Royal Enfield Thunderbird 500-এর পুরানো মডেল কেনার কথা ভাবছেন? জেনে নিন এর সুবিধা ও অসুবিধা

Royal Enfield Thunderbird 500 কেনার আগে এর সুবিধা ও অসুবিধাগুলি একবার জেনে নিন

planning-to-buy-old-royal-enfield-thunderbird-500-benefits-pros-cons

Royal Enfield 650 Twins ভারতে লঞ্চের আগে দীর্ঘদিন Royal Enfield Thunderbird 500-ই ছিল সংস্থার ফ্ল্যাগশিপ বাইক। মিডিল-ওয়েটের সাথে কিছু ক্রুজিং ফিচারের জন্য এটি অতি জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। মিড-রেঞ্জ ক্রুজার রাইডিং এবং এর গুরুগম্ভীর আওয়াজের কারণে বাইক প্রেমীদের কাছে ৫০০ সিসি-র এই মোটরসাইকেলটি একটি আবেগের জায়গা। সমগোত্রীয় স্ট্রীট-নেকেড টু হুইলারের তুলনায় এটি অধিক আরামদায়ক। তবে দুঃখের বিষয় এর বিক্রি বর্তমানে বন্ধ করে দিয়েছে Royal Enfield। যদিও বিকল্প পথ হিসেবে আপনি Royal Enfield Thunderbird 500-এর একটি পুরানো মডেল কিনতেই পারেন। কিন্তু কেনার আগে এর সুবিধা ও অসুবিধাগুলি একবার জেনে নিন।

পুরানো Royal Enfield Thunderbird 500 কেনার সুবিধা

১) Royal Enfield Thunderbird 500 বাইকের সুবিধা হল এটি বেশি ডিসপ্লেসমেন্টের ইঞ্জিন এবং ইলেকট্রনিক ফুয়েল ইঞ্জেকশন প্রযুক্তির সাথে এসেছিল।

২) ৫০০ সিসি রেঞ্জের বাইকগুলির মধ্যে স্বাচ্ছন্দ্যের দিক থেকে এটি অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। এছাড়া এর বয়স প্রায় এক দশক হলেও অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এলইডি টেললাইট এবং একটি প্রোজেক্টর লেন্স হেডল্যাম্প উপস্থিত।

৩) এর আপডেটেড মডেল Thunderbird 500X, যা আগের চাইতে আরো বেশি অত্যাধুনিক ফিচার ও চমকদার কালারের সাথে এসেছে। তবে কোনটির ডিজাইন বেশি আকর্ষণীয় তা ব্যক্তি বিশেষে নির্ভরশীল। ঐতিহ্যগত চেহারা নাকি এক্স ফ্যাক্টর মডেল, কোনটি কিনবেন তা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে আপনার ওপর।

৪) Thunderbird 500 গৌরবের সাথে দীর্ঘদিন নিজের জায়গাটি ধরে রেখেছে। তাই এর পুরানো মডেলটির দাম পড়তে পারে ১-১.৩০ লাখ টাকা। তবে বাইকের বর্তমান অবস্থা অনুযায়ী দামাদামি করাই যেতে পারে।

৫) এন্ট্রি-লেভেল Bullet 350-এর তুলনায় এটি কম দামে মিলতে পারে। এর সাম্প্রতিক মডেলটিতে এবিএস ব্রেকিং সিস্টেমটি রয়েছে। তাই সেই মডেলটি কেনাই হবে অধিক যুক্তিযুক্ত।

পুরানো Royal Enfield Thunderbird 500 কেনার অসুবিধা

১) যেহেতু থান্ডারবার্ড ৫০০-র ইঞ্জিনটি বেশি ডিসপ্লেসমেন্টের তাই এর মাইলেজ অনেকটাই কম। তবে এতে রয়েছে ২০ লিটারের বৃহৎ তেলের ট্যাঙ্ক।

২) থান্ডারবার্ড ৫০০-র ছোটখাটো বিষয়ে কিছু সমস্যা রয়েছে যেমন এর সেন্সরটিতে মাঝে মধ্যেই গোলযোগ দেখা দেয়।

৩) ক্রুজার মোটরসাইকেলটির যন্ত্রাংশের দামও অনেকটাই বেশি। যেমন, এতে নতুন ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার লাগাতে গেলে দাম পড়বে ৭,০০০ টাকা। তাই কেনার আগে সবটা জেনে তবেই কিনবেন।

৪) ১৯৯ কেজি কার্ব-ওয়েটের জন্য এটিকে সামলানো মুখের কথা নয়। তাই সেটি যদি আপনার সমস্যার কারণ না হয়ে থাকে তবে বাইকটি কেনা যেতে পারে।

৫) Royal Enfield Thunderbird 500-এর একটু বেশি পুরানো মডেলগুলির রক্ষণাবেক্ষণের খরচ অনেকটাই বেশি। যদি আগের চালক সঠিকভাবে যত্ন না নিয়ে থাকেন তবে রাস্টিং, ইঞ্জিনের মিসফায়ারিং, ট্যাপেট নয়েস, ভাইব্রেশন – এইসব সাধারণ সমস্যাগুলির মুখোমুখি হওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকুন। সেই কারণে পুরানো মডেলটি কেনার আগেভাগে একজন ভালো মেকানিকের খোঁজ নিয়ে রাখাই বুদ্ধিমাত্তার কাজ হবে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।