দুর্দান্ত ক্যামেরা ও শক্তিশালী ব্যাটারিরি সাথে লঞ্চ হল Motorola Edge এবং Motorola Edge+

Motorola Edge

বেশ কয়েকমাস ধরে ফিচার ফাঁস হওয়ার পর অবশেষে লঞ্চ হল মোটোরোলা এজ সিরিজ । নতুন এই সিরিজ কোম্পানি প্রিমিয়াম রেঞ্জে লঞ্চ করেছে। এই সিরিজে দুটি ফোন আছে Motorola Edge এবং Motorola Edge+। এর প্লাস মডেলটি আরও বেশি দামি। মোটোরোলা এজ সিরিজের বিশেষ বিশেষ ফিচারের কথা বললে এখানে পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে, ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা, ১০৮ মেগাপিক্সেল পর্যন্ত ক্যামেরা সেন্সর রয়েছে। Motorola Edge এবং Motorola Edge+ এর দাম ও স্পেসিফিকেশন জেনে নিই।

Motorola Edge এবং Motorola Edge+ দাম :

কোম্পানির তরফে মোটোরোলা এজ এর দাম এখনও জানানো হয়নি। এদিকে মোটোরোলা এজ প্লাস এর দাম ৯৯৯ ডলার, যা প্রায় ৭৬,০০০ টাকার কাছাকাছি। এই দাম ফোনটির ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের। ফোনটি স্মোকি সাঙ্গারিয়া এবং থান্ডার গ্রে কালারে পাওয়া যাবে।

Motorola Edge এবং Motorola Edge+ স্পেসিফিকেশন :

মটোরোলা এজ ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে চলে। এই ফোনে ৬.৭ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস OLED কার্ভড ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এই ডিসপ্লের রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্জ। এছাড়াও এটি IP54 সার্টিফায়েড। এই ফোনে ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ দেওয়া হয়েছে। ফোনটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৬৫ প্রসেসরের সাথে এসেছে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ১ টিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

মোটোরোলা এজ ফোনটি ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরার সাথে এসেছে। যার প্রাইমারি ক্যামেরা এফ/১.৮ অ্যাপারচারের সাথে ৬৪ মেগাপিক্সেল। এছাড়াও আছে ১৬ মেগাপিক্সেল ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা। ফোনের তৃতীয় ক্যামেরাটি ৮ মেগাপিক্সেল টেলিফোটো সেন্সর। আবার এই ফোনে Time of Flight (ToF) সেন্সর ও দেওয়া হয়েছে। সেলফির জন্য এখানে পাওয়া যাবে এফ/২.০ অ্যাপারচারের সাথে ২৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সিকিউরিটির জন্য এখানে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেওয়া হয়েছে। ফোনটি ৪,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারির সাথে এসেছে। এতে টার্বো পাওয়ার চার্জিং সাপোর্ট আছে। এতে ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক ব্যবহার করা হয়েছে।

অন্যদিকে মোটোরোলা এজ প্লাস ফোনে ৬.৭ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস OLED ডিসপ্লে রয়েছে। এই ডিসপ্লের রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্জ। এই ডিসপ্লে তে HDR10+ সাপোর্ট করবে। এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে চলে। এই ফোনে কোয়ালকমের লেটেস্ট প্রসেসর ৮৬৫ চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে। এই ফোনে ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ দেওয়া হয়েছে। এতে ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক ব্যবহার করা হয়েছে।

ফটোগ্রাফির জন্য এতেও ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা রয়েছে। যার প্রধান ক্যামেরা এফ/১.৮ অ্যাপারচারের সাথে ১০৮ মেগাপিক্সেল। এছাড়াও এতে আছে এফ/২.২ অ্যাপারচারের সাথে ১৬ মেগাপিক্সেল ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা। ফোনের তৃতীয় ক্যামেরাটি ৮ মেগাপিক্সেল টেলিফোটো সেন্সর।আবার এই ফোনে Time of Flight (ToF) সেন্সর ও দেওয়া হয়েছে। ফোনের মেন ক্যামেরা 6K ভিডিও রেকর্ড করতে পারে। সেলফির জন্য এখানে পাওয়া যাবে এফ/২.০ অ্যাপারচারের সাথে ২৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সিকিউরিটির জন্য এখানে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেওয়া হয়েছে। ফোনটি ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সহ ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারির সাথে এসেছে।