Paytm Spoof: পেটিএম ব্যবহারকারীরা সাবধান! ভুলেও এই অ্যাপ ডাউনলোড করলে জেলে যেতে হতে পারে

সাধারণ মানুষকে ঠকাতে পেটিএমের ছদ্মবেশে 'স্পুফ পেটিএম' (Spoof Paytm) নামক একটি ডুপ্লিকেট অ্যাপ মার্কেটে নিয়ে এসেছে হ্যাকাররা

paytm-spoof-duplicate-app-is-fake-delete-it-right-away-may-send-you-to-jail

বছর পাঁচেক আগে নোটবন্দির পর থেকেই ভারতে অনলাইন পেমেন্টের প্রচলন বেশ উল্লেখযোগ্য রকমভাবে বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। আর সাম্প্রতিককালে করোনা পরিস্থিতির সুবাদে এর গ্রাফ হয়েছে আকাশচুম্বী। ফলস্বরুপ অনলাইন পেমেন্ট প্ল্যাটফর্মগুলির জনপ্রিয়তাও বিপুল পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। আমরা জানি অনলাইন টাকাপয়সা লেনদেনের জন্য ভারতীয় বাজারে একটি অন্যতম জনপ্রিয় পেমেন্ট অ্যাপ হল পেটিএম (Paytm)। এই অ্যাপ ব্যবহার করে ইউপিআই পদ্ধতিতে সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা লেনদেন করা সম্ভব। পাশাপাশি এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে কেনাকাটা, ফোন রিচার্জ, বিল পেমেন্ট ইত্যাদি করলে অনেক সময় ক্যাশব্যাকও পাওয়া যায়।

তাই সহজেই পেমেন্ট প্রক্রিয়া সারতে এই অ্যাপটির হাত ধরেছেন বহুসংখ্যক ইউজার, আর গোটা দেশে এই অ্যাপটির জনপ্রিয়তার সুযোগ নিয়ে এবার প্রতারণার জাল বুনতে শুরু করেছে হ্যাকাররা। সম্প্রতি লক্ষ্য করা গেছে যে, সাধারণ মানুষকে ঠকাতে পেটিএমের ছদ্মবেশে ‘স্পুফ পেটিএম’ (Spoof Paytm) নামক একটি ডুপ্লিকেট অ্যাপ মার্কেটে নিয়ে এসেছে হ্যাকাররা। আর ফলস্বরূপ অনলাইন পেমেন্ট জালিয়াতির ঘটনা যে আরও বিপুল পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে, সেকথা আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। এই প্রতিবেদনে আমরা Spoof Paytm আসলে কী সে সম্পর্কে আপনাদেরকে জানাবো।

স্পুফ পেটিএম কী (What is Spoof Paytm)

এই অ্যাপ ব্যবহার করে কোনো টাকা না পাঠিয়েই পেমেন্ট করার প্রক্রিয়া শিখে নেওয়া যায়। তবে শুধুমাত্র শিক্ষামূলক কাজে অথবা মজার ছলে এই অ্যাপ ব্যবহার করলে কোনো সমস্যা নেই, কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে মানুষকে ঠকানোর কাজে এই অ্যাপ ব্যবহার করছেন অনেকেই, আর সেখান থেকেই ঘটছে সমস্যার সূত্রপাত। ইতিমধ্যেই বিপুল সংখ্যক মানুষ এই কেলেঙ্কারির শিকার হয়েছেন। আর সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয়টি হল, এই অ্যাপটিকে দেখতে হুবহু আসল পেটিএম অ্যাপের মতো। শুধু তাই নয়, আসল পেটিএম অ্যাপের মাধ্যমে পেমেন্ট করলে যেরকম রশিদ পাওয়া যায়, এই অ্যাপ থেকেও ঠিক একইরকম পেমেন্ট রিসিপ্ট পাচ্ছেন ইউজাররা। ফলে তাদের মনে সন্দেহের কোনো উদ্রেকই হচ্ছে না। কিন্তু আদতে এই দুটি অ্যাপ সম্পূর্ণভাবে একে অপরের থেকে আলাদা।

ইউজাররা কীভাবে স্পুফ পেটিএম ডাউনলোড করে?

যেহেতু এটি আসল অ্যাপ নয়, তাই অফিশিয়ালি এটি ডাউনলোড করা সম্ভব নয়। অর্থাৎ গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপ স্টোরে এই অ্যাপটিকে পাওয়া যাবে না। এবার আপনার মনে নিশ্চয়ই প্রশ্ন আসছে যে তাহলে কীভাবে এই অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে? আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি, স্পুফ পেটিএম একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। গুগল প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপ ডাউনলোড করা না গেলেও গুগল সার্চের মাধ্যমে এপিকে ফাইল ডাউনলোড করে সহজেই নিজের ফোনে ইউজাররা এই অ্যাপ ইনস্টল করতে পারবেন। তবে আইফোন ব্যবহারকারীরা তাদের আইফোনে এই অ্যাপ ডাউনলোড বা ব্যবহার করতে পারবেন না।

এই অ্যাপটি ব্যবহার করলে আপনি জেলেও যেতে পারেন

যেহেতু এটি কোনো অফিসিয়াল অ্যাপ নয়, তাই এই অ্যাপ ব্যবহার করে কোনোরকম অসৎ কার্য করলে আপনাকে জেলের হাওয়া খেতে হতে পারে। এই অ্যাপ ব্যবহার করে কোনো ব্যক্তিকে প্রতারণা করলে আপনার বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার মামলা রুজু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই খবরদার নিজের ফোনে এই অ্যাপ ইনস্টল বা ব্যবহার করবেন না।

কেন নিজের ফোনে স্পুফ পেটিএম ইনস্টল ও ডাউনলোড করা বিপজ্জনক?

মজার ছলে এই অ্যাপটি বানানো হলেও, এটি ব্যবহার বা ডাউনলোড করলে আপনি কিন্তু বড়োসড়ো বিপদের সম্মুখীন হতে পারেন। তার কারণ হল, এটি কোনো অফিশিয়াল অ্যাপ নয়, সম্পূর্ণভাবে একটি জাল অ্যাপ। তাই এই অ্যাপটি ডাউনলোড করলে আপনার ফোনে কিছু ক্ষতিকর ভাইরাস এবং ম্যালওয়্যারের আগমন ঘটতে পারে, পাশাপাশি আপনার ফোনের যাবতীয় ব্যক্তিগত ডিটেলস ও ডেটার অ্যাক্সেস হ্যাকারদের হাতে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। তাই যে কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার আগে সেটির সম্পর্কে বিশদে জেনে নিয়ে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করে তবেই ডাউনলোড করুন। সবসময় মনে রাখবেন, নিজে সম্পূর্ণভাবে সতর্ক থাকাই হল যে কোনো রকমের সাইবার জালিয়াতির হাত থেকে নিরাপদ এবং সুরক্ষিত থাকার এক এবং একমাত্র উপায়।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।