বিরাট ডিমান্ড, এই দুই iPhone মডেলের স্টক শেষ, আজ অর্ডার করলে পাওয়া যাবে একমাস পর

৬ নভেম্বর অ্যাপল একটি বিবৃতিতে জানিয়েছিল যে, " কোভিড-১৯ এর জন্য চীনের বিভিন্ন অঞ্চলে লকডাউন, যে কারণে আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স ও আইফোন ১৪ প্রো এর উৎপাদন প্রভাবিত হচ্ছে

iPhone 14 Pro Max iPhone 14 Pro out of stock

আপনি যদি iPhone 14 সিরিজের প্রিমিয়াম মডেলগুলি কেনার কথা ভেবে থাকেন, তাহলে অনেক দিন অপেক্ষা করতে হবে। এই সিরিজের সবচেয়ে প্রিমিয়াম মডেল দুটি, iPhone 14 Pro Max, iPhone 14 Pro এখন ভারতে আউট অফ স্টক। এমনিতেই সারা বিশ্বে সেমিকন্ডাক্টরের ঘাটতি রয়েছে, তার উপর Apple চীনে তাদের প্ল্যান্টগুলিতে নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। ফলে ভারত সহ এশিয়ার দেশগুলিতে iPhone 14 Pro সিরিজ পাওয়া যাচ্ছে না বললেই চলে। ব্লুমবার্গের রিপোর্টে বলা হয়েছে, পরিস্থিতি এতটাই খারাপ জায়গায় পৌঁছেছে যে, Apple কে খুব সম্ভবত ৬০ লাখ প্রো মডেল কম উৎপাদন করতে হতে পারে।

৬ নভেম্বর অ্যাপল একটি বিবৃতিতে জানিয়েছিল যে, ‘কোভিড-১৯ এর জন্য চীনের বিভিন্ন অঞ্চলে লকডাউন, যে কারণে আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স ও আইফোন ১৪ প্রো এর উৎপাদন প্রভাবিত হচ্ছে।’ লকডাউনের কারণে প্রোডাকশন ক্যাপাসিটি কমিয়ে আনতে হচ্ছে। তারা আরও বলেছে, প্রো মডেলের ব্যাপক ডিমান্ড থাকলেও, তারা সঠিক পরিমাণ সরবরাহ করতে পারছে না।

iPhone 14 Pro Max অনলাইনে কোথাও পাওয়া যাচ্ছে না

এই পরিস্থিতিতে আপনি যদি আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স কিনতে চান তাহলে অফলাইন মার্কেটে খোঁজ করতে পারেন। কারণ অনলাইনে বড় বড় ই-কমার্স সাইট গুলিতে ফোনটি উপলব্ধ নেই। অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট, ইমেজিন বিজয় সেলস বা রিলায়েন্স ডিজিটাল এর মতো প্ল্যাটফর্মে ফোনটি আউট অফ স্টক। কয়েকটি সাইটে আজ অর্থাৎ ২ ডিসেম্বর ফোন কিনলে ২ জানুয়ারি ডেলিভারি দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

iPhone 14 Pro কিছু সাইটে উপলব্ধ

আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স কোনো সাইটে না পাওয়া গেলেও, সাধারণ প্রো মডেলটি অ্যামাজনে উপলব্ধ। এর ১টিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১,৭৯,৯০০ টাকা। অন্যান্য মডেল যদিও পাওয়া যাচ্ছে না। আবার ইউনিকর্ণ স্টোর থেকে ফোনটি ১০-১২ দিনের মধ্যে ডেলিভারি পাওয়া যাবে বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। যদিও অ্যাপলের নিজস্ব ওয়েবসাইটে ফোনটি একমাস পরে ডেলিভারি করা হবে বলে জানানো হয়েছে।