HomeমোবাইলRedmi Note 11R vs Redmi Note 11: সস্তা ৫জি নাকি ফিচারে ঠাসা ৪জি রেডমি ফোন, কোনটি কিনবেন

Redmi Note 11R vs Redmi Note 11: সস্তা ৫জি নাকি ফিচারে ঠাসা ৪জি রেডমি ফোন, কোনটি কিনবেন

আজ আমরা Redmi Note 11 এবং Redmi Note 11R স্মার্টফোন দুটির মধ্যে দাম ও স্পেসিফিকেশনগত তুলনামূলক আলোচনা করবো

Xiaomi অধীনস্ত ব্র্যান্ড Redmi গতকাল অর্থাৎ ৩০শে সেপ্টেম্বর তাদের হোম-মার্কেটে Redmi Note 11R নামের একটি নয়া হ্যান্ডসেট লঞ্চ করেছে। Note 11 সিরিজের এই লেটেস্ট “R” ব্র্যান্ডিং যুক্ত সংযোজনটিকে সবচেয়ে সাশ্রয়ী মূল্যের 5G ফোনগুলির একটি ধরা হচ্ছে। তবে শুধুমাত্র দামের কারণেই নয়, ফিচারের কারণেও এটি যথেষ্ট নজর কাড়ছে ফোন প্রেমীদের। এক্ষেত্রে দেখতে গেলে, আলোচ্য সিরিজের ভ্যানিলা মডেল অর্থাৎ Redmi Note 11 -ও কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে ‘বেস্ট সেলিং’ বাজেট 4G ফোন হিসাবে ভারতীয় বাজারে উপস্থিত আছে। ফলে আপনাদের মনে প্রশ্ন উঠতেই পারে যে – Redmi Note 11R এদেশে পা রাখার পর, দাম ও ফিচারের নিরিখে পূর্বসূরি নাকি উত্তরসূরি কোনটিকে বেছে নেওয়া অধিক লাভজনক হবে। তাই এই বিভ্রান্তির নিস্তার করতে আজ আমরা Redmi Note 11 এবং Redmi Note 11R স্মার্টফোন দুটির মধ্যে দাম ও স্পেসিফিকেশনগত তুলনামূলক আলোচনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

Redmi Note 11R vs Redmi Note 11 : ডিসপ্লে, সেন্সর

ডুয়েল সিমের রেডমি নোট ১১আর ফোনে একটি ৬.৬৮ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০ x ২,৫০৮ পিক্সেল) ডিসপ্লে রয়েছে, যা ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ১৫০০:১ কনট্রাস্ট রেশিও, ৪০১ পিপিআই পিক্সেল ডেনসিটি এবং ২৪০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট সাপোর্ট করে। এই ডিসপ্লের ডিজাইন ওয়াটারড্রপ নচ স্টাইলের। আর সিকিউরিটি ফিচার হিসাবে এতে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার মিলবে।

রেডমি নোট ১১ ফোনে দেখা যাবে ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সমর্থিত একটি ৬.৪৩ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০ x ২,৪০০পিক্সেল) AMOLED ডট (পাঞ্চ-হোল) ডিসপ্লে। আর নিরাপত্তার জন্য এতেও সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

Redmi Note 11R vs Redmi Note 11 : প্রসেসর, অপারেটিং সিস্টেম, র‌্যাম, স্টোরেজ

উন্নত পারফরম্যান্সের জন্য, সদ্য লঞ্চ হওয়া রেডমি ফোনটি ৭ ন্যানোমিটার (এনএম) প্রসেসিং নোড ভিত্তিক মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৭০০ অক্টা-কোর প্রসেসর এবং মালি জি৫৭ এমসি২ জিপিইউ সহ এসেছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক এমআইইউআই ১৩ (MIUI 13) কাস্টম স্কিনে রান করে। আর স্টোরেজ হিসাবে উক্ত ডিভাইসে সর্বাধিক ৮ জিবি LPDDR4X র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি UFS 2.2 রম পাওয়া যাবে। যদিও মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ক্যাপাসিটি ১ টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব।

অভ্যন্তরীণ স্পেসিফিকেশনের কথা বললে, রেডমি নোট ১১ স্মার্টফোনে অক্টা-কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক এমআইইউআই ১৩ (MIUI 13) কাস্টম ইউজার ইন্টারফেস দ্বারা চালিত। এই হ্যান্ডসেটে ৬ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম ১২৮ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বর্তমান।

