১০০০০ টাকা ডিসকাউন্ট, iPhone 14 এত কমে এই প্রথমবার কেনার সেরা সুযোগ

iPhone 14 মডেলটিকে Apple সংস্থার প্রিমিয়াম রিসেলার, Imagine Store সহ ই-কমার্স সাইট Flipkart এবং Amazon -এ ৬০০০ টাকা পর্যন্ত ডিসকাউন্টের সাথে বিক্রি করা হচ্ছে

iPhone 14 available with discounts offer

আপনি যদি নতুন বছরে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল থেকে আইফোনে আপগ্রেড হওয়ার ইচ্ছা রাখেন, তবে এটাই আদর্শ সময়! কেননা গত বছর সেপ্টেম্বরে লঞ্চ হওয়া লেটেস্ট iPhone 14 মডেলটিকে Apple সংস্থার প্রিমিয়াম রিসেলার, Imagine Store সহ ই-কমার্স সাইট Flipkart এবং Amazon -এ ৬০০০ টাকা পর্যন্ত ডিসকাউন্টের সাথে বিক্রি করা হচ্ছে। তবে ডিসকাউন্টের পাশাপাশি, তিনটি প্ল্যাটফর্মেই HDFC ব্যাঙ্কের কার্ড ব্যবহার করার ক্ষেত্রে আরো ৪,০০০ টাকার ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া, ট্রেড-ইন বিকল্পও থাকছে উপলব্ধ। যদিও ই-কমার্স সাইটগুলির তুলনায় Imagine Store -এ পুরানো ফোন এক্সচেঞ্জ করার ক্ষেত্রে অধিক ট্রেড-ইন ভ্যালু অফার করা হচ্ছে। মোট কথা, ডিসকাউন্ট, ব্যাঙ্ক কার্ড অফ এবং এক্সচেঞ্জ বোনাসের মিলিত লাভ ওঠাতে পারলে iPhone 14 মডেলটিকে কয়েক হাজার টাকা সাশ্রয় করে পকেটস্থ করে নিতে পারবেন আপনি।

Imagine Store -এ iPhone 14 মডেলের সাথে উপলব্ধ অফার

গত বছর টেক জায়ান্ট অ্যাপল তাদের লেটেস্ট আইফোন ১৪ -এর ১২৮ জিবি স্টোরেজ যুক্ত বেস মডেলকে ৭৯,৯০০ টাকায় লঞ্চ করেছিল। আর ইমাজিন স্টোরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটেও এই একই বিক্রয় মূল্যের সাথে আইফোন ১৪ তালিকাভুক্ত রয়েছে। তবে, উক্ত রিসেলার স্টোরটি বর্তমানে ফ্ল্যাট ৫,০০০ টাকা ডিসকাউন্ট সহ ফোনটিকে বিক্রি করছে। যার দরুন এর দাম কমে এখন ৭৪,৯০০ টাকা হয়ে গেছে। অন্যান্য অফারের কথা বললে, আপনি যদি HDFC ব্যাঙ্কের কার্ডহোল্ডার হন হবে ধার্য মূল্যের উপর আরো ৪,০০০ টাকার ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক পেয়ে যাবেন। আবার পুরানো মোবাইল এক্সচেঞ্জ করার ক্ষেত্রেও ভারী ট্রেড-ইন ভ্যালু অফার করা হবে। উদাহরণস্বরূপ, যেসকল ক্রেতা নিজেদের পুরানো iPhone 12 ফোন ট্রেড করে আইফোন ১৪ কিনবেন, তাদের ৩৭,৫০০ টাকা পর্যন্ত ট্রেড-ইন বোনাস দেওয়া হবে।

