হাইওয়েতে আরও জোরে চালানো যেতে পারে গাড়ি, নতুন বিল আনছে সরকার

বর্তমানে ভারতের ন্যাশনাল হাইওয়ে ও এক্সপ্রেসওয়েতে ছোট চার চাকার গাড়ির সর্বোচ্চ গতিবেগের মাপকাঠি যথাক্রমে ১০০ কিমি ও ১২০ কিমি প্রতি ঘন্টায়

national-highways-speed-limit-could-be-increased-to-140-kmph-nitin-gadkari

ভারতের রাস্তায় যানবাহনের গতিবেগ ঘন্টায় ২০ কিমি বাড়ানোর প্রস্তাব নিয়ে একটি বিল খুব শীঘ্রই পার্লামেন্টে পেশ করা হবে বলে জানালেন কেন্দ্রীয় সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী নীতিন গডকরি। এর আগেও বহুবার ভারতের রাস্তায় গাড়ির গতি বৃদ্ধির বিষয়ে মুখ খুলেছেন তিনি। গত কয়েক বছরে ভারতের ন্যাশনাল হাইওয়ে এবং এক্সপ্রেসওয়েগুলির আমূল পরিবর্তন হওয়া সত্ত্বেও এদেশে যানবাহনের সর্বাধিক গতিবেগ কম রয়ে গেছে বলেও তিনি সমালোচনা করেছিলেন। অতীতে এ বিষয়ে তিনি মন্তব্য করেছিলেন, “এটি খুবই দুর্ভাগ্যের বিষয় যখন গাড়িগুলিকে ৪০ কিমি প্রতি ঘন্টায় সর্বোচ্চ গতিবেগের বিধি ভাঙ্গার কারণে জরিমানা দিতে হয়।” রাস্তায় যানবাহনের গতিবেগ বৃদ্ধির বিষয়ে অতি তৎপর গডকরি এক প্রকার দৃঢ় চিত্তেই পার্লামেন্টে এই বিলটি আনার কথা জানালেন। যদিও বিলটি আনার আগে দেশের সুপ্রিমকোর্ট এবং হাইকোর্টের অনুমতি প্রয়োজন।

সম্প্রতি মাদ্রাজ হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ দেশের রাস্তায় যানবাহনের গতিবেগ বৃদ্ধির বিষয়ে জানিয়েছিল, “এদেশে গাড়ির ইঞ্জিনের প্রযুক্তি এবং রাস্তার পরিকাঠামো উন্নত হয়েছে ঠিকই কিন্তু রাস্তায় সুরক্ষা বিধি মেনে গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে কোনো উন্নতি হয়নি।” প্রসঙ্গত, বর্তমানে এদেশের ন্যাশনাল হাইওয়ে ও এক্সপ্রেসওয়েতে ছোট চার চাকার গাড়ির সর্বোচ্চ গতিবেগের মাপকাঠি যথাক্রমে ১০০ কিমি ও ১২০ কিমি প্রতি ঘন্টায়। যেখানে উপরিউক্ত দুটি হাইওয়েতে টু হুইলারের সর্বোচ্চ গতিবেগের মাপকাঠি ৮০ কিমি প্রতি ঘন্টায় এবং বড় গাড়ি যেমন বাস ও ট্রাকের ক্ষেত্রে সর্বাধিক গতিবেগের মাপকাঠি ১০০ কিমি প্রতি ঘন্টায়।

রাস্তায় যানবাহনের গতিবেগ বৃদ্ধির বিষয়ে অনড় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গডকরি বলেছেন, “ভারতে যানবাহনের গতির মাপকাঠি বেঁধে দেওয়া আমাদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। গাড়ির গতিবেগের বিষয়ে সুপ্রিমকোর্ট এবং হাইকোর্টের কিছু সিদ্ধান্ত রয়েছে, যেই কারণে আমরা কিছুই করতে পারছি না। বর্তমানে দেশের এক্সপ্রেসওয়েগুলির দুপাশে এমনভাবে ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে যাতে একটি কুকুরও রাস্তায় না আসতে পারে। তাই এই পরিস্থিতিতে আমরা পার্লামেন্টে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছি এবং সেখানেই এসব বিধির পরিবর্তন করব।”

এছাড়াও তিনি ভারতের এক্সপ্রেসওয়ে এবং হাইওয়েগুলিতে যানবাহনের সর্বোচ্চ গতিবেগের মাপকাঠি ১২০ কিমি প্রতি ঘন্টার পরিবর্তে ১৪০ কিমি প্রতি ঘন্টায় করা হবে বলেও জানিয়েছেন। একই সাথে ৪ লেন ন্যাশনাল হাইওয়ে, ২ লেন ন্যাশনাল হাইওয়ে এবং শহরের রাস্তার ক্ষেত্রে এই মাপকাঠি যথাক্রমে ১০০ কিমি, ৮০ কিমি এবং ৭৫ কিমি প্রতি ঘন্টায় করার কথাও গডকরি বলেছেন।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।