছে, কেননা এটি ভার্চুয়াল র‌্যাম ফিচার সাপোর্ট করে। যাইহোক, Redmi 11 Prime 5G এবং Poco M4 Pro 5G -এর বিশেষত্ব সম্পর্কে সারসংক্ষেপে বললে কোনটি সর্বাধিক সেরা তা নির্ধারণ করা সম্ভব হবে না। তাই আজ আমরা এই প্রতিবেদনে উল্লেখিত ফোন-দ্বয়ের দাম ও ফিচারগত তুলনামূলক আলোচনা আপনাদের সামনে তুলে ধরবো।

Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G: ডিসপ্লে, সেন্সর

রেডমি ১১ প্রাইম ৫জি ফোনে একটি ৬.৫৮ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০৮ পিক্সেল) ডিসপ্লে দেখা যাবে। এই ডিসপ্লের ডিজাইন পাঞ্চ-হোল স্টাইলের এবং এটি ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ২৪০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট সাপোর্ট করে। সিকিউরিটির জন্য এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার দেওয়া হয়েছে।

পোকো এম৪ প্রো ৫জি স্মার্টফোনে একটি ৬.৬ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০০ পিক্সেল) LCD ডিসপ্লে আছে। এই ডিসপ্লে ২৪০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট, ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও এবং ৯০ হার্টজ ডায়নামিক রিফ্রেশ রেট সাপোর্ট করে। নিরাপত্তার জন্য উক্ত ফোনে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর বিদ্যমান।

Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G: প্রসেসর, অপারেটিং সিস্টেম, র‍্যাম, স্টোরেজ

পারফরম্যান্সের জন্য রেডমি ১১ প্রাইম ৫জি স্মার্টফোনে আর্ম মালি জি৫৭ এমসি২ জিপিইউ সহ ৭এনএম প্রসেসিং নোড ভিত্তিক মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৭০০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক এমআইইউআই ১৩ কাস্টম ইউজার ইন্টারফেস দ্বারা চালিত। আর স্টোরেজ হিসাবে এতে ৬ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ১২৮ জিবি পর্যন্ত রম পাওয়া যাবে।

পোকো এম৪ প্রো ৫জি ফোনটি আর্ম মালি জি৫৭ এমসি২ জিপিইউ এবং মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮১০ প্রসেসর সহ এসেছে। সফ্টওয়্যারের ক্ষেত্রে ডিভাইসটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক এমআইইউআই ১২.৫ (MIUI 12) কাস্টম স্কিনে রান করবে। এতে ৮ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ১২৮ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ উপলব্ধ। তবে এই ফোনে অতিরিক্তভাবে আরো ৩ জিবি পর্যন্ত ভার্চুয়াল র‌্যামও সাপোর্ট করবে। আবার মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ক্যাপাসিটি ১ টিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G: ক্যামেরা সেটআপ

রেডমি ১১ প্রাইম ৫জি ফোনের পিছনে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর। অন্যদিকে সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য ডিসপ্লের উপরের দিকে থাকা কাটআউটের মধ্যে ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা লক্ষণীয়।

পোকো এম৪ প্রো ৫জি ফোনে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল (ওয়াইড) প্রাইমারি সেন্সর এবং ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স। আবার ডিভাইসের সামনে এফ/২.৪৫ অ্যাপারচার সহ ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা দেখা যাবে।

Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G: ব্যাটারি, চার্জিং টেকনোলজি, কানেক্টিভিটি অপশন

রেডমি ১১ প্রাইম ৫জি স্মার্টফোনের কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে সামিল রয়েছে ডুয়েল সিম, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, জিপিএস, ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। আর পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এটি ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি সহ এসেছে, যা ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, ফোনের রিটেল বক্সে ২২.৫ ওয়াটের চার্জার অ্যাডাপ্টার দেওয়া হয়েছে।

পোকো এম৪ প্রো ৫জি ফোনটির কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে সামিল রয়েছে – ডুয়েল সিম স্লট, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, জিপিএস এবং ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এতে ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে।

Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G: পরিমাপ

রেডমি ১১ প্রাইম ৫জি স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৬৪x৭৬.১x৮.৯ মিমি এবং ওজন ২০০ গ্রাম।

পোকো এম৪ প্রো ৫জি স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৬৩.৬x৭৫.৮x৮.৮ মিমি এবং ওজন ১৯৫ গ্রাম।

Redmi 11 Prime 5G vs Poco M4 Pro 5G: দাম

রেডমি ১১ প্রাইম ৫জি ফোনকে দুটি স্টোরেজ বিকল্পের সাথে ভারতে লঞ্চ করা হয়েছে। যার মধ্যে ৪ জিবি র‌্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৩,৯৯৯ টাকা রাখা হয়েছে। আর ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৫,৯৯৯ টাকা। এটিকে – পেপি পার্পেল, ফ্ল্যাশি ব্ল্যাক, প্লেফুল গ্রিন কালারে পাওয়া যাবে।

ভারতে পোকো এম৪ প্রো ৫জি ফোনকে তিনটি স্টোরেজ কনফিগারেশনে নিয়ে আসা হয়েছে। যার মধ্যে ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ১৪,৯৯৯ টাকা। আবার ফোনটির ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ও ৮ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম যথাক্রমে ১৬,৯৯৯ টাকা ও ১৮,৯৯৯ টাকা থাকছে। এটি – পাওয়ার ব্ল্যাক, ইয়েলো ও কুল ব্লু কালার অপশনে উপলব্ধ।

শুভেচ্ছা বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একদিকে যেমন ফটোগ্রাফার, তেমনি পাশাপাশি লেখিকাও। এছাড়াও তার শখের মধ্যে আছে বই পড়া, গান গাওয়া, ছবি আঁকা এবং ওয়েব ডিজাইন। শুভেচ্ছা আমাদের টেকগাপ পরিবারের একজন নতুন সদস্য।