মোবাইল

সমস্ত Samsung ফোনে চলবে Airtel 5G, শুধু করুন এই কাজ

বহুদিনের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে গত অক্টোবরের শুরুতে ভারতে দ্রতগতির 5G পরিষেবা চালু হয়েছে। পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি রোলআউট হওয়ার পর থেকেই দেশের শীর্ষস্থানীয় টেলিকম কোম্পানিগুলি বিভিন্ন স্মার্টফোন নির্মাতাদের সহযোগিতায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তের গ্রাহকদের কাছে এই দ্রুততর নেটওয়ার্ক পরিষেবাটি পৌঁছে দেওয়ার জন্য নিরন্তর পরিশ্রম করে চলেছে। আর সমস্ত 5G স্মার্টফোনেই যাতে ব্যবহারকারীরা এই দুরন্ত গতির ইন্টারনেট ব্যবহারের মজা পেতে সক্ষম হন, তার জন্য হ্যান্ডসেট নির্মাতা সংস্থাগুলিও একের পর এক সফটওয়্যার আপডেট রোলআউট করে চলেছে। সেক্ষেত্রে নভেম্বরের শুরুতে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম অপারেটর Bharti Airtel-এর এক কর্মকর্তা জানিয়েছিলেন যে, Apple iPhone ছাড়া সমস্ত সংস্থার 5G এনাবল স্মার্টফোনগুলিতে চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যেই Airtel-এর 5G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে। সম্প্রতি পাওয়া এক খবরের ভিত্তিতে একথা নিঃসন্দেহে বলা যায় যে, কোম্পানিটির করা এই দাবি প্রকৃতপক্ষেই বাস্তবায়িত হতে চলেছে।

এখন Samsung-এর সমস্ত 5G ফোনে সাপোর্ট করবে Airtel-এর 5G নেটওয়ার্ক

ইতিমধ্যেই এদেশে উপলব্ধ বেশিরভাগ ৫জি স্মার্টফোনেই এয়ারটেলের দ্রুতগতির নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে। আর সম্প্রতি জানা গিয়েছে যে, ভারতী এয়ারটেলের ৫জি নেটওয়ার্ক এবার সব স্যামসাং (Samsung) ফোনেই সাপোর্ট করবে। অর্থাৎ, স্যামসাংয়ের যে-কোনো ৫জি স্মার্টফোন কিনলেই তাতে এয়ারটেলের বিদ্যুৎ গতির ইন্টারনেট সার্ভিস পেতে সক্ষম হবেন ইউজাররা। স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, সংস্থার সমস্ত হ্যান্ডসেটে যাতে এয়ারটেলের ৫জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে, সেজন্য দক্ষিণ কোরিয়ান টেক জায়েন্টটি ইতিমধ্যেই তাদের সমস্ত ৫জি স্মার্টফোনের জন্য ওটিএ (OTA অর্থাৎ ওভার-দ্য-এয়ার) আপডেট রোলআউট করতে সক্ষম হয়েছে। তাই আপনি যদি স্যামসাংয়ের একটি পঞ্চম প্রজন্মের কানেক্টিভিটিযুক্ত ফোনের মালিক হন এবং আপনার ফোনে যদি এখনও এয়ারটেলের ৫জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট না করে, তাহলে সংস্থা কর্তৃক সম্প্রতি রোলআউট করা সফটওয়্যার আপডেটটি ইন্সটল করে নিলেই আপনি নিজের মুঠোফোনটিতে ঝড়ের গতির ইন্টারনেট ব্যবহারের মজা উপভোগ করতে সক্ষম হবেন।

Samsung-এর এই স্মার্টফোনগুলিতে Airtel-এর 5G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, গত সপ্তাহে স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল যে, Samsung Galaxy Z Flip3 এবং Galaxy Z Fold3 – এই দুটি ডিভাইস ব্যতীত বাকি সকল স্যামসাং স্মার্টফোনেই এয়ারটেলের ৫জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে। তবে এখন উক্ত দুটি ডিভাইসেও এয়ারটেলের ৫জি পরিষেবা ব্যবহার করতে পারবেন ইউজাররা। ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে নীচে সেই সকল স্মার্টফোনগুলির তালিকা দেওয়া হল, যেগুলিতে এয়ারটেলের ৫জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে:

Samsung Galaxy S21

Samsung Galaxy S22+

Samsung Galaxy Z fold 2

Samsung E426B (F42)

Samsung Galaxy S21 FE

Samsung Galaxy M33

Samsung Galaxy S22 Ultra

Samsung Galaxy S22

Samsung Galaxy A33 5G

Samsung Galaxy A53 5G

Samsung Galaxy Flip4

Samsung Galaxy Note 20 Ultra

Samsung Galaxy Fold4

Samsung Galaxy S21 Ultra

Samsung Galaxy S21 Plus

Samsung M526B (M52)

Samsung A528B (A52s)

Samsung A22 5G

Samsung M32 5G

Samsung S20FE 5G

Samsung F23

Samsung A73

Samsung M53

Samsung M42

Samsung M13

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, Bharti Airtel আপাতত ১১ টি শহরে তাদের 5G পরিষেবা চালু করেছে, যার মধ্যে রয়েছে দিল্লি, মুম্বাই, চেন্নাই, বেঙ্গালুরু, হায়দ্রাবাদ, শিলিগুড়ি, গুয়াহাটি, পানিপথ, নাগপুর, বারাণসী এবং গুরুগ্রাম। এছাড়া, পুনেতে কেবল বিমানবন্দরের ভেতরে সংস্থার 5G পরিষেবা পাওয়া যাবে বলে জানা গিয়েছে। তবে আশা করা যাচ্ছে যে, খুব শীঘ্রই পুনের সকল বাসিন্দারাও এই দ্রুতগতির নেট ব্যবহারের মজা উপভোগ করতে সক্ষম হবেন। গোটা দেশে পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক সার্ভিস রোলআউট করার কাজে Airtel যেভাবে দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে, তাতে চলতি বছরের শেষের দিকে আরও বেশ কয়েকটি শহরে সংস্থার 5G পরিষেবা উপলব্ধ হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল বলে মনে হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button