আগামী সপ্তাহে ভারতে আসছে Moto E7 Plus, থাকবে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা

moto-e7-plus-launch-date-set-in-india-on-23-september-expected-price-specifications

আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর ভারতে লঞ্চ হবে Moto E7 Plus। আজ Flipkart থেকে মোটো ই৭ প্লাস এর ভারতে লঞ্চ ডেট সামনে আনা হয়েছে। যদিও ই-কমার্স সাইট থেকে ফোনটির স্পেসিফিকেশন বা দাম কিছুই জানা যায়নি। প্রসঙ্গত গত সপ্তাহেই কোম্পানি মোটো ই৭ প্লাস কে ব্রাজিলে লঞ্চ করেছিল। আশা করা যায় ভারতেও ফোনটি একই স্পেসিফিকেশন সহ আসবে। এতে স্ন্যাপড্রাগন ৪ সিরিজের প্রসেসর ও ওয়াটারড্রপ নচ ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে।

২৩ সেপ্টেম্বর ভারতে লঞ্চ হবে Moto E7 Plus

ফ্লিপকার্ট এর টিজার পোস্ট অনুযায়ী, ২৩ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২ টায় মোটো ই৭ প্লাস কে লঞ্চ করা হবে। করোনা আবহে অনলাইন লঞ্চ ইভেন্টের মাধ্যমেই ফোনকে এদেশে আনা হবে। বিস্তারিত জানতে মোটোরোলা ওয়েবসাইটে চোখ রাখতে পারেন। এছাড়াও আমরা ফোনটি সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য আপনাদের কাছে পৌঁছে দেব।

Moto E7 Plus এর ভারতে সম্ভাব্য দাম

আগেই বলেছি ফ্লিপকার্ট থেকে এই ফোনের বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। এমনকি Motorola ও মোটো ই৭ প্লাস এর দাম নিয়ে গোপনীয়তা অবলম্বন করেছে। তবে ব্রাজিলে এই ফোনের ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের দাম ১৩৪৯.১০ বিএলআর, যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১৮,৮০০ টাকা। সেহেতু আশা করা যায় ফোনটি ১৫ হাজার টাকার রেঞ্জে আসবে।

Moto E7 Plus স্পেসিফিকেশন

মোটো ই৭ প্লাস ফোনে ৬.৫ ইঞ্চি ম্যাক্স ভিশন এইচডি প্লাস ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এর রেজুলেশন ১৬০০ x ৭২০ পিক্সেল। এর ডিসপ্লে ডিজাইন ওয়াটারড্রপ নচ। ফোনটিতে পাবেন কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৬০ প্রসেসর। আবার গ্রাফিক্সের জন্য এড্রেনো ৬১০ জিপিইউ ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়াও আছে ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে।

মোটো ই৭ প্লাস ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরার সাথে এসেছে। এর প্রাইমারি ক্যামেরা এফ/১.৭ অ্যাপারচার সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল। আবার অন্য ক্যামেরাটি হল এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল। রিয়ার ক্যামেরার সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ উপলব্ধ। এই ক্যামেরা দিয়ে ৬০ এফপিএস এ ফুল এইচডি ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। ভিডিও কল ও সেলফির জন্য এতে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

পাওয়ারের কথা বললে এই ফোনে পাবেন ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। ফোনটিতে ১০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। কোম্পানি দাবি করেছে এই ব্যাটারি দুদিন ব্যাকআপ দেবে। চার্জিংয়ের জন্য এতে আছে মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট। ফোনটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাকের সাথে এসেছে। এই ফোনের ওজন ২০০ গ্রাম।