কনটেন্ট নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হলে জবাব দিতে হবে OTT প্ল্যাটফর্মকে : রবি শঙ্কর প্রসাদ

ott-platforms-should-be-held-responsible-for-content-says-ravi-shankar-prasad

অশ্লীল বা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে এরকম কনটেন্ট দেখানো OTT (ওভার দ্য টপ) প্ল্যাটফর্মের ক্ষেত্রে নতুন কোনো আশ্চর্যজনক বিষয় নয়। বহুবার এজন্য তারা বিভিন্ন অভিযোগ ও সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে। এই কারণে কখনও কখনও ভারত সরকারের সাথে সরাসরি এই সংস্থাগুলি সংঘাতেও জড়িয়ে পড়েছে। যেকারণে কিছুদিন আগে দেশে বহুল ব্যবহৃত সোশ্যাল মিডিয়া সাইট, OTT সহ সমস্ত ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলির জন্য নয়া নিয়ম চালু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

এই প্রসঙ্গে দেশের আইন ও ন্যায়বিচার, যোগাযোগ এবং বৈদ্যুতিন ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছেন যে, “ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মগুলিকে তাদের নিজস্ব শো এবং সিনেমাগুলির প্রতি যথেষ্ট দায়িত্বশীল হতে হবে এবং কোনোরকম বিতর্ক সৃষ্টি হলে প্রয়োজনে জবাবদিহিও করতে হবে।”

ইতিমধ্যেই ভারত ফেসবুক এবং টুইটারের মতো সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলির ওপর তার আধিপত্য আরও জোরদার করেছে এবং একইসাথে কিছু কঠোর নিষেধাজ্ঞাও জারি করেছে। ‘ইন্টারমিডিয়ারি গাইডলাইনস এন্ড ডিজিটাল মিডিয়া এথিকস কোড’ নামক নিয়মাবলির মাধ্যমে Netflix এবং Amazon Prime Video-এর মতো OTT প্ল্যাটফর্মগুলিকে তাদের নিজস্ব কনটেন্টগুলিকে দর্শকের বয়সভিত্তিক ক্যাটাগরিতে ভাগ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, পুলিশ গত মাসে Amazon Prime Video-এর একজন শীর্ষ আধিকারিককে ‘ধর্মীয় বিশ্বাসে আঘাত হেনেছে’ এমন কনটেন্ট দেখানোর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে। এর দরুন Amazon-ও ক্ষমা চাইতে বাধ্য হয়।

বৃহস্পতিবার ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ বলেন,” যদি কোম্পানিগুলির বিতর্কিত কনটেন্ট বানানোর অধিকার থাকে, তাহলে অন্যদের নালিশ করারও অধিকার আছে”।

ভারতের নতুন নিয়ম ভিডিও স্ট্রিমিং জায়েন্টসহ টেক কোম্পানিগুলিকে সংশ্লিষ্ট অভিযোগ নিষ্পত্তির পদ্ধতি নির্ধারণ, এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে সমন্বয়সাধনের জন্য নতুন আধিকারিক নিয়োগ করার কড়া নির্দেশ দিয়েছে। একটি ত্রিস্তরীয় অভিযোগ নিষ্পত্তি ব্যবস্থাও গঠন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যেটি কনটেন্ট প্ল্যাটফর্ম দ্বারা স্বনিয়ন্ত্রিতভাবে শুরু হয় এবং মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তার নেতৃত্বে সরকার নিযুক্ত প্যানেলে শেষ হয়।

প্রসাদ আরো বলেন, ” ভারত সহনশীল ছিল, আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। কিন্তু এই সহিষ্ণুতার সীমাকে অযথা অপব্যবহার করার অধিকার কোনো OTT প্ল্যাটফর্মের বা সংশ্লিষ্ট প্রযোজকের নেই।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন