দাম খুবই কম, এই পুজোয় Redmi A1 নাকি Realme C30 কেনা আপনার জন্য লাভজনক হবে

Redmi A1 vs Realme C30 Comparison
Redmi A1 vs Realme C30 Comparison

গত ৬ই সেপ্টেম্বরে Redmi তাদের নতুন A-সিরিজের প্রথম এন্ট্রি-লেভেল স্মার্টফোন হিসাবে Redmi A1 ভারতে লঞ্চ করেছিল। এই ফোনটিতে – HD+ IPS LCD ডিসপ্লে প্যানেল, মিডিয়াটেক হেলিও এ২২ চিপসেট, ৩২ জিবি রম এবং ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ, ৫ মেগাপিক্সেল সেলফি শুটার এবং ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে। আর মডেলটির দাম রাখা হয়েছে ৬,৪৯৯ টাকা। দেখতে গেলে, ফিচার ও দামের নিরিখে গত ২০ই জুন ভারতে আত্মপ্রকাশ করা Realme C30 ফোনটি এর মূল প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারে। কেননা, C-সিরিজের এই Realme ফোনটিও ৭,০০০ টাকা প্রাইজ সেগমেন্টের অধীনে লঞ্চ হয়েছে এবং প্রায় একই ডিসপ্লে ফিচার, স্টোরেজ, সেলফি সেন্সর এবং ব্যাটারি তথা চার্জিং ক্যাপাসিটির সাথে এসেছে। তাই উল্লেখিত এন্ট্রি-লেভেল স্মার্টফোন দুটির মধ্যে কোনটি সর্বাধিক সেরা তা নির্ণয় করার জন্য আজ আমরা সদ্য আগত Redmi A1 এবং বিদ্যমান Realme C30 -এর মধ্যে দাম ও ফিচারগত তুলনামূলক আলোচনা করবো।

Redmi A1 vs Realme C30 : ডিসপ্লে

নবাগত রেডমি এ১ স্মার্টফোনে একটি ৬.৫২-ইঞ্চির এইচডি প্লাস (১৬০০x৭২০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে রয়েছে। এই ডিসপ্লের ডিজাইন ডিউ-ড্রপ নচ স্টাইলের এবং এটি ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও ও ৪০০ নিট পিক ব্রাইটনেস অফার করে।

অন্যন্য ভার্টিক্যাল স্ট্রাইপ ডিজাইনের সাথে আসা রিয়েলমি সি৩০ স্মার্টফোনে, একটি ৬.৫ ইঞ্চির এইচডি প্লাস (১,৬০০x৭২০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে আছে, যা ৬০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও এবং ৮৮.৭% স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও সাপোর্ট করে।

Redmi A1 vs Realme C30 : প্রসেসর, অপারেটিং সিস্টেম, র‍্যাম, স্টোরেজ

পারফরম্যান্সের জন্য, রেডমি এ১ ফোনে মিডিয়াটেক হেলিও এ২২ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি ২ জিবি LPDDR4x র‍্যাম এবং ৩২ জিবি eMMC 5.1 স্টোরেজ সহ এসেছে। তবে নিম্ন-স্তরের হার্ডওয়্যারের সাথে আসার কারণে, হ্যান্ডসেটটি নেয়ার-স্টক অ্যান্ড্রয়েড ১২ অপারেটিং সিস্টেমে রান করবে এবং সংস্থার নিজস্ব এমআইইউআই (MIUI) কাস্টম স্কিন ছাড়াই আসবে।

অভ্যন্তরীণ স্পেসিফিকেশনের কথা বললে, রিয়েলমি সি৩০ স্মার্টফোনে ১২এনএম প্রসেসিং নোড ভিত্তিক অক্টা-কোর ইউনিসক টি৬১২ (Unisoc T612) প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক রিয়েলমি ইউআই গো কাস্টম ইউজার ইন্টারফেস দ্বারা চালিত। সংস্থার সি-লাইনআপের এই লেটেস্ট মডেলে ৩ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ৩২ জিবি অনবোর্ড স্টোরেজ রয়েছে।

Redmi A1 vs Realme C30 : ক্যামেরা সেটআপ

ফটোগ্রাফির জন্য রেডমি এ১ স্মার্টফোনে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বিদ্যমান। এই ক্যামেরাগুলি হল – ৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি সেন্সর। আর সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য ডিভাইসের সামনে একটি ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং শ্যুটার দেওয়া হয়েছে।

নবাগত রিয়েলমি সি৩০ স্মার্টফোনে এফ/২.০ অ্যাপারচার সহ ৮ মেগাপিক্সেলের একক রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। একই সাথে সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য উক্ত ডিভাইসে থাকছে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ একটি ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা।

Redmi A1 vs Realme C30 : ব্যাটারি, কানেক্টিভিটি অপশন

কানেক্টিভিটির জন্য রেডমির এ-সিরিজ অন্তর্গত এই হ্যান্ডসেটে – ডুয়াল-সিম ৪জি, সিঙ্গেল-ব্যান্ড ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ৫.০, GNSS, একটি ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাক এবং একটি ডেডিকেটেড মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট সামিল রয়েছে। আর, পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য Redmi A1 স্মার্টফোনে ১০ ওয়াট চার্জিং সমর্থন সহ একটি ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে। প্রসঙ্গত, চার্জার অ্যাডাপ্টারটি ফোনের রিটেল বক্সে অন্তর্ভুক্ত থাকবে বলে জানিয়েছে রেডমি।

রিয়েলমি সি৩০ স্মার্টফোনের কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে – ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ৫.০, জিপিএস, এফএম রেডিও, ইউএসবি টাইপ-সি ২.০ পোর্ট এবং ৩.৫মিমি হেডফোন জ্যাক সামিল রয়েছে। অন্যদিকে পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এতে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে, যা মাইক্রো ইউএসবি পোর্টের মাধ্যমে ১০ওয়াট চার্জিং স্পিড সমর্থন করে। আর সংস্থার দাবি অনুসারে, এই ব্যাটারি একবার চার্জে ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত ডিভাইসকে সক্রিয় রাখবে।

Redmi A1 vs Realme C30 : পরিমাপ

রেডমি এ১ স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৬৪.৯x৭৬.৫x৯.১ মিমি এবং ওজন ১৯২ গ্রাম।

রিয়েলমি সি৩০ স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৬৪.১x৭৫.৬x৮.৫ মিমি এবং ওজন ১৮২ গ্রাম।

Redmi A1 vs Realme C30 : দাম

ভারতের বাজারে রেডমি এ১ স্মার্টফোনকে ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি স্টোরেজ যুক্ত একক কনফিগারেশনে লঞ্চ করা হয়েছে, যার দাম ৬,৪৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এটিকে লাইট ব্লু, ক্লাসিক ব্ল্যাক বা লাইট গ্রীন কালার বিকল্পে পাওয়া যাবে।

রিয়েলমি সি৩০ স্মার্টফোনকে ভারতে দুটি স্টোরেজ কনফিগারেশনের সাথে নিয়ে আসা হয়েছে। যার মধ্যে, ২ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ৭,৪৯৯ টাকা রাখা হয়েছে। আর, ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ অপশনের দাম ৮,২৯৯ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। এটি লেক ব্লু এবং ব্যাম্বু গ্রিন কালারে উপলব্ধ।

শুভেচ্ছা বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একদিকে যেমন ফটোগ্রাফার, তেমনি পাশাপাশি লেখিকাও। এছাড়াও তার শখের মধ্যে আছে বই পড়া, গান গাওয়া, ছবি আঁকা এবং ওয়েব ডিজাইন। শুভেচ্ছা আমাদের টেকগাপ পরিবারের একজন নতুন সদস্য।