জিও, এয়ারটেল, ভোডাফোনের বিরুদ্ধে মামলা করলো Paytm, ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের দাবি

টেলিকম কোম্পানি জিও, এয়ারটেল, ভোডাফোন এবং বিএসএনএলের বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করলো অনলাইন পেমেন্ট প্ল্যাটফর্ম Paytm। পেটিএম এর তরফে অভিযোগ করা হয়েছে, টেলিকম কোম্পানিগুলি এই ধরণের গ্রাহকদের নম্বর ব্লক করছে না, যারা মোবাইল থেকে গ্রাহকদের কল, মেসেজ বা ইমেল পাঠিয়ে প্রতারণা করছে। Paytm দাবি করেছে যে তাদের লক্ষ লক্ষ গ্রাহক জালিয়াতির শিকার হচ্ছে। জালিয়াতরা জালিয়াতি করার সময় কোনো না কোনো মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করছে।

তবে টেলিকম কোম্পানিগুলি প্রতারণাকারীদের নাম প্রকাশ করছেনা বা তাদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না। এ কারণে পেটিএম সংস্থার আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে। একই সাথে তাদের বিশ্বাসযোগ্যতা হ্রাস পাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে Paytm এই টেলিকম কোম্পানিগুলির থেকে ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে। আপনাকে জানিয়ে রাখি ফিশিং একটি সাইবার অপরাধ, যেখানে কারোর সাথে ইমেল বা ফোন কলের মাধ্যমে যোগাযোগ করা হয়। আবার কোনো সংস্থার প্রতিনিধি হয়ে কাউকে ফোন করে তার ব্যাংকিং এবং ক্রেডিট কার্ড সম্পর্কিত সংবেদনশীল তথ্য চুরি করে নেয় জালিয়াতরা।

পেটিএম তাদের অভিযোগপত্রে লিখেছে যে, এয়ারটেল, রিলায়েন্স জিও, বিএসএনএল, এমটিএনএল এবং ভোডাফোন টেলিকম কমার্শিয়াল কমিউনিকেশন কাস্টমার প্রেফারেন্স রেগুলেশন (টিসিসিআরসিআরপি) ২০১৮ এর নিয়ম লঙ্ঘন করছে। এর আওতায় টেলিকম সংস্থাগুলি জালিয়াতিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সম্পূর্ণ স্বাধীন। অভিযোগপত্রে টেলিকম সংস্থাগুলির ব্যর্থতা এবং যথাযথ গ্রাহক যাচাইয়ের সমস্যাটি তুলে ধরা হয়েছে।

Paytm কোর্টের কাছে আবেদন করেছে, যাতে টেলিকম কোম্পানিগুলি জালিয়াতি করা নম্বরগুলিকে ব্লক করে এবং অবৈধ লেনদেন বন্ধ করে। সাথে টিআরসিপিআর এর নিয়মটি ট্রাইয়ের পক্ষে কঠোরভাবে প্রয়োগ করা উচিত বলে তারা জানিয়েছে, যাতে অনলাইন জালিয়াতিকারীদেররোখা যায়। এছাড়াও আদালতকে নির্দেশ দিতে আবেদন করেছে যে সিম বিক্রির সময় সঠিকভাবে ভেরিফিকেশন করার জন্য।