ক্যামেরা পারফরম্যান্সে জোর, iQOO 11 সিরিজে থাকবে নতুন 50 মেগাপিক্সেল Sony সেন্সর

আইকো ১১ সিরিজের নতুন ৫০ মেগাপিক্সেলের সনি আইএমএক্স৮xx সেন্সরটি হবে একটি ১/১.৫ ইঞ্চির ক্যামেরা সেন্সর

iQOO 11 Series 50MP Sony Sensor
iQOO 11 Series 50MP Sony Sensor

গত জুলাই মাসে দেশীয় বাজারে iQOO 10 সিরিজটি উন্মোচনের পর, বর্তমানে আইকো পরবর্তী প্রজন্মের iQOO 11 ফ্ল্যাগশিপ সিরিজটির ওপর কাজ করছে বলে জানা গেছে। অনুমান করা হচ্ছে যে, এই লাইনআপে iQOO 11 এবং iQOO 11 Pro – মডেল দুটি অন্তর্ভুক্ত থাকবে। গত সপ্তাহে জনপ্রিয় এক চীনা টিপস্টার iQOO 11 সিরিজের ডিসপ্লে স্পেসিফিকেশনগুলি প্রকাশ করেন। জানা গেছে যে, এই ডিভাইসগুলিতে উৎকৃষ্ট মানের স্যামসাং ই৬ অ্যামোলেড প্যানেল ব্যবহার করা হবে। আর এবার, তিনি আসন্ন লাইনআপের প্রাইমারি ক্যামেরা সম্পর্কীত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যও অনলাইনে প্রকাশ করেছেন। চলুন এগুলি দেখে নেওয়া যাক।

ফাঁস হল iQOO 11 সিরিজের প্রাইমারি ক্যামেরার বিবরণ

টিপস্টার ডিজিট্যাল চ্যাট স্টেশন তার একটি সাম্প্রতিক ওয়েইবো (Weibo) পোস্টে দাবি করেছেন যে, আইকো ১১ সিরিজটি ৫০ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা অফার করবে। এছাড়াও তিনি বলেন করেছেন যে, আইকো তাদের এই নতুন ফ্ল্যাগশিপ লাইনআপটির জন্য একটি নতুন সনি আইএমএক্স৮ (Sony IMX8) সিরিজের ক্যামেরা সেন্সর পরীক্ষা করছে। অনুমান করা হচ্ছে যে, এই ক্যামেরা সেন্সরের ফটোগ্রাফি পারফরম্যান্স আসন্ন ভিভো এক্স৯০-এর প্রাইমারি ক্যামেরার স্তরে রয়েছে। তিনি আরও উল্লেখ করেছেন যে, আইকো ১১ সিরিজের নতুন ৫০ মেগাপিক্সেলের সনি আইএমএক্স৮xx সেন্সরটি হবে একটি ১/১.৫ ইঞ্চির ক্যামেরা সেন্সর। এটি বিদ্যমান সনি আইএমএক্স৮৬৬ সেন্সরের একটি কাস্টম-মেড সংস্করণ বলে মনে করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে ডিজিট্যাল চ্যাট স্টেশন জানিয়েছিলেন যে, আইকো ১১ সিরিজে একটি স্যামসাং ই৬ অ্যামোলেড (Samsung E6 AMOLED) ডিসপ্লে থাকবে, যা ২কে (2K) রেজোলিউশন এবং ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট অফার করবে। এটি একটি কেন্দ্রীভূত পাঞ্চ-হোল কাটআউট যুক্ত কার্ভড এজ প্যানেল হবে। আইকো ১১ এবং ১১ প্রো, উভয় মডেলই সম্ভবত কোয়ালকমের পরবর্তী ফ্ল্যাগশিপ স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ২ চিপসেট দ্বারা চালিত হতে পারে। এই চিপটি কোয়ালকম আগামী নভেম্বর মাসে আয়োজিত স্ন্যাপড্রাগন সামিটে লঞ্চ করবে বলে জানা গেছে।

এছাড়াও, শোনা যাচ্ছে যে iQOO 11 Pro মডেলটি পূর্বসূরি iQOO 10 Pro-এর মতো ২০০ ওয়াট চার্জিং প্রযুক্তিই সাপোর্ট করবে। অন্যদিকে, স্ট্যান্ডার্ড iQOO 11-এ ১২০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রো মডেলটি ওয়্যারলেস চার্জিংও অফার করতে পারে। iQOO 11 লাইনআপের লঞ্চের টাইমলাইন সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি। তবে, সম্ভবত আগামী বছরের প্রথম দিকে চীনে এই সিরিজটির ওপর থেকে পর্দা সরানো হতে পারে।

Ananya graduated with a degree in Journalism and Mass Communication And she loves to read and write, enjoys music and is very interested in Technology.