কম্পিউটার-ল্যাপটপ এর কাছে তুচ্ছ,18GB র‍্যাম ও 1TB স্টোরেজ যুক্ত ফোন নিয়ে এল ZTE

জেডটিই অ্যাক্সন ৪০ আল্ট্রা এরোস্পেস এডিশন স্মার্টফোনকে দুটি ভিন্ন স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে নিয়ে আসা হয়েছে। যার মধ্যে ১২ জিবি র‌্যাম + ৫১২ জিবি স্টোরেজ যুক্ত বেস মডেলের দাম রাখা হয়েছে ৫,৮৯৮ ইউয়ান (প্রায় ৬৭,৪০০ টাকা)

ZTE Axon 40 Ultra Aerospace Edition launched

পূর্ব ঘোষণা মতো আজ অর্থাৎ ২৯শে নভেম্বর ZTE Axon 40 Ultra Aerospace Edition চীনের বাজারে লঞ্চ হল। শেনঝেন ভিত্তিক টেক ব্র্যান্ড ZTE তাদের এই লেটেস্ট হ্যান্ডসেটটিকে চীনের মনুষ্যবাহী মহাকাশযান উৎক্ষেপণের সফলতা উদযাপনের প্ৰতীক রূপে বাজারে নিয়ে এসেছে। আপনাদের অবগতের জন্য জানিয়ে রাখি, রাশিয়া এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পর চীন এরূপ মহাকাশ অভিযানের কৃতিত্ব অর্জনকারী তৃতীয় দেশ। যাইহোক ফোনটির বিশেষত্বের কথায় এবার ফিরে আসা যাক। এই ‘স্পেশাল’ এডিশনের একাধিক স্পেসিফিকেশন স্ট্যান্ডার্ড মডেলের অনুরূপ, যা চলতি বছরের ৯ই জুন লঞ্চ হয়েছিল। তবে রিয়ার প্যানেলের ডিজাইনের ক্ষেত্রে ভিন্নতা নজরে আসবে। আর অতিরিক্তভাবে এতে একটি সেকেন্ডারি চিপ রয়েছে এবং ফোনটি শুধুমাত্র ২টি মেমরি কনফিগারেশন সহ এসেছে। চলুন সদ্য আগত ZTE Axon 40 Ultra Aerospace Edition স্মার্টফোনের ডিজাইন, বিশেষত্ব ও দাম সম্পর্কে বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

ZTE Axon 40 Ultra Aerospace Edition -এর বিশেষত্ব

জেডটিই অ্যাক্সন ৪০ আল্ট্রা এরোস্পেস এডিশন ফোনে সিরামিক রিয়ার প্যানেল রয়েছে। এই প্যানেলটি ইন্টিগ্রেটেড ন্যানো-কাস্টিং মোল্ডিং প্রক্রিয়া ব্যবহারে নির্মিত। আবার হ্যান্ডসেটের পিছনে অবস্থিত ক্যামেরা মডিউলের উভয় পাশ দিয়ে দুটি রিজলাইনকে উলম্বভাবে যেতে দেখা গেছে, যা একটি স্পেস শাটলের শার্প-এজের অনুকরণ-স্বরূপ৷ এই ডিজাইন সম্পর্কে সংস্থাটি জানিয়েছে যে – এই ডিভাইসটির রিয়ার প্যানেলের ডিজাইন, মহাকাশ দিয়ে যাওয়ার সময়ে যে আলো এবং ছায়ার প্রতিফলন পড়ে স্পেসশীপে তার দ্বারা অনুপ্রাণিত।

প্রসঙ্গত, আলোচ্য ডিভাইসটি একটি ইন্ডিপেন্ডেন্ট সিকিউরিটি চিপ সহ এসেছে। এই চিপসেটের সম্পর্কে তেমন কোনো তথ্য সামনে আসেনি। তবে এটি সম্ভবত Google Pixels ফোনে থাকা Titan M সিরিজের সিউকিউরিটি চিপগুলির মতোই হবে।

