চীন নয়, ভারতে ৪৫ হাজার মহিলা মিলে তৈরি করবে iPhone-এর যন্ত্রাংশ

পাঁচ ছয় বছর আগেও ভারতে কোনো মোবাইল ফোন তৈরি হতো না, কিন্তু সময়ের সাথে সাথে ছবিটা পুরোপুরি পাল্টে গিয়েছে। এখন অনেক মোবাইল কোম্পানি এদেশে তাদের ফোন উৎপাদন করছে; এবং সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল, বিশ্বের সবচেয়ে বড়ো মোবাইল ফ্যাক্টরিটিও ভারতে অবস্থিত, যা Samsung-এর মালিকানাধীন। তবে চলতি সময়ে দেশে বিপুল পরিমাণে মোবাইল উৎপাদিত হলেও যন্ত্রাংশ ও কাঁচামালের জন্য কিন্তু এখনও চীন বা তাইওয়ানের ওপর নির্ভর করতে হয়। তবে এই ছবিটা বদলে দিতে এবার মাঠে নামছে টাটা গ্রুপ (Tata Group)।

ভারতে iPhone-এর সরঞ্জাম তৈরির জন্য ৪৫,০০০ মহিলা কর্মী নিয়োগের পরিকল্পনা করছে Tata Group

মাসখানেক আগেই খবর পাওয়া গিয়েছিল যে, খুব শীঘ্রই ভারতে আইফোন (iPhone) তৈরি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে টাটা গ্রুপ। আর সাম্প্রতিক এক রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে যে, ভারতে আইফোনের সরঞ্জাম তৈরি করার জন্য সংস্থাটি আগামী দিনে ৪৫,০০০ মহিলা কর্মী নিয়োগের পরিকল্পনা করছে। তামিলনাড়ুর হোসুরে (Hosur) টাটা গ্রুপের একটি কারখানাতেই তৈরি হবে আইফোনের সরঞ্জাম। রিপোর্ট অনুযায়ী, অ্যাপল (Apple)-এর কাছ থেকে আরও অধিক পরিমাণে বরাত পাওয়ার জন্যই মহিলা কর্মচারী নিয়োগের দিকে প্রাধান্য দিচ্ছে সংস্থাটি। শুধু তাই নয়, সকল মহিলা কর্মীদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাও টাটা গ্রুপ করবে বলে জানা গিয়েছে।

আগামী ১৮ থেকে ২৪ মাসের মধ্যে করা হবে নিয়োগ

ব্লুমবার্গ (Bloomberg)-এর একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই মুহূর্তে সংস্থার কারখানায় ১০,০০০ কর্মী রয়েছে, যাদের অধিকাংশই নারী। এবং আগামী ১৮ থেকে ২৪ মাসের মধ্যে অতিরিক্ত ৪৫,০০০ মহিলা কর্মীর নিয়োগপর্ব সম্পন্ন হবে বলে জানা গিয়েছে। তবে এ বিষয়ে টাটা এবং অ্যাপলের তরফে এখনও কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করা হয়নি। সবমিলিয়ে, এর সুবাদে প্রধানমন্ত্রীর আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্প যে আরও একধাপ এগোতে চলেছে, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই বললেই চলে।

চাকরির সাথে সাথে থাকা-খাওয়ার সুবিধাও মিলবে

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, তামিলনাড়ুর হোসুরে Tata Group-এর কারখানাটি ৫০০ একর জমি জুড়ে অবস্থিত। মূলত ফোনের সরঞ্জামই এই কারখানায় তৈরি হয়। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে যে, চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে উপজাতি সম্প্রদায়ের অন্তর্গত ৫,০০০ জন মহিলা এই কারখানায় চাকরি পেয়েছেন; যদিও Tata Group-এর কোনো কর্মকর্তা বা Apple-এর তরফে এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো নিশ্চিত তথ্য পাওয়া যায়নি। রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই কারখানায় কর্মরত মহিলারা মাসিক ১৬,০০০ টাকা বেতন পাবেন; সেইসাথে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে থাকা-খাওয়ার সুবিধাও মিলবে। শুধু তাই নয়, এর পাশাপাশি সকল মহিলা কর্মীদের পড়াশোনার খরচও বহন করবে Tata Group।