Homeমোবাইলবিশ্বে প্রথম ডুয়েল আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরার ফোন আনছে Samsung

বিশ্বে প্রথম ডুয়েল আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরার ফোন আনছে Samsung

Samsung আনছে নতুন ডুয়েল আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা প্রযুক্তি, যা ফেস রিকগনিশন ফিচারকে আরও উন্নত করবে

বর্তমান প্রযুক্তির যুগে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিক্স নির্মাতারা উৎকৃষ্টতার দৌড়ে এগিয়ে থাকার জন্য নিত্যনতুন প্রযুক্তির ওপর প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছে। দক্ষিণ-কোরিয়া ভিত্তিক বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি সংস্থা স্যামসাং (Samsung) হল সেই সংস্থাগুলির মধ্যে অন্যতম, যারা তাদের ডিভাইসগুলিকে উন্নততর তোলার জন্য উদ্ভাবনের ওপর বিশেষ জোর দিয়ে থাকে। বর্তমানে কোম্পানিটি একটি ডুয়েল আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা (UDC) প্রযুক্তির ওপর কাজ করছে বলে জানা গেছে, যা ফেস আনলকিং ফিচারের জন্য ফেস রেকগনিশন প্রযুক্তিকে উন্নত করতে সাহায্য করবে। এই তথ্যটি উঠে এসেছে সম্প্রতি স্যামসাংয়ের দাখিল করা একটি পেটেন্ট থেকে। এই ডুয়েল আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা সেটআপে একই সাথে একাধিক কোণ থেকে ব্যক্তির মুখ স্ক্যান করার একটি সলিউশন অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে, যা ফোন আনলক করার জন্য একটি ৩ডি (3D)/স্টেরিওস্কোপিক স্ক্যান তৈরি করে। প্রসঙ্গত, স্যামসাং সদ্য উন্মোচিত Galaxy Z Fold 4-এ একটি ৪ মেগাপিক্সেলের ইউডিসি ব্যবহার করেছে, যা প্রাইমারি স্ক্রিনের ওপর অবস্থিত।

Samsung আনছে নতুন ডুয়েল আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা প্রযুক্তি যা ফেস রিকগনিশন ফিচারকে আরও উন্নত করবে

গ্যালাক্সি ক্লাব (Galaxy Club) ২০২১ সালের মার্চ মাসে দায়ের করা এবং চলতি সপ্তাহে প্রকাশিত স্যামসাংয়ের আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা প্রযুক্তির পেটেন্টটি চিহ্নিত করেছে। এই পেটেন্ট অনুসারে, স্যামসাং ব্যবহারকারীদের প্রমাণিকরণের জন্য একটি নয়া পদ্ধতি, বিশেষ যন্ত্রপাতি এবং স্টোরেজ মাধ্যম নিয়ে কাজ করছে। কোম্পানিটি ডুয়েল ইউডিসি তৈরি করছে বলে মনে হচ্ছে, যা ফোন আনলক করার জন্য ব্যবহারকারীর মুখ বিভিন্ন কোণ থেকে স্ক্যান করবে।

প্রসঙ্গত, স্যামসাংয়ের পেটেন্টটিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বিভিন্ন প্রতিমূর্তি অনুসারে, এই ইলেকট্রনিক ডিভাইসটি হল মেমরি, ডিসপ্লে, ডিসপ্লের নীচের অংশে সাজানো একাধিক ক্যামেরা। এটিকে অন্তত একটি প্রসেসর মেমরির সাথে অপারেটিভভাবে সংযুক্ত করা হবে ও এতে ডিসপ্লে এবং একাধিক ক্যামেরা অন্তর্ভুক্ত করা হবে। যন্ত্রটি ব্যবহারকারী সম্পর্কে একাধিক চিত্র গ্রহণ করে, যেগুলি চূড়ান্ত চিত্রের ওপর ভিত্তি করে ব্যবহারকারী সম্পর্কে প্রমাণীকরণ সম্পাদন করার জন্য সেটআপ করা যাবে।

এছাড়া, গ্যালাক্সি ক্লাব জানিয়েছে যে, বিভিন্ন ক্যামেরা থেকে একাধিক স্ক্যান করার কারণে আরও সঠিক ছবি পাওয়া যাবে। যেহেতু, ক্যামেরাগুলি বিভিন্ন কোণ থেকে মুখ স্ক্যান করছে, তাই ব্যবহারকারীর মুখ আরও গভীরতার সাথে ক্যাপচার করা যাবে, ফলে ২ডি চিত্রের তুলনায় এতে ভুলভ্রান্তি হওয়ার সম্ভাবনা কম। এই দুটিই একত্রিত হতে পারে এবং পুরো ফেসিয়াল রেকরগনিশনকে আরও সুরক্ষিত করে তুলতে পারে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে শুধুমাত্র Samsung Galaxy Z Fold 4-এ একটি আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা রয়েছে। তবে, এই ৪ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরাটি তেমন উচ্চ মানের নয়। এমনকি, আগস্ট মাসে লঞ্চ হওয়া এই ফোল্ডেবল ফোনের বিভিন্ন পর্যালোচনায় উল্লেখ করা হয়েছে যে, সেলফির জন্য এই ক্যামেরাটি উপযুক্ত পছন্দ নয়। তবে, মার্কিন সংস্থা অ্যাপল ইতিমধ্যেই ফেসআইডি (FaceID) প্রযুক্তির পথপ্রদর্শক হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত। এই ব্র্যান্ডের ফোন বা ট্যাবলেটগুলি আনলক করার একমাত্র বায়োমেট্রিক অপশন হিসেবে ফেস আনলকের ওপরই নির্ভর করা হয়ে থাকে।

আরও পড়ুন