ভারতে স্মার্টফোন যোগান দিতে ব্যর্থ Oppo, রিয়েলমি, শাওমি! লাভবান হচ্ছে স্যামসাং

চীনের বিভিন্ন বিখ্যাত স্মার্টফোন কোম্পানি Oppo, Realme এবং OnePLus বাজারে স্মার্টফোনের চাহিদা পূরণ করতে বর্তমানে অক্ষম। এর কারণ মূলত গ্রেটার নয়ডায় থাকা অপ্পোর ফ্যাক্টরি বন্ধ হয়ে যাওয়া। এর ফলে অপ্পোর অনলাইন এবং অফলাইন দুটি প্ল্যাটফর্মেই সাপ্লাই প্রচন্ডভাবে কমে গিয়েছে। এছাড়াও ওয়ানপ্লাস এবং রিয়েলমির জন্যেও কন্ট্রাক্ট ম্যানুফ্যাকচার অপ্পো । ফলে এই দুটি কোম্পানির পক্ষেও বর্তমানে চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না। অপ্পোর একজন প্রবক্তা জানিয়েছেন যে, এখনো পর্যন্ত ফ্যাক্টরিতে কাজ শুরু হয়নি। কবে কাজ শুরু হবে সেই ব্যাপারেও উনি এখনো পর্যন্ত কিছু জানাতে চাননি।

একটি রিপোর্টে জানা গিয়েছে যে অপ্পো এবং রিয়েলমির ১৫,০০০-র কম দামের স্মার্টফোনগুলি একেবারেই উপলব্ধ নয়। অনলাইন এবং অফলাইন দুটি প্ল্যাটফর্মেই একই অবস্থা।

প্রিমিয়াম স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ওয়ানপ্লাস আগেই নিজের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন ওয়ান প্লাস ৮ এবং ওয়ানপ্লাস ৮ প্রো-র সেল শুরু করে দিয়েছিল। তবে Oppo-র ফ্যাক্টরিতে কর্মীদের করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ার কারণে কাজ বন্ধ করে দিতে হয়। রিয়েলমির একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন যে, বাজারে স্মার্টফোনের চাহিদা অত্যন্ত রূপে বেড়ে গিয়েছে। বর্তমানে সাপ্লাই চেইন একেবারেই কাজ করছে না। এর ফলে বাজারে চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

ভারতের সবথেকে বেশি বিক্রি হওয়া স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে রয়েছে Oppo, Realme এবং Xiaomi-র স্মার্টফোন। তবে তাদের স্টক বর্তমানে ভারতে না আসায় লাভবান হয়েছে স্যামসাং এবং ভিভো। তাদের কাছে সমস্ত স্টক মজুদ ছিল ফলে তাদের স্মার্টফোনের বিক্রি বেড়ে গিয়েছে।

একজন রিটেইলার জানিয়েছেন যে, ফোন কেনা মানুষের প্রয়োজন এর ফলে বাজারে এন্ট্রি-লেভেল এবং মিডরেঞ্জার স্মার্টফোনের চাহিদা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। কিন্তু ১৫,০০০ টাকার স্মার্টফোনগুলোর স্টক অত্যন্ত কম থাকার কারণে স্মার্টফোনের বিক্রির উপর চাপ পড়ছে। এই সমস্যা শুধুমাত্র অপ্পোর ক্ষেত্রে নয়, স্যামসাংয়ের মতো বড় ব্র্যান্ডও কিছুটা এই সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে। আগামী ভবিষ্যতে কবে আবার মোবাইল ফোনের স্টক পুরোপুরি আসবে সে ব্যাপারে এখনো কেউ কিছুই জানাতে পারেননি।