Whatsapp ছেড়ে Signal ব্যবহার করবেন ভাবছেন? এই টিপসগুলি আপনার কাজে লাগবে

moving-signal-from-whatsapp-these-tips-will-be-useful-to-you

সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ তাদের নীতিমালা এবং প্রাইভেসি শর্তাবলীতে বেশ কিছু পরিবর্তন এনেছে। যেগুলিতে সম্মতি প্রদান না করলে ৮ই ফেব্রুয়ারির পর হোয়াটসঅ্যাপে আর ব্যবহার করা যাবে না বলেও ইতিমধ্যে হুশিয়ারি দিয়ে রাখা হয়েছে। এই নব্য পরিবর্তনগুলি হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের মনে ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষাজনিত একাধিক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে এবং তাদের অনেকেরই কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। প্রাইভেসি পলিসি আপডেটের পশ্চাৎে হোয়াটসঅ্যাপ আসল উদ্দেশ্য বিশেষজ্ঞরা সামনে আনার পর, ইউজারদের একাংশ হোয়াটসঅ্যাপের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে অন্য ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ ব্যবহারের চিন্তাভাবনা করছেন। যার ফলে হোয়াটসঅ্যাপের বদলে অন্যান্য মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করার হিড়িক দেখা গিয়েছে। এক্ষেত্রে Signal এবং Telegram – মূলত এই দুটি প্রাইভেসি ফোকাসড মেসেজিং প্ল্যাটফর্মের নাম Whatsapp-এর বিকল্প হিসেবে উঠে এসেছে। সেন্সর টাওয়ার ডেটার তথ্য অনুযায়ী ভারতে Telegram-এর থেকেও Signal বেশী জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এমনকি খোদ ইলন মাস্কও Telegram ব্যবহারের পক্ষে সওয়াল করেছেন। এতএব, বদলে যাওয়া শর্তাবলীর কারণে যারা হোয়াটসঅ্যাপের মায়া ত্যাগ করে সিগন্যাল ইনস্টল করে ব্যবহার করতে চলেছেন তাদের জন্য নিম্নে কয়েকটি পরামর্শ রইলো।

১। সিগন্যাল অ্যাপ্লিকেশনটি বিল্ট-ইন অ্যাপ লক ফিচার সহ এসেছে, যা অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস ইউজারদের বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশন সাপোর্ট প্রদান করে। ব্যবহারকারী চাইলেই স্ক্রিন লক ফিচার সক্রিয় করে রাখতে পারেন। এর ফলে ইউজারের ব্যক্তিগত চ্যাট অনধিকারীর হস্তক্ষেপ থেকে সুরক্ষিত থাকবে।

সক্রিয় করতে- Head to Signal Settings > Privacy > Screen Lock

২। হোয়াটসঅ্যাপের টু ফ্যাক্টরি অথেন্টিকেশন ফিচারের মতো সিগন্যালে রয়েছে প্রিরেজিস্ট্রেশন পিন ফিচার। যদিও টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন ওটিপি’র মতো এটি বারবার পরিবর্তিত হয়না। সেক্ষেত্রে ম্যানুয়ালি পরিবর্তন না করা পর্যন্ত এটি একই থাকে। অ্যাপ রিইনস্টল, ব্যাকআপ বা ডেটা রিস্টোরের জন্য এই PIN অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সক্রিয় করতে -Head to Signal Settings > Privacy > Registration PIN

৩। সিগন্যাল ব্যবহারকারীদের জন্য স্টার্ড মেসেজের সুবিধা উপলব্ধ না থাকলেও এতে সর্বোচ্চ চারটি চ্যাট পিন আপ (PIN Up) করার বিকল্প রয়েছে। সিঙ্গল বা গ্রুপ চ্যাট – সবক্ষেত্রেই এই ফিচারটি ব্যবহারযোগ্য। তবে মেসেজ ডিলিট করলে PIN চ্যাটগুলিও ডিলিট হতে বাধ্য।

সক্রিয় করতে – Press and hold the chat > Tap on the PIN icon at the top ribbon menu

৪। বিরক্তিকর নোটিফিকেশনের থেকে মুক্তি পেতে সিগন্যাল ব্যবহারকারীরা ‘Contact Joined Signal’ অপশনটি নিষ্ক্রিয় করে রাখতে পারেন। এর ফলে কন্ট্যাক্ট লিস্টের পরিচিত কেউ সিগন্যাল জয়েন করলে ইউজার বারবার নোটিফিকেশন পাবেন না।

সক্রিয় করতে – Head to Settings > Notifications > Contact Joined Signal > Turn off

৫। সিগন্যালের আরেকটি সিকিউরিটি সংক্রান্ত ফিচার হলো ব্লার ফেস অপশন। যে কোন ছবি শেয়ার করার সময় এই ব্লার ফেস ফিচারটি ব্যবহার করা যাবে। এর জন্য যা করতে হবে –

সক্রিয় করতে – Open any chat window > Select any image > Tap on the blur icon

৬। আবার ইমেজ শেয়ার করার ক্ষেত্রে সিগন্যাল ব্যবহারকারীরা ওয়ান টাইম ভিউ লিমিট অপশন চয়ন করতে পারেন। এর ফলে গ্রহীতা ইমেজটি ভিউ করলেই তা প্রেরক ও প্রাপক দু’পক্ষের ডিভাইস থেকেই অদৃশ্য হয়ে যায়।

সক্রিয় করতে – Choose an image to send > Tap on the infinite icon > Select 1x

৭। এছাড়া তথ্য আদান-প্রদানের সময় অতিরিক্ত সুরক্ষার জন্য সিগন্যাল ব্যবহারকারীরা কন্ট্যাক্টের সিকিউরিটি নম্বর যাচাই করতে পারবেন।

সক্রিয় করতে – Open any chat window > Tap on contact’s name > View safety number

  • এবার নম্বরটিকে অন্য ইউজারের ডিভাইসের সাথে মিলিয়ে নিন অথবা QR code স্ক্যান করুন।

৮। সবশেষে জানিয়ে দিই, Signal ব্যবহারকারীরা ইনকগনিটো কিবোর্ড ফিচার সক্রিয় করে রাখতে পারেন যা কিবোর্ড অ্যাপগুলিকে তথ্য চুরিতে বাধা দেয়।