করোনার টিকা নিতে হলে আধার কার্ডের সাথে লিঙ্ক থাকতে হবে ফোন নম্বর

must-link-phone-number-to-aadhaar-to-get-covid-19-vaccinations.jpg

গত ১৬ জানুয়ারি থেকে ভারতে শুরু হয়েছে টিকাকরণ বা ভ্যাকসিনেশন কর্মসূচি। যারপর দেশের প্রতিটি মানুষ, করোনা ভাইরাসকে রুখে আগের মত স্বাভাবিক জীবন কাটানোর স্বপ্ন দেখছেন। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে, কোভিড-১৯ টিকাকরণের জন্য একটি বিশেষ নিয়ম জারি করল ভারত সরকার। রিপোর্ট অনুযায়ী, সরকার, টিকাকরণের জন্য নাগরিকদের আধার কার্ডের সাথে তাদের ফোন নম্বর লিঙ্ক করার নির্দেশ দিয়েছে। অর্থাৎ, টিকা নিতে হলে সমস্ত নাগরিককে আধার অথেন্টিকেশন করাতেই হবে। সেক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের ডেটা নিরাপদে রাখা হবে বলে সরকারের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত ভারত সরকার সম্প্রতি কোভাক্সিন (Covaxin) এবং কোভিশিল্ড (Covishield) নামে দুটি ভ্যাকসিন চালু করেছে। এই মাসের শুরুতে ভ্যাকসিনেশনের প্রথম ধাপ শুরু হয়েছে যেখানে প্রথম সারির কর্মী এবং ৫০ বছরের বেশি বয়সীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও সরকার দ্বারা গত বছরের শেষের দিকে লঞ্চ করা কো-উইন (Co-WIN) অ্যাপের মাধ্যমে ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন চালু হয়েছে। এই প্ল্যাটফর্মটিতে ভ্যাকসিনেশনের সমস্ত রকম ডেটা রেকর্ড করা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে Co-WIN প্ল্যাটফর্মের এই ডেটাবেসটি পরিচালনার জন্যই নাগরিকদের আধার নম্বর প্রয়োজন বলে জানিয়েছে সরকার।

এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, Jio, Airtel এবং Vodafone-Idea জাতীয় টেলিকম সংস্থাগুলি বহুদিন ধরেই গ্রাহকদের টেলিভেরিফিকেশন করার জন্য তাদের আধার নম্বর ব্যবহার করে আসছে। ফলস্বরূপ, অনেকেই ইতিমধ্যে তাদের ফোন নম্বরের সাথে আধার লিঙ্ক করিয়েছেন। কিন্তু যারা এখনও পর্যন্ত এই বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন, আগামী দিনে তাদের এই সংযুক্তিকরণ করাতেই হবে।

তবে টিকাকরণের জন্য এভাবে আধার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হলে সাধারণ মানুষের তথ্য কতটা গোপন থাকবে সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। কারণ কো-উইন প্ল্যাটফর্মের তথ্য কোথায় সংরক্ষণ করা হচ্ছে এবং এর অ্যাক্সেস ঠিক কার কাছে রয়েছে তা এখনও পর্যন্ত স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। এছাড়া, টিকাকরণ প্রক্রিয়ার জন্য আধার ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা কতটা তাও অনেকের কাছে স্পষ্ট নয়! তদুপরি, আধার কার্ডের সাথে ফোন নম্বর সংযুক্ত করার বিষয়টি নিয়ে আগে থেকেই উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছেন একাংশ ভারতীয়।