স্বাধীনতা দিবসের দিন মেগা ডিল? বিগ বাজার কে কিনতে চলেছে আম্বানির রিলায়েন্স

mukesh-ambani-ril-to-acquire-future-groups-big-bazaar-and-more-sectors

বর্তমানে ভারতের সবথেকে বড় ব্যবসায়িক গ্রুপ হয়ে উঠছে মুকেশ আম্বানির Reliance।‌ জিও থেকে শুরু করে আরো বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাটফর্মে রিলায়েন্স নিজের আধিপত্য বিস্তার করেছে।‌ এবং সব ধরনের প্ল্যাটফর্মেই রিলায়েন্স বেশ সফল। ইতিমধ্যেই অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে শপিং প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে খুচরো বিনিয়োগে যুক্ত হয়েছেন রিলায়েন্স জিও। জিওর ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম জিও মার্ট (JioMart) ইতিমধ্যেই হয়ে উঠেছে বেশ জনপ্রিয়।

মোবাইল কিনতে এখানে ক্লিক করুন

এবার, তাদের পোর্টফলিওতে নতুন সংযোজন করতে চলেছে মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স। এবার তারা অধিগ্রহণ করতে চলেছে ভারতের বিখ্যাত ফিউচার গ্রুপের Big Bazaar কে। বর্তমানে মার্কেটে এই নিয়ে গুঞ্জন চরমে। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই দুই গোষ্ঠীর মধ্যে চুক্তি নিয়ে কথাবার্তা শুরু হয়ে গিয়েছে। এই চুক্তি সম্পন্ন হলে, রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড অধিগ্রহণ করে নেবে ফিউচার গ্রুপের এই ব্যবসাকে। অর্থাৎ এরপরে রিলায়েন্স গ্রুপের অধীনে যুক্ত হবে বিগ বাজার।

অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হয়ে ইতিমধ্যেই অ্যামাজন এবং ফ্লিপকার্টকে টক্কর দিয়েছে রিলায়েন্সের জিও মার্ট। এই মুহূর্তে JioMart প্ল্যাটফর্মে আপনারা ৫০ হাজারেরও বেশি মুদি দ্রব্য কিনতে পারবেন। যেখানে আপনাকে অন্যান্য প্ল্যাটফর্মে কিনতে হলে ডেলিভারি চার্জ দিতে হতো, সেখানে জিও মার্ট প্ল্যাটফর্মে কোনরকম ডেলিভারি চার্জ এর প্রয়োজন পড়বে না। আপনাকে শুধু দিতে হবে সেই জিনিসটির আসল দাম। এছাড়াও আপনারা পেয়ে যাবেন ভারী ছাড়।

মোবাইল কিনতে এখানে ক্লিক করুন

অ্যামাজন এবং ফ্লিপকার্ট কে টক্কর দেওয়ার পরে, এবারে রিলায়েন্স জিও মনোনিবেশ করতে শুরু করেছে শপিং মল প্ল্যাটফর্মের দিকে। যদি রিলায়েন্স, ফিউচার গ্রুপের বিগ বাজারকে অধিগ্রহণ করে, তাহলে তারা খুচরো ব্যবসায় অনেকখানি এগিয়ে যাবে।

যদিও ওই চুক্তির ব্যাপারে কোন কোম্পানির তরফ থেকে কিছু জানানো হয়নি। তবে সূত্রের খবর অনুযায়ী, ফিউচার রিটেল লিমিটেড রিলায়েন্স গ্রুপকে নিজেদের ফিউচার রিটেল বাস্কেট বিক্রি করতে আগ্রহী। এরকমই জানা গিয়েছে, ফিউচার গ্রুপের কর্ণধার অশোক বিয়ানির কথায়। এই বাস্কেট এর মধ্যে থাকছে, এফবিবি, বিগ বাজার, ফুড হল এবং সেন্ট্রাল। এছাড়াও ফিউচার গ্রুপ রিলায়েন্সকে ফিউচার লাইফস্টাইল লিমিটেড এবং ফিউচার সাপ্লাই চেইন সলিউশন বিক্রি করতেও আগ্রহী।

অন্যদিকে, মুকেশ আম্বানির ইচ্ছা যাতে এই বছর ১৫ আগস্ট এর মধ্যে এই চুক্তি সম্পূর্ণরূপে পাকা হয়ে যায়। জানা গিয়েছে, এই চুক্তির শেষ পর্যায়ের কথা চলছে দুই বড় কোম্পানির মধ্যে। এই চুক্তি সম্পন্ন হয়ে গেলে, মনে করা হচ্ছে ফিউচার গ্রুপকে ঋণ সমস্যা থেকেও উদ্ধার করার দায়িত্ব নেবে মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স।

মোবাইল কিনতে এখানে ক্লিক করুন