IMG 20221129 WA0002

ZTE Axon 40 Ultra Aerospace Edition -এর দাম

জেডটিই অ্যাক্সন ৪০ আল্ট্রা এরোস্পেস এডিশন স্মার্টফোনকে দুটি ভিন্ন স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে নিয়ে আসা হয়েছে। যার মধ্যে ১২ জিবি র‌্যাম + ৫১২ জিবি স্টোরেজ যুক্ত বেস মডেলের দাম রাখা হয়েছে ৫,৮৯৮ ইউয়ান (প্রায় ৬৭,৪০০ টাকা)। আর ১৮ জিবি র‌্যাম + ১ টেরাবাইট স্টোরেজ যুক্ত টপ-এন্ড বিকল্পটি এসেছে ৭,৬৯৮ ইউয়ান (প্রায় ৮৭,৯০০ টাকা) প্রাইহ ট্যাগের সাথে।

প্রসঙ্গত, স্ট্যান্ডার্ড জেডটিই অ্যাক্সন ৪০ আল্ট্রা স্মার্টফোনকেও এখন ১ টেরাবাইট স্টোরেজ সহ নিয়ে আসা হয়েছে। তবে এতে সর্বাধিক ১৬ জিবি র‌্যাম পাওয়া যাবে। মূল মডেলটি ৪টি স্টোরেজ অপশনের সাথে উপলব্ধ।

ZTE Axon 40 Ultra -এর স্পেসিফিকেশন

জেডটিই অ্যাক্সন ৪০ আল্ট্রা ফোনে ৬.৮১ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (২,৪৮০ x ১,১১৬ পিক্সেল) AMOLED ডিসপ্লে প্যানেল রয়েছে, যা ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ১০০% ডিসিআই-পি৩ কালার গ্যামট, ১০ বিট কালার, ৪০০ পিপিআই পিক্সেল ডেনসিটি, ১,৫০০ নিট পিক ব্রাইটনেস অফার করে। ডিভাইসটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ১ চিপসেট দ্বারা চালিত। এতে সর্বাধিক ১২ জিবি পর্যন্ত এলপিডিডিআর৫ র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি পর্যন্ত ইউএফএস ৩.১ স্টোরেজ পাওয়া যাবে। আর অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে বিদ্যমান থাকছে অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক মাই ওএস ১২ (MyOS 12) কাস্টম স্কিন। নিরাপত্তার জন্য এতে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর মিলবে।

ক্যামেরা ফ্রন্টের ক্ষেত্রে, ZTE Axon 40 Ultra ফোনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ উপস্থিত। এগুলি হল – অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন (OIS) এবং ফুল পিক্সেল অমনিডায়রেকশনাল অটোফোকাস সহ ৬৪ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স৭৮৭ প্রাইমারি সেন্সর, OIS সহ ৬৪ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স৭৮৭ আল্ট্রা-ওয়াইড সেন্সর এবং OIS-এনাবল ৬৪ মেগাপিক্সেল টেলিফটো পেরিস্কোপ শুটার। এই রিয়ার ক্যামেরা সেটআপটি – একটি ফ্লিকার সেন্সর, একটি ToF সেন্সর, অডিও জুম এবং অডিও রেকগনিশনের জন্য ট্রাই-মাইক্রোফোন সেটআপ সহ এসেছে। সেলফি ভিডিও কলিংয়ের জন্য ফোনের সামনে ১৬ মেগাপিক্সেল আন্ডার-ডিসপ্লে ফ্রন্ট ক্যামেরা বর্তমান।

কানেক্টিভিটির জন্য ডিভাইসে – ডুয়েল-সিম স্লট, ওয়াই-ফাই ৬ই, ব্লুটুথ ৫.২, ডুয়েল-ফ্রিকোয়েন্সি জিপিএস, এনএফসি এবং একটি ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট অন্তর্ভুক্ত। হিট ডিসিপেশনের জন্য এতে ভিসি লিকুইড কুলিং ইউনিট রয়েছে, যা ডিভাইসের অভ্যন্তরে ৩৬,৩৫৬ মিলিমিটার² এলাকা জুড়ে অবস্থান করছে। আর পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য ZTE Axon 40 Ultra ফোনে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে চীনে আগত ভ্যারিয়েন্টটি ৮০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি এবং গ্লোবাল সংস্করণটি ৬৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি সাপোর্ট করে।