স্যামসাং ও অ্যাপল কে পিছনে ফেলে ভারতের নম্বর ওয়ান প্রিমিয়াম স্মার্টফোন ব্র্যান্ড এখন OnePlus

oneplus-leads-premium-smartphone-segment-in-india-in-q2-2020

ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন নির্মাতা OnePlus-এর সুখের অন্ত নেই। মাত্র কয়েকদিন আগে সংস্থার নতুন মিড রেঞ্জ স্মার্টফোন OnePlus Nord লঞ্চ হয়েছে। বেশ সস্তায় আসার কারণে ইতিমধ্যেই বাজারে হইচই ফেলে দিয়েছে ফোনটি৷ আর আজ একটি রিপোর্টে জানা গেছে, প্রিমিয়াম স্মার্টফোন মার্কেটে এমুহুর্তে সবচেয়ে বড় কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে ওয়ানপ্লাস। কাউন্টারপয়েন্ট অ্যানালিসিসের এই রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রিমিয়াম সেগমেন্টে অন্য সমস্ত কোম্পানিকে পিছনে ফেলেছে OnePlus। চলতি বছরের এপ্রিলে লঞ্চ করা OnePlus 8 সিরিজের সাফল্যের কারণেই কোম্পানির Samsung ও Apple কে পিছনে ফেলেছে। দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকার কোম্পানি দুটি এই রিপোর্টে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে আছে।

কাউন্টারপয়েন্ট তাদের রিপোর্টে জানিয়েছে, এবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে ভারতীয় প্রিমিয়াম স্মার্টফোন বাজারে ওয়ানপ্লাসের ২৯.৩ শতাংশ শেয়ার ছিল। যার মধ্যে শুধু OnePlus 8 ডিভাইসটি থেকেই সংস্থাটি ১৯ শতাংশ বাজার দখল করেছে। পাশাপাশি OnePlus 8 Pro আল্ট্রা প্রিমিয়াম ডিভাইসটি বেস্টসেলিং ফোনগুলির মধ্যে তৃতীয় স্থানে আছে।

কী বিশেষত্ব OnePlus 8 ডিভাইসগুলির?

ভারতে ওয়ানপ্লাস ৮ এর দাম শুরু হয়েছে ৪১,৯৯৯ টাকা থেকে। এই দাম ফোনটির ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের। আবার ৮ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম পড়বে ৪৪,৯৯৯ টাকা। এদিকে ১২ জিবি র‌্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট কেনা যাবে ৪৯,৯৯৯ টাকায়। 

ওয়ানপ্লাস ৮ ফোনটি ৬.৫৫ ইঞ্চি ফ্লুইড AMOLED ডিসপ্লে সহ এসেছে। এর আসপেক্ট রেশিও ২০:৯ এবং এতে এইচডিআর ১০ প্লাস ও থ্রিডি কর্নিং গরিলা গ্লাস সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে। এই ডিসপ্লের রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্জ এবং এতে sRGB সাপোর্ট করবে।

ওয়ানপ্লাসের এই ফোনে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। সাথে দেওয়া হয়েছে এড্রেন ৬৫০ জিপিইউ। ওয়ানপ্লাস ৮ ফোনে রয়েছে ৪,৩০০ এমএএইচ ব্যাটারি। এই ফোনে Warp charge 30T ( ৩০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং) সাপোর্ট করবে। সিকিউরিটির জন্য এই ফোনে পাবেন ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ ভিত্তিক OxygenOS অপারেটিং সিস্টেমে চলবে। এতে ডলবি অ্যাটমোস এর সাথে ডুয়াল স্টেরিও স্পিকার দেওয়া হয়েছে।

ক্যামেরার কথা বললে ওয়ানপ্লাস ৮ ফোনের পিছনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা উপলব্ধ। যার প্রধান ক্যামেরা ৪৮ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স ৫৮৬ সেন্সর। যার অ্যাপারচার এফ / ১.৭৫ এবং ০.৮ মিমি পিক্সেল সাইজ। এই সেন্সর অপটিকাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশ (OIS) এবং ইলেকট্রনিক ইমেজ স্টেবিলাইজেশন (EIS) উভয় সাপোর্ট করে। পিছনের দ্বিতীয় ক্যামেরাটি ১৬ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স, যার অ্যাপারচার এফ / ২.২ এবং ১১৬ ডিগ্রী ফিল্ড অফ ভিউ। আবার তৃতীয় ক্যামেরাটি ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরা। এর অ্যাপারচার এফ/২.৪। এই সেটআপ পিডিএএফ এবং কনট্রাস্ট- বেসড অটোফোকাসকে সমর্থিত। এরসাথে ডুয়েল এলইডি ফ্ল্যাশ দেওয়া হয়েছে। আবার ফোনের সামনে এফ/২.৪৫ অ্যাপারচার, EIS সহ ১৬ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স ৪৭১ সেন্সর আছে।

এই বিষয়ে কাউন্টারপয়েন্ট রিসার্চের বিশ্লেষক, শিল্পী জৈন বলেছেন, ওয়ানপ্লাসের ৮ সিরিজে সংস্থাটি প্রিমিয়াম ফ্ল্যাগশিপ কোয়ালিটি দিতে কোনো কার্পণ্য করেনি। সিরিজের ফোনগুলির ডিজাইন, ব্যাটারি ব্যাকআপ বা অ্যান্ড্রয়েড ইউজার ইন্টারফেস এককথায় দুর্দান্ত। এই সিরিজের দাম বেশি হলেও সংস্থাটি মজবুত কমিউনিটি এবং ইউজারবেস পেয়েছে, যা সংস্থাটিকে সাফল্যের সিঁড়ির দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছে। এখন দেখার বিষয় এটাই, আগামী দিনগুলিতে OnePlus শীর্ষস্থান ধরে রাখতে পারে কিনা!