HomeমোবাইলiPhone 15 Pro এই ৬ কারণে বাজার মাতাবে, কেনার ইচ্ছা থাকলে জেনে নিন

iPhone 15 Pro এই ৬ কারণে বাজার মাতাবে, কেনার ইচ্ছা থাকলে জেনে নিন

iPhone 15 Pro এবং Pro Max ছয়টি এক্সক্লুসিভ ফিচার সহ বাজারে আসতে পারে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে ‘ফার আউট’ (Far Out) ইভেন্টে iPhone 14 সিরিজ উন্মোচন করেছিল Apple। তারপর থেকেই পরবর্তী প্রজন্মের iPhone সিরিজ অর্থাৎ iPhone 15-কে ঘিরে বিভিন্ন তথ্য সামনে আসতে শুরু করেছে। খবর মিলেছে যে, আসন্ন iPhone সিরিজের অধীনেও চারটি হ্যান্ডসেট বাজারে আসবে, যেগুলি হল – iPhone 15, iPhone 15 Plus, iPhone 15 Pro এবং iPhone 15 Pro Max। এমনিতেই Pro এবং Non-Pro মডেলগুলির বাহ্যিক ডিজাইন ও ইন্টারনাল স্পেসিফিকেশন একে অপরের থেকে বেশ ভিন্ন হয়। তবে সম্প্রতি জানা গিয়েছে যে, ২০২৩ সালে আসন্ন iPhone 15 সিরিজের অধীনে আসা রেগুলার এবং টপ-এন্ড ভ্যারিয়েন্টগুলির মধ্যে লুক ও ফিচারগত ব্যবধান আরও বেশি চোখে পড়ার মতো হবে। MacRumors-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, iPhone 15 Pro এবং Pro Max নিম্নলিখিত ছয়টি এক্সক্লুসিভ ফিচার সহ বাজারে আসতে পারে। আসুন, এই বিশেষ ফিচারগুলির ওপর একনজরে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

iPhone 15 Pro-এর চমকপ্রদ ৬ টি স্পেসিফিকেশন

অ্যাপল এ১৭ বায়োনিক চিপ (Apple A17 Bionic chip)

নিক্কেই এশিয়া (Nikkei Asia)-র প্রতিবেদন অনুসারে, আসন্ন প্রো মডেলগুলিতে টিএসএমসি (TSMC)-র দ্বিতীয় প্রজন্মের ৩এনএম (3nm) প্রক্রিয়ার উপর ভিত্তি করে নির্মিত এ১৭ বায়োনিক (A17 Bionic) চিপের দেখা মিলবে। এর সুবাদে হ্যান্ডসেটগুলি পূর্বের তুলনায় আরও ভালো পারফরম্যান্স অফার করতে সক্ষম হবে।

টাইটানিয়াম ফ্রেম

জেফ পু (Jeff Pu)-র রিপোর্ট অনুযায়ী, অ্যাপল ওয়াচ আল্ট্রা (Apple Watch Ultra)-র মতো আইফোন ১৫ প্রো মডেলের ফ্রেমও স্টেইনলেস স্টিলের পরিবর্তে টাইটানিয়াম দিয়ে তৈরি করা হবে।

ইউএসবি-সি পোর্ট

প্রখ্যাত অ্যাপল ডিভাইস বিশ্লেষক মিং-চি কুও (Ming-Chi Kuo) জানিয়েছেন যে, আইফোন ১৫ প্রো মডেলগুলিতে ইউএসবি-সি (USB-C) পোর্টের দেখা মিলবে। হ্যান্ডসেটগুলি সম্ভবত ইউএসবি ৩.২ (USB 3.2) বা থান্ডারবোল্ট ৩ (Thunderbolt 3) সাপোর্টযুক্ত হবে। এর দৌলতে ডিভাইসগুলিতে খুব দ্রুত ডেটা ট্রান্সফার করা যাবে। উল্লেখ্য, স্ট্যান্ডার্ড আইফোন ১৫ মডেলে ইউএসবি ২.০ (USB 2.0) থাকার সম্ভাবনা প্রবল।

বিশাল মেমোরি

রিসার্চ ফার্ম ট্রেন্ডফোর্স (TrendForce)-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আইফোন ১৫ প্রো মডেলগুলি ৮ জিবি র‌্যাম সহ আসবে। অন্যদিকে, ভ্যানিলা ভার্সনে ৬ জিবি ‌র‌্যামের দেখা মিলবে। স্বভাবতই বেশি র‌্যাম থাকলে হ্যান্ডসেটগুলি যে আরও সাবলীল তথা ল্যাগ-ফ্রি পারফরম্যান্স দিতে সক্ষম হবে, সেকথা নিঃসন্দেহে বলাই বাহুল্য।

সলিড-স্টেট বাটন

কুও-র মতে, আসন্ন প্রো মডেলগুলিতে সলিড-স্টেট ভলিউম এবং পাওয়ার বাটন থাকবে। তার কথায়, আইফোন ১৫ প্রো মডেলগুলিতে অতিরিক্ত দুটি ট্যাপটিক ইঞ্জিন দেওয়া হবে, যাতে বাটন প্রেস করার অনুভূতি অনুকরণ করার জন্য হ্যাপটিক প্রতিক্রিয়া প্রদান করা যায়। উল্লেখ্য যে, নতুন ম্যাকবুক (MacBook)-এর টাচ (Touch) বা লেটেস্ট আইফোন এসই (iPhone SE)-র হোম (Home) বাটনের সাথে এর বেশ কিছুটা মিল রয়েছে।

অপটিক্যাল জুম

মিং-চি কুও বলেছেন, প্রো ম্যাক্সে একটি পেরিস্কোপ টেলিফটো লেন্স থাকবে, যা ৬x অপটিক্যাল জুম সাপোর্ট করবে। এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, আইফোন ১৪ প্রো মডেলগুলিতে ৩x অপটিক্যাল জুম সাপোর্ট করে। এর পাশাপাশি ব্লুমবার্গ (Bloomberg)-এর মার্ক গুরম্যান (Mark Gurman) পরামর্শ দিয়েছেন যে, অ্যাপল ওয়াচ আল্ট্রার মতো প্রো ম্যাক্সের নাম পরিবর্তন করে আইফোন ১৫ আল্ট্রা (iPhone 15 Ultra) রাখা যেতে পারে।

আরও পড়ুন