ভারতে আসছে ৬৪ এমপি ক্যামেরার Moto G9 Plus, থাকবে ৫০০০ mAh ব্যাটারি

খুব তাড়াতাড়ি ভারতে আসতে চলেছে মোটোরোলার বহু প্রতীক্ষিত স্মার্টফোন Moto G9 Plus। সম্প্রতি ফোনটি ভারতের বিআইএস (BIS) সার্টিফিকেশন লাভ করেছে। উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই মোটোরোলা ফোনটিকে ব্রাজিলে লঞ্চ করে। Moto G9 Plus মূলত একটি মিড-রেঞ্জ বাজেট ফোন। স্পেসিফিকেশনের কথা বললে মোটো জি৯ প্লাস ফোনে রয়েছে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ, ৫০০০ এমএএইচের ব্যাটারি এবং কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি চিপসেট।

জানিয়ে রাখি বিআইএস সার্টিফিকেশন সাইটে একটি নয়, মোটোরোলার দু’টি ফোনকে দেখা গেছে। এদের মডেল নম্বর যথাক্রমে XT2083-7 ও XT2087-3। যদিও এদের মধ্যে কোন ফোনটি মোটো জি৯ প্লাস, তা স্পষ্ট হয়নি। তবে আমাদের অনুমান XT2087 মডেল নম্বরের ফোনটিই Moto G9 Plus। তবে বিআইএসের সার্টিফিকেশন লাভ করায় স্পষ্টই যে ভারতের বাজারে মোটো জি৯ প্লাস কে পেতে আর বেশী দেরী নেই।

Moto G9 Plus এর দাম 

ব্রাজিলে এই ফোনটি একটি স্টোরেজ সহ লঞ্চ হয়েছিল। এর ৪ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম ২৫৯ পাউন্ড, যা ভারতে প্রায় ২৪,৬০০ টাকা। ফোনটি রোজ গোল্ড ও ব্লু ইন্ডিগো কালারের সাথে লঞ্চ হয়েছিল।

Moto G9 Plus এর স্পেসিফিকেশন

আশা করা যায় ব্রাজিলে যে স্পেসিফিকেশনের সাথে ফোনটি লঞ্চ হয়েছিল, ভারতেও একই স্পেসিফিকেশন আসবে। মোটো জি৯ প্লাস স্মার্টফোনে রয়েছে ৬.৮ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস ম্যাক্স-ভিশন এলসিডি ডিসপ্লে। এর পিক্সেল রেজোলিউশন ২৪০০ x ১০৮০। ফোনটি এইচডিআর১০ সাপোর্ট সহ আসবে। প্রসেসরের কথা বলতে গেলে মোটো জি৯ প্লাস ফোনে রয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি অক্টা-কোর প্রসেসর। গ্রাফিক্সের ক্ষেত্রে এতে অ্যাড্রেনো ৬১৮ জিপিইউ ব্যবহার করা হয়েছে।

ফটোগ্রাফির জন্য Moto G9 Plus স্মার্টফোনে কোয়াড-ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে, যার প্রাইমারি লেন্সটি ৬৪ মেগাপিক্সেলের (এফ/১.৮)। এছাড়া এতে রয়েছে ১১৮ ডিগ্রি ফিল্ড অফ ভিউ সহ ৮ মেগাপিক্সেলের (এফ/২.২) আলট্রা ওয়াইড লেন্স। এছাড়া ফোনটিতে ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো শুটার ও ২ মেগাপিক্সেলের ডেপ্থ সেন্সর রয়েছে। এর সামনের দিকে আছে ১৬ মেগাপিক্সেলের (এফ/২.০) সেলফি ক্যামেরা।

মোটোরোলার মোটো জি৯ প্লাস ফোনটি ৪ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের সাথে ব্রাজিলে লঞ্চ হয়েছিল। মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে। এছাড়া ফোনটিতে থাকছে ৫০০০ এমএএইচের ব্যাটারি। চার্জিংয়ের জন্য এতে রয়েছে ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট এবং ৩০ ওয়াটের টার্বোপাওয়ার ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট। ডুয়াল ৪জি কানেক্টিভিটির এই ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েড ১০ নির্ভর ওএসের দেখা মিলবে। সিকিউরিটির জন্য এতে একটি সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার দেওয়া হয়েছে।