ব্রেকিং: ফাঁস হয়ে গেল Paytm Mall ব্যবহারকারীদের সমস্ত ডেটা

Paytm Mall suffers massive data breach hackers demands for ransom report

বর্তমান সময়ে মানুষ ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেমের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। প্রায় প্রত্যেকেই PhonePay, GooglePay কিংবা Paytm-এর মতো প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করেন। তবে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারে মানুষের ঝুঁকিও বাড়ছে দিন কে দিন। এবার ইউজারদের তথ্য ফাঁস হওয়ার ঘটনায় নাম জড়ালো জনপ্রিয় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম Paytm Mall এর। যদিও সংস্থার কোনো ভুলে নয়, John Wick নামে একটি হ্যাকার গ্রুপ সংস্থার ডাটাবেস অ্যাক্সেস করে বিশাল পরিমাণ ইউজারের ডেটা হাতিয়ে নিয়েছে। এখন তারা দাবি করছে ইউজারদের তথ্যের বিনিময়ে, পেটিএম কর্তৃপক্ষকে তাদের র‌্যানসম অর্থাৎ ‘মুক্তিপণ’ দিতে হবে।

গ্লোবাল সাইবার ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি সাইবেল (Cyble) জানিয়েছে, জন উইক নামের ওই হ্যাকার গ্রুপ কোনোভাবে ব্যাকডোরের মাধ্যমে Paytm Mall এর পুরো প্রোডাকশন ডেটাবেসের অ্যাক্সেস পায়। ফলে, খুব সহজেই তারা ইউজারের অ্যাকাউন্ট এবং আরো অন্যান্য তথ্য সংগ্রহ করেছে। John Wick এই ঘটনার জন্য পুরোপুরি পেটিএম কে দায়ী করেছে। আসলে এই ধরণের গ্রুপগুলি মূলত সিস্টেমে বাগ ঠিক করার অজুহাতে নিজেদের কার্যসিদ্ধি করে। যাইহোক, ঠিক কতজন পেটিএম ইউজারের ডেটা ওই হ্যাকার গ্রুপের কবলে পড়েছে, তা এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি।

সাইবেল জানিয়েছে হ্যাকাররা ওই তথ্য ফিরিয়ে দিতে ১০টি ইথেরিয়াম দাবি করেছে, যার দাম ৪,০০০ মার্কিন ডলার (প্রায় ২,৯২,৫০০ টাকা)।হ্যাকারদের এই চাহিদা মেটানো পেটিএমের পক্ষে বেশ অনেকটাই চাপের বিষয়, ফলে হয়তো সংস্থাটি ইউজারদের ডেটা ফাঁস হওয়ার রাস্তাই বেছে নিতে পারে। যদিও পেটিএম, র‌্যানসম দিতে রাজি হয়েছে কীনা সেবিষয়ে কোনো আপডেট সাইবেলের কাছে নেই।

তবে Paytm Mall এর মুখপাত্র একটি সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেছেন, তাদের সমস্ত ইউজার এবং সংস্থার ডেটা সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং সুরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে। সংস্থাটি, হ্যাকিং এবং ডেটা ফাঁসের মত অভিযোগগুলির তদন্ত করেছে, যার কোনো নেতিবাচক ফলাফল পাওয়া যায়নি। পেটিএম তার ডেটা সুরক্ষা বজায় রাখার সমস্ত রকম চেষ্টা করে এবং এই কারণে প্রচুর পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করে।