Flipkart -এ iPhone 14 মডেলের সাথে উপলব্ধ অফার

ই-কমার্স সাইট ফ্লিপকার্টে আইফোন ১৪ মডেলকে ৭৯,৯০০ টাকার পরিবর্তে মাত্র ৭৩,৯০০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। অর্থাৎ ডিসকাউন্টের পরিমাণ থাকছে ফ্লাট ৬,০০০ টাকা। অন্যান্য অফার হিসাবে, HDFC ব্যাঙ্কের কার্ড ব্যবহার করে পেমেন্ট করলে ৪,০০০ টাকার ইনস্ট্যান্ট ডিসকাউন্ট মিলবে। একইভাবে, আপনি যদি নিজের পুরানো ফোনে ট্রেড করতে চান, তবে সেই বিকল্পও উপলব্ধ করেছে ফ্লিপকার্ট। যেমন আইফোন ১২ এক্সচেঞ্জ করে আইফোন ১৪ কিনলে ২৩,০০০ টাকা পর্যন্ত ট্রেড-ইন বোনাস পাওয়া যাবে। ফলে ব্যাঙ্ক কার্ড অফ ও পুরো ট্রেড-ইন ভ্যালু হস্তগত করতে পারলে আইফোন ১৪ -কে মাত্র ৪৬,৯০০ টাকায় বাড়ি নিয়ে আসা সম্ভব।

Amazon -এ iPhone 14 মডেলের সাথে উপলব্ধ অফার

অন্যদিকে অ্যামাজন থেকেও ফ্লিপকার্টের ন্যায় আইফোন ১৪ মডেলটিকে ৭৩,৯০০ টাকায় কেনা যাবে। আর চেকআউটের সময়ে HDFC ব্যাঙ্কের কার্ড ব্যবহার করার ক্ষেত্রে পাওয়া যাবে ফ্লাট ৪,০০০ টাকার ইনস্ট্যান্ট ডিসকাউন্ট। যদিও অ্যামাজনে উক্ত মডেলের সাথে তুলনায় কম এক্সচেঞ্জ বা ট্রেড-ইন ভ্যালু অর্থাৎ সর্বাধিক ১৮,০০০ টাকা অফার করা হচ্ছে।

এক্ষেত্রে বলে রাখি, ইমাজিন, ফ্লিপকার্ট এবং অ্যামাজন তিনটি স্টোরেই এক্সচেঞ্জ ডিসকাউন্টের পরিমাণ আপনার বিদ্যমান স্মার্টফোনের মডেল নম্বর, ব্র্যান্ড, আঞ্চলিক উপলব্ধতা এবং বাহ্যিক তথা অভ্যন্তরীণ অবস্থার উপর নির্ভর করবে।

Apple iPhone 14 -এর স্পেসিফিকেশন

অ্যাপল আইফোন ১৪ ফ্লাট-এজ অ্যারোস্পেস গ্রেড অ্যালুমিনিয়াম ফ্রেমের সাথে এসেছে এবং নিরাপত্তার জন্য ডিভাইসের সামনে ব্যবহার করা হয়েছে সিরামিক শিল্ড। এতে একটি ৬.১-ইঞ্চির (২,৫৩২×১,১৭০ পিক্সেল) সুপার রেটিনা এক্সডিআর OLED ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে, যা ৬০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ১২০০ নিট পিক ব্রাইটনেস, P3 ওয়াইড কালার গ্যামেট, ডলবি ভিশন এবং HDR টেকনোলজি সাপোর্ট করে। পারফরম্যান্সের জন্য এতে সংস্থার নিজস্ব এ১৫ বায়োনিক চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটি আইওএস ১৬ অপারেটিং সিস্টেমে রান করে। স্টোরেজ হিসাব এতে ৬ জিবি র‌্যাম ও ৫১২ জিবি পর্যন্ত মেমোরি পাওয়া যাবে। তদুপরি, বায়োমেট্রিক সিকিউরিটি অপশন হিসেবে এতে ফেস আইডি উপলব্ধ।

ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, আইফোন ১৪ ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ সহ এসেছে। এগুলি হল – এফ/১.৭ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং ১২ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড সেন্সর। এই রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ নতুন স্টেবিলাইজেশন ফিচার, ডিপ ফিউশন ও অ্যাকশান মোড সাপোর্ট করে। LED ফ্ল্যাশ লাইটটি ক্যামেরা মডিউলের ভিতরে স্থাপন করা হয়েছে। তদুপরি, সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে এফ/১.৯ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা পাওয়া যাবে। আইফোন ১৪ সিরিজের এই স্ট্যান্ডার্ড মডেলের পরিমাপ ১৪৬.৭x৭১.৫x৭.৮ মিমি এবং ওজন ১৭২ গ্রাম। এটি IP68 সার্টিফাইড, ফলে জল ও ধুলো লাগা সত্ত্বেও ডিভাইসটির কোনো ক্ষতি হবে না।