সাবধান, খোঁজ মিললো নতুন স্পাই সফটওয়্যারের, প্রতারিত বহু গুগল ক্রোম এক্সটেনশন ব্যবহারকারী

আবার একটি সাইবার হ্যাকিং এর ঘটনা আমাদের সামনে এসেছে, তবে এবারে হ্যাকারদের অস্ত্র একটি গুগল ক্রোম এক্সটেনশন। বিশেষজ্ঞরা নতুন একটি স্পাই সফটওয়্যার এর খোঁজ পেয়েছেন যার মাধ্যমে বহু ক্রোম ব্যবহারকারীকে জালিয়াতির শিকার করা হয়েছে। গুগলের এই ক্রোম এক্সটেনশন ইতিমধ্যেই ৩২ মিলিয়ান ডাউনলোড পেরিয়ে গিয়েছে। এবং এর মাধ্যমে টেকনোলজি ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন ব্রাউজার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই ব্রাউজার গুলিতে ব্যবহারকারীদের ইমেইল সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ইনফরমেশন ছিল।

গুগলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ইতিমধ্যেই তারা ক্রোম ব্রাউজার থেকে ৭০-রও বেশি এক্সটেনশন সরিয়ে দিয়েছে যার মধ্যে ভাইরাস থাকার সম্ভাবনা ছিল। গত সপ্তাহেই সাইবার বিশেষজ্ঞরা গুগলকে এই ধরনের এক্সটেনশন এর ব্যাপারে সতর্ক করেছেন। সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গুগলের মুখপাত্র স্কট ওয়েস্টওভার জানিয়েছেন,” যখনই বিশেষজ্ঞরা আমাদেরকে এমন এক্সটেনশনের ব্যাপারে জানিয়েছেন যেগুলি আমাদের সিকিউরিটি পলিসি লংঘন করছে, আমরা সেগুলোর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে। শুধু তাই নয় আমরা আমাদের অ্যানালাইসিসের মান বৃদ্ধি করার জন্য এই ধরনের ঘটনাগুলিকে উদাহরণস্বরূপ ব্যবহার করছি, যাতে ভবিষ্যতে এরকম কোন এক্সটেনশন এলে তাদের সঙ্গে সঙ্গে ক্রোম ব্রাউজার থেকে মুছে ফেলা যায়।”

বিনামূল্যে উপলব্ধ এক্সটেনশনগুলি সাধারণত ব্যবহারকারীকে সন্দেহজনক ওয়েবসাইটের ব্যপারে সচেতন করতে এবং ফাইলগুলিকে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যেতে সহায়তা করে। কিন্তু পরিবর্তে এই ধরনের এক্সটেনশনগুলি ব্যবহারকারীর ব্রাউজারে সঞ্চিত থাকা ব্রাউজিং হিস্ট্রি এবং ডেটা অন্য কাজে ব্যবহার করা শুরু করে।

স্পাই সফটওয়্যারের নিরিখে এটি হতে চলেছে সবথেকে বড় ক্রোম স্টোর ক্যাম্পেইন। এই বিষয়টি এখনো পরিষ্কার হয়নি যে এই স্পাই সফটওয়্যার কে বা কারা নিয়ে আসছে। তবে গুগল এই ধরনের সফটওয়্যার এর উপর কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করতে চলেছে। গুগলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে এই ধরনের সফট্ওয়ারের ডেভলপাররা ভুয়ো তথ্য তাদের ক্রোম এক্সটেনশনের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর কাছে নিয়ে যায় এবং তাদের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে।