Airbag: বাইক ও স্কুটারে জুড়বে এয়ারব্যাগ, দুর্ঘটনা থেকে প্রাণ রক্ষার্থে জোট বাঁধল Piaggio

দু'চাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে জোর দিতে Autoliv বলে একটি সংস্থার সাথে হাত মিলিয়েছে Piaggio

piaggio-autoliv-partners-to-develop-an-airbag-for-scooters-and-motorcycles

সহজ ব্যবহার ও রক্ষণাবেক্ষণের সুবিধার জন্য বিশ্বজুড়ে বাড়ছে দু’চাকা গাড়ির বিক্রি। উপরন্তু, করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কায় অনেকেই ট্রেন-বাস-অটোর মতো গণপরিবহন ব্যবস্থার উপর নির্ভর না থেকে ব্যক্তিগত গাড়িতে যাতায়াত বুদ্ধিমানের কাজ বলে মনে করছেন। এর ফলে জনপ্রিয়তা উর্দ্ধমুখী মোটরসাইকেল ও স্কুটারের। কিন্তু, সুরক্ষার প্রসঙ্গ এলেই দু’চাকা বরাবরই প্রশ্নচিহ্নের মুখে পড়েছে। পথ দুর্ঘটনায় বাইক ও স্কুটার আরোহী বা চালকের গুরুতর আঘাত বা মৃত্যুর ঘটনা বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। এর ফলে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা যায় কিনা, তা খতিয়ে দেখতে শুরু করেছে নামজাদা টু-হুইলার প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি। তাদের মধ্যে অন্যতম ইতালির পিয়াজিও গ্রুপ (Piaggio Group)।

দু’চাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে জোর দিতে অটোলিভ (Autoliv) বলে একটি সংস্থার সাথে হাত মিলিয়েছে তারা। পিয়াজিওর লক্ষ্য, চারচাকা গাড়ির মতো মোটরসাইকেল ও স্কুটারের জন্য এয়ারব্যাগ (airbag) বিকাশ করা। পিয়াজিও এবং অটোলিভ টু-হুইলার সওয়ারিদের অতিরিক্ত সুরক্ষাকবচ দেওয়ার জন্য ওই বিশেষ ধরনের বেলুন বা এয়ারব্যাগ যৌথ ভাবে বিকাশের একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

গাড়ি বড় আঘাত পেলেই খুলে যায় তার ভিতরে থাকা এয়ারব্যাগ। গাড়ির ক্ষতি এড়ানো না গেলেও রক্ষা পান চালক এবং যাত্রীরা। প্রযুক্তিগত দিক থেকে মোটরসাইকেল বা স্কুটারের ক্ষেত্রেও প্রায় একরকম কাজ করবে এয়ারব্যাগ। গাড়ির ফ্রেমের উপরে লাগানো থাকবে ওই বিশেষ ধরনের বেলুন। সজোরে ধাক্কা খেলে শারীরিক ক্ষতি এড়াতে তৎক্ষণাৎ (মিলিসেকেন্ডে) তা খুলে যাবে।

টু-হুইলারে কীভাবে এয়ারব্যাগ কার্যকর করা যায়, অটোলিভ অত্যাধুনিক সিমুলেশন টুলস ব্যবহার করে তার একটি প্রাথমিক কনপেস্টও প্রস্তুত করে ফেলেছে। পরিচালনা করা হয়েছে ‘ক্র্যাশ টেস্ট’, দুর্ঘটনার সময় এয়ারব্যাগ সময়মতো খুলে চালক বা যাত্রীদের কতটা সুরক্ষিত রাখবে, তার পরীক্ষা। অটোলিভের সিইও বলেছেন, এই ধরনের প্রযুক্তির সাহায্যে আমাদের লক্ষ্য ২০৩০-এর মধ্যে প্রতি বছর পথ দুর্ঘটনা থেকে অন্তত ১ লাখ জীবন বাঁচানো।

উল্লেখ্য, বর্তমানে স্কুটার এবং মোটরসাইকেলে অ্যান্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম (এবিএস), ট্র্যাকশন কন্ট্রোল, স্টেবিলিটি কন্ট্রোল-সহ বিভিন্ন উন্নত সুরক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে। সেই তালিকায় এয়ারব্যাগের সংযোজন নিঃসন্দেহে চালক ও যাত্রীদের অতিরিক্ত সুরক্ষাকবচ দেবে।

টেকগাপে শুভ্রর প্রথম প্রযুক্তি বিষয়ক লেখায় হাতেখরি৷ স্নাতক স্তরের পড়াশোনার পাশাপাশি এখানেই চলতে থাকে শুভ্রর লেখালেখি৷ কলেজের অধ্যায় শেষ হওয়ার পর শুভ্র এখন টেকগাপের কনটেন্ট টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য৷