মোবাইল

অনেকটাই সস্তা হল Samsung Galaxy M32 Prime Edition, এই প্রথম দশ হাজার টাকার কমে কেনা যাবে

আপনি যদি হালফিলে বাজেট রেঞ্জে কোনো নামজাদা কোম্পানির একগুচ্ছ কার্যকর ফিচারে ঠাসা একটি দুর্দান্ত স্মার্টফোন কেনার প্ল্যান করে থাকেন, তাহলে আমাদের আজকের এই প্রতিবেদনে আপনার জন্য রয়েছে একটি দারুণ সুখবর! আসলে বর্তমানে জনপ্রিয় শপিং প্ল্যাটফর্ম Amazon-এ উপলব্ধ বাম্পার ডিসকাউন্ট ও ব্যাংক অফারের দৌলতে Samsung Galaxy M32 Prime Edition ফোনটি ১০,০০০ টাকারও কম খরচে কিনতে সক্ষম হবেন ক্রেতারা। প্রসঙ্গত বলে রাখি, দক্ষিণ কোরিয়ান টেক জায়েন্টটির M-সিরিজের হ্যান্ডসেটগুলি মূলত শক্তিশালী ব্যাটারি এবং দুর্দান্ত ক্যামেরার জন্য বহুল পরিমাণে জনপ্রিয়। তাই এরকম একটি স্মার্টফোন ১০,০০০ টাকারও কমে কেনার সুযোগ পাওয়া যে নিঃসন্দেহে ক্রেতাদের জন্য এক দারুণ আনন্দের ব্যাপার, সেকথা বলাই বাহুল্য।

উল্লেখ্য যে, স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৩২ প্রাইম এডিশনের নাম থেকেই স্পষ্টভাবে বোঝা যায় যে, অ্যামাজন প্রাইম (Amazon Prime)-এর সঙ্গে এই স্মার্টফোনের কোনো-না-কোনো যোগসূত্র রয়েছে। আসলে ব্যাপারটা হল, ৩ মাসের অ্যামাজন প্রাইম মেম্বারশিপ (Amazon Prime Membership) এই ফোনের সাথে বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। চলুন এখন অ্যামাজনে স্যামসাংয়ের এই দুর্দান্ত হ্যান্ডসেটটির দাম এবং এটির গুরুত্বপূর্ণ কিছু ফিচার ও স্পেসিফিকেশন জেনে নেওয়া যাক।

ব্যাংক অফারের ফায়দা উঠিয়ে Amazon থেকে ১০,০০০ টাকারও কমে কেনা যাবে Samsung Galaxy M32 Prime Edition

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৩২ প্রাইম এডিশনের ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজযুক্ত বেস ভ্যারিয়েন্টের আসল দাম ১৬,৯৯৯ টাকা। তবে ২১ শতাংশ ছাড়ের সৌজন্যে বর্তমানে এই ডিভাইসটিকে অ্যামাজনে ১৩,৪৯৯ টাকায় তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। আবার ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মটি কর্তৃক প্রদত্ত ব্যাংক অফারের ফায়দা ওঠাতে পারলে ক্রেতারা এই হ্যান্ডসেটটি মাত্র ৯,৯৯৯ টাকায় কিনতে সক্ষম হবেন। এছাড়া, পুরোনো কোনো ফোন এক্সচেঞ্জ করে এই ডিভাইসটি কিনলে ১২,০০০ টাকা পর্যন্ত এক্সচেঞ্জ বোনাসও পাওয়া যাবে। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই মনে রাখতে হবে, যে ফোনটি এক্সচেঞ্জ করা হচ্ছে তার বর্তমান অবস্থা তথা গুণমানের ওপরেই সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করবে এক্সচেঞ্জ অফারের পরিমাণ।

Samsung Galaxy M32 Prime Edition-এর ফিচার এবং স্পেসিফিকেশন

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৩২ প্রাইম এডিশনে আছে ৬.৪ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ইনফিনিটি-ইউ ফুল এইচডি+ ডিসপ্লে, যাতে গরিলা গ্লাস ৫ প্রোটেকশন দেওয়া হয়েছে। ডিসপ্লেটি ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ৮০০ নিট পিক ব্রাইটনেস অফার করে। মিডিয়াটেক হেলিও জি৮০ (MediaTek Helio G80) অক্টা কোর প্রসেসর দ্বারা চালিত এই হ্যান্ডসেটটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ (Android 12) ভিত্তিক ওয়ানইউআই ৪.১ ওএস (OneUI 4.1 OS) কাস্টম স্কিনে রান করে। নিরাপত্তার জন্য স্মার্টফোনটিতে সাইড-ফেসিং ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ক্যামেরার কথা বলতে গেলে, Samsung Galaxy M32 Prime Edition-এর রিয়ার প্যানেলে ৬৪ মেগাপিক্সেল + ৮ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য ফোনটির সামনে ২০ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা বর্তমান। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য স্যামসাংয়ের এই ডিভাইসটিতে রয়েছে ৬,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, যা ২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। তবে এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, ফোনটির বক্সে কিন্তু ১৫ ওয়াটের চার্জার পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button