বাতাসের মাধ্যমে ফোনকে চার্জ করতে Guru Wireless এর সাথে হাত মেলালো Motorola

motorola-partners-with-guru-wireless-for-over-the-air-technology-smartphone

এয়ার-টু-এয়ার চার্জিং সিস্টেম বা সহজ কথায় বললে বায়বীয় মাধ্যমে চার্জিংয়ের ব্যবস্থা, এই বছরের শুরুতে Motorola-র মালিক সংস্থা Lenovo এরকমই চার্জিং প্রযুক্তির প্রদর্শন করে গোটা স্মার্টফোন দুনিয়াকে চমকে দিয়েছিল। তার বিহীন এই এয়ার চার্জিং প্রযুক্তির পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছিল ‘Motorola One Hyper’। এটি কি নিছক কনসেপ্ট হিসেবেই থেকে যাবে, নাকি Lenovo সত্যিই এটি সর্বসাধারণের ব্যবহারের যোগ্য করে তুলবে, তা নিয়ে নানা মহলে চলছিল জল্পনা। তবে লেনোভো যে সত্যিই এই প্রযুক্তিটি সবার জন্য ব্যবহারিকভাবে উপলব্ধ করার পরিকল্পনা করছে, সেটি কোম্পানির সাম্প্রতিক পদক্ষেপেই স্পষ্ট হয়ে গেল। নেক্সট জেনারেশন ওয়্যারলেস চার্জিং টেকনোলজির উন্নয়ন দ্রুতগতিতে ঘটাতে এই প্রযুক্তিতে সিদ্ধহস্ত Guru Wirless-এর সঙ্গে Lenovo জোট বাঁধার কথা ঘোষণা করেছে।

এই অংশীদারিত্বের অংশ হিসেবে Guru Wirless-এর সঙ্গে হাত মিলিয়ে Motorola নিজের স্মার্টফোনে ওভার-দ্য-ইয়ার ওয়্যারলেস চার্জিংয়ের সাপোর্ট যোগ করার কাজ করবে। যারা Guru কোম্পানির নাম প্রথম শুনছেন তাদের অবগতির জন্য বলে রাখি, Guru “মিলিমিটার ওয়েভ ইন্টিগ্রেটেড সার্কিট, মডিউল এবং নিজেদের উদ্ভাবিত স্মার্ট RF লেন্সিং টেকনোলজি” ব্যবহার করে কাস্টমাইজেবল ওভার-দ্য-এয়ার পাওয়ার সিস্টেমে বিশেষজ্ঞ।

Motorola-র ডিভাইসগুলি ঘরের মধ্যে চার্জ হতে Guru-র RF লেন্সিং টেকনোলজি ব্যবহার করবে। এটি নির্ভুলতার সাথে লম্বা রেঞ্জে পাওয়ার ট্রান্সমিট করতে ক্ষুদ্রাকার পাওয়ার ট্রান্সফার ব্যবহার করবে। বর্তমানে ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট থাকা ডিভাইসগুলি ওয়্যারলেস চার্জিং প্যাডে বসালে তবেই চার্জ শুরু হয়, সেখানে এই প্রযুক্তি সত্যিই ওয়্যারলেস। ডিভাইস কোনো চার্জিং প্যাডের ওপর রাখার প্রয়োজন পড়বে না৷ আবার তারের সঙ্গে যুক্ত রাখারও দরকার হবে না।

মোটোরোলা ওয়ান হাইপার এয়ার চার্জিং টেকনোলজির প্রসঙ্গে আসলে, গত জানুয়ারিতে লেনোভো চায়নার মোবাইল ফোন বিজনেসের জেনারেল ম্যানেজার চেন জিন উইবোতে একটি ভিডিও পোস্ট করার মাধ্যমে দেখিয়েছিলেন, তাদের নতুন প্রযুক্তিটি কিভাবে এক মিটার দূরত্ব থেকে বায়বীয় মাধ্যমে স্মার্টফোনকে চার্জ করতে পারে।

প্রযুক্তিটি প্রদর্শন করার জন্য লেনোভো দুটি মোবাইল ফোন এবং কালো রঙের একটি ডিভাইস (ওয়্যারলেস চার্জিং স্টেশন) ব্যবহার করেছিল এবং চার্জার থেকে ফোনদুটিকে ৮০ সেমি এবং ১০০ সেমি দূরত্বে রাখা হয়েছিল। তারপরেই দেখা গিয়েছিল, চার্জারটির কোনোরকম সংস্পর্শে না এসেই হ্যান্ডসেটদুটি চার্জ হচ্ছে। আবার ভিডিওটির শেষে চার্জারের সামনে হাত রাখতেই চার্জিং প্রক্রিয়াটি থেমে গিয়েছিল।

ভিডিওর প্রদর্শন ব্যতীত দূরবর্তী চার্জিং প্রযুক্তিটি কীভাবে কাজ করে তা অবশ্য লেনোভো ব্যাখ্যা করেনি। তবে ভিডিও দেখে নিশ্চিতভাবে বলা যায়, Qi স্ট্যার্ন্ডার্ডের ওপর ভিত্তি করে প্রযুক্তিটি ডেভলপ করা হয়েছে এবং এর মাধ্যমে একইসাথে একাধিক ডিভাইস চার্জ করা যাবে। যদিও ডিভাইস কত তাড়াতাড়ি চার্জ হবে বা প্রত্যেকটি ফোনেরই চার্জিং স্পিড এক হবে কিনা এই বিষয়ে লেনোভো কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি।

এখন দু’সংস্থা জোট বাঁধার ফলে এই প্রযুক্তির অগ্রতির কাজ কতটা দ্রুত গতিতে চলবে, সেটাই এখন দেখার বিষয়। তবে প্রযুক্তিটি বাজারজাত করতে বা স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছাতে এখনও যে কয়েকমাস বাকি, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপে শুভ্রর প্রথম প্রযুক্তি বিষয়ক লেখায় হাতেখরি৷ স্নাতক স্তরের পড়াশোনার পাশাপাশি এখানেই চলতে থাকে শুভ্রর লেখালেখি৷ কলেজের অধ্যায় শেষ হওয়ার পর শুভ্র এখন টেকগাপের কনটেন্ট টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য৷