Redmi Note 11R vs Redmi Note 11 : ক্যামেরা সেটআপ

ফটোগ্রাফির জন্য, রেডমি নোট ১১আর স্মার্টফোনে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/২.৮ অ্যাপারচার সহ ১৩ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল পোট্রেট লেন্স। আর সেলফি ও ভিডিও কলের জন্য, ডিভাইসের সামনে একটি ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং সেন্সর বর্তমান।

ছবি তোলার জন্য নতুন রেডমি নোট ১১ স্মার্টফোনের রিয়ার মডিউলে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ উপস্থিত। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স, ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো শ্যুটার এবং ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর। আবার সেলফি এবং ভিডিও কলিংয়ের জন্য উক্ত হ্যান্ডসেটে এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ১৩ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা পাওয়া যাবে।

Redmi Note 11R vs Redmi Note 11 : পরিমাপ

রেডমি নোট ১১আর স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৬৩.৯৯x৭৬.০৯x৮.০ মিলিমিটার এবং ওজন ২০১ গ্রাম।

রেডমি নোট ১১ স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৫৯.৯x৭৩.০৯x৮.১ মিলিমিটার এবং ওজন ১৭৯ গ্রাম।

Redmi Note 11R vs Redmi Note 11 : ব্যাটারি, কানেক্টিভিটি অপশন

পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য রেডমি নোট ১১আর স্মার্টফোনে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির শক্তিশালী ব্যাটারি আছে, যা ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। তবে, ফোনটির রিটেল বক্সে একটি স্ট্যান্ডার্ড ১০ ওয়াট চার্জার অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এর কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে সামিল রয়েছে – ৫জি, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভি৫.১, জিপিএস/ এ-জিপিএস, গ্লোনাস (GLONASS), ইনফ্রারেড (IR) রিমোট কন্ট্রোল এবং ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট।

পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য রেডমি নোট ১১ ফোনে দেওয়া হয়েছে ৩৩ ওয়াট প্রো ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি। কানেক্টিভিটির জন্য আলোচ্য মডেলে – ডুয়েল ব্যান্ড ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ৫.০, এ-জিপিএস, গ্লোনাস (GLONASS), বিডিএস (BDS), গ্যালিলিও (GALILEO) এবং ইউএসবি টাইপ-সি ২.০ পোর্ট অন্তর্ভুক্ত থাকছে।

Redmi Note 11R vs Redmi Note 11 : দাম

আবারো বলে দিই রেডমি নোট ১১আর ফোনটি তিনটি মেমরি কনফিগারেশনের সাথে আপাততভাবে চীনের বাজারে এসেছে। এক্ষেত্রে হোম মার্কেটে ফোনটির ৪ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ১,০৯৯ ইউয়ান (প্রায় ১২,৬০০ টাকা)। আর, ৬ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ এবং ৮ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ অপশনের বিক্রয় মূল্য যথাক্রমে ১,১৯৯ ইউয়ান (প্রায় ১৩,৭০০ টাকা) এবং ১,৩৯৯ ইউয়ান (প্রায় ১৬,০০০ টাকা) ধার্য করা হয়েছে। এটি – পোলার ব্লু ওশান, মিস্টিরিয়াস ডার্কনেস এবং আইস ক্রিস্টাল গ্যালাক্সি (অনুবাদিত)- এই তিনটি আকর্ষণীয় কালার অপশনে উপলব্ধ।

ভারতে, রেডমি নোট ১১ ফোনের ৪ জিবি র‌্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৩,৪৯৯ টাকা। আর, ৬ জিবি র‌্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজ এবং ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ কনফিগারেশনের বিক্রয় মূল্য যথাক্রমে ১৪,৪৯৯ টাকা ও ১৫,৯৯৯ টাকা রাখা হয়েছে। এটি – হরাইজন ব্লু স্পেস ব্ল্যাক, এবং স্টারবাস্ট হোয়াইট রঙের বিকল্পে পাওয়া যাবে।

এক্ষেত্রে বলা যায়, Redmi Note 11 ফোনটি অনেক বেশি আকর্ষণীয় ফিচার সহ এসেছে। তবে 5G নেটওয়ার্কের স্বাদ পেতে হলে আপনাকে Redmi Note 11R কিনতে হবে।

আরও পড়ুন