সবাই কিনতে চাইবে Samsung Galaxy Z Fold 6 ফোন, ৭ বছর নিশ্চিন্তে ব্যবহারের প্রতিশ্রুতি সহ লঞ্চ হল

পূর্ব ঘোষণা মতোই আজ (১০ জুলাই) স্যামসাংয়ের এবছরের দ্বিতীয় গ্যালাক্সি আনপ্যাকড ইভেন্টটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইভেন্টে দক্ষিণ কোরিয়ার ব্র্যান্ডটি ষষ্ঠ প্রজন্মের গ্যালাক্সি জেড সিরিজের ফোল্ডেবল স্মার্টফোন, স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচ সিরিজ ৭ এবং বহু প্রতীক্ষিত গ্যালাক্সি রিং সহ অনেকগুলি নতুন প্রোডাক্ট উন্মোচন করেছে৷ এর মধ্যে অন্যতম আকর্ষণ, স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফোনটি এসেছে গত বছরের স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৫ মডেলের উত্তরসূরি হিসেবে। লেটেস্ট অফারটি তার পূর্বসূরির তুলনায় সামান্য পরিবর্তিত ডিজাইনের সাথে ক্রমবর্ধমান আপগ্রেড অফার করে। স্যামসাংয়ের এই নতুন বুক স্টাইল ফোল্ডেবল ফোনটির দাম, স্পেসিফিকেশন এবং ফিচার সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফোনের স্পেসিফিকেশন

স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ একটি বক্সি ডিজাইন এবং রিয়ার প্যানেলে একটি পিল-আকৃতির ক্যামেরা আইল্যান্ড সহ এসেছে। ফোল্ড করা অবস্থায় ডিভাইসটির পরিমাপ ১৫৩.৫ x ৬৮.১ x ১২.১ মিলিমিটার এবং আনফোল্ড করা হলে ফোনটির মাত্রা ১৫৩.৫ x ১৩২.৬ x ৫.৬ মিলিমিটার। এটির ওজন ২৩৯ গ্রাম। ফোল্ডেবল ফোনটি আইপি৬৮ সার্টিফায়েড ধুলো এবং জল-প্রতিরোধী চ্যাসিস অফার করে। দক্ষিণ কোরিয়ার ব্র্যান্ডটি জানিয়েছে যে লেটেস্ট ফোল্ডেবল ফোনটি বর্ধিত আর্মার অ্যালুমিনিয়াম এবং গরিলা গ্লাস ভিকটাস ২ দ্বারা সুরক্ষিত, যা এটিকে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে টেকসই জেড-সিরিজ ডিভাইস করে তুলেছে।

ডিসপ্লের ক্ষেত্রে, স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফোনে রয়েছে ৭.৬ ইঞ্চির প্রাইমারি এবং ৬.৩ ইঞ্চি কভার স্ক্রিন। এগুলি ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সহ ডায়নামিক অ্যামোলেড ২x প্যানেল। প্রাইমারি স্ক্রিনটির রেজোলিউশন ২,১৬০ x ১,৮৫৬ পিক্সেল, যেখানে কভার ডিসপ্লেটি ২,৩৭৬ x ৯৬৮ পিক্সেল রেজোলিউশন অফার করে। হ্যান্ডসেটটি স্লিম বেজেল এবং সামান্য লম্বা অ্যাসপেক্ট রেশিও সহ এসেছে।

ফটোগ্রাফির জন্য, স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফোনের ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপে অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাজেশন সহ ৫০ মেগাপিক্সেলের এফ/১.৮ প্রাইমারি সেন্সর, একটি ১২ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স এবং ৩x জুম সহ একটি ১০ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো ইউনিট উপস্থিত রয়েছে৷ বাইরের কভার স্ক্রিনে একটি ১০ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা এবং অভ্যন্তরীণ ডিসপ্লেতে একটি ৪ মেগাপিক্সেলের সেন্সর রয়েছে। ফোল্ডেবল ফোনটি ৮কে পর্যন্ত ভিডিও রেকর্ড করতে সক্ষম। স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফটো অ্যাসিস্ট, পোর্ট্রেট স্টুডিও এবং ইন্সটা স্লো-মো-এর মতো ফিচার অফার করে।

পারফরম্যান্সের জন্য, স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফোনে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ৩ প্রসেসর রয়েছে, যা সর্বাধিক ১২ জিবি র‍্যাম এবং ৫১২ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ অফার করে। এটি গ্রাফিক্স রে ট্রেসিং দ্বারা সমর্থিত। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, ডিভাইসটি ২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৪,৪০০ এমএএইচ ব্যাটারি ইউনিট সাপোর্ট করে। ফোল্ডেবল ফোনটিতে হিট ডিসিপেশনের জন্য একটি আপগ্রেড কুলিং সিস্টেমও রয়েছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১৪ অপারেটিং সিস্টেমের সাথে এসেছে এবং নোট অ্যাসিস্ট, স্কেচ টু ইমেজ, একটি সম্পূর্ণ সমন্বিত জেমিনি অ্যাপের মতো একগুচ্ছ গ্যালাক্সি এআই ফিচার অফার করে। স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২৪ সিরিজের মতো, স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফোনটিও সাত বছরের ওএস আপডেট এবং সিকিউরিটি প্যাচের জন্য যোগ্য। ডিভাইসের কানেক্টিভিটি অপশনগুলির মধ্যে রয়েছে ইউএসবি ৩.২ জেন ১ টাইপ-সি পোর্ট, ওয়াইফাই-৬ই, ব্লুটুথ ৫.৩, নিয়ার ফিল্ড কমিউনিকেশন, আল্ট্রাওয়াইড ব্যান্ড।

স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ ফোনের দাম ও লভ্যতা

স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৬ আজ থেকেই প্রি-অর্ডারের জন্য উপলব্ধ এবং ২৪ জুলাই থেকে এটির বিক্রি শুরু হবে। এটি সিলভার শ্যাডো, পিঙ্ক এবং নেভি কালারে এসেছে। ডিভাইসটির ১২ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ১,৮৯৯ ডলার (প্রায় ১,৫৮,৬০০ টাকা)। আর উচ্চতর ১২ জিবি + ৫১২ জিবি এবং ১২ জিবি + ১ টিবি র‍্যাম এবং স্টোরেজ কনফিগারেশনের দাম যথাক্রমে ২,০১৯ ডলার (প্রায় ১,৬৮,৬০০ টাকা) এবং ২,২৫৯ ডলার (প্রায় ১,৮৮,৭০০ টাকা)। ফোনটির ভারতীয় দাম এখনও সামনে আসেনি।