চিন্তা বাড়িয়ে ফের দাম কমলো Bitcoin, Dogecoin সহ প্রায় সমস্ত ক্রিপ্টোকারেন্সির

ক্রিপ্টো বাজারের ছন্নছাড়া অবস্থায় লাভের ট্রেন্ড ধরে রাখলো Tether

price-bitcoin-ethereum-dogecoin-shiba-inu-cryptocurrency-price-today

Cryptocurrency Price Today: বিশ্বের দুই প্রথম সারির ক্রিপ্টো মুদ্রা, বিটকয়েন (Bitcoin), ইথার (Ether) এযাবত সবচেয়ে কম সাপ্তাহিক বাজারমূল্যের রেকর্ড গড়ল। পাশাপাশি, অন্যান্য অনেক ক্রিপ্টোমুদ্রাই আকস্মিক মূল্য পতনে ধরাশায়ী। ক্রিপ্টো বাজারের এই ছন্নছাড়া অবস্থায় লাভের ট্রেন্ড ধরে রাখলো টেথার (Tether)।

বিশ্বের প্রাচীনতম মুদ্রা, বিটকয়েনের বাজারমূল্যে বেশ কয়েকদিন ধরেই লাগাতার ছন্দপতন নজরে পড়ছে, যা সেপ্টেম্বরের শুরুতে চীনের সমস্ত ক্রিপ্টো ট্রেডিং ও মাইনিং এর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার সময় থেকে শুরু করে বর্তমান সময় পর্যন্ত ঘটে চলা মূল্য হ্রাসগুলির মধ্যে অন্যতম বড় অঙ্কের। সেই ধারা অব্যাহত রেখেই বুধবার ৫.৪২% মূল্য হ্রাস ঘটিয়ে ৬০,০০০ ডলারের নীচে নেমে গেলো বিটকয়েনের মূল্য। এহেন ঘটনার নজির, অক্টোবরের শেষ থেকে হিসেব করলে ক্রিপ্টোবাজারে সর্বপ্রথম। ভারতীয় ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ CoinSwitch Kuber-এর হিসেব অনুযায়ী, বিটকয়েনের বর্তমান ট্রেডমূল্য ৬৫,৮৮৫ ডলার (প্রায় ৪৯ লাখ টাকা)। অন্যদিকে বিনান্স (Binance), Coinmarket Cap-এর মতো আন্তর্জাতিক ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ গুলির হিসেবে এটি বর্তমানে বিশ্ববাজারে ৫৯,৩২১ ডলারে (প্রায় ৪৪.২ লাখ টাকা) ট্রেড করছে, যা বিগত কয়েক সপ্তাহের নিরিখে নিন্মতম।

নিন্মমুখী বাজারদরের সাম্প্রতিক ট্রেন্ডে বিটকয়েন একাই নয়, ইথার সহ বেশীরভাগ অল্টকয়েনই যোগ দিয়েছে। বুধবার ৬% হ্রাস পেয়ে ৪,৬১৭ ডলারে (প্রায় ৩. ৪৩ লাখ টাকা) নেমে গেছে ইথারের বাজার মূল্য। অথচ বিগত বেশকিছু সপ্তাহ ধরে ইথারের ঊর্ধ্বমুখী বাজারদর যথেষ্ট আশার আলো দেখাচ্ছিল বিনিয়োগ মহলে। আন্তর্জাতিক ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ Coinmarket Cap-এর তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে বিশ্বাবাজারে ইথারের দর আরও কম, টোকেন প্রতি ৪,২০৯ ডলার (প্রায় ৩.১ লাখ টাকা)। বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্রিপ্টোমুদ্রার বাজার মূল্যে এধরনের ছন্দপতন আলাদা উল্লেখের দাবি রাখে।

রিপল (Ripple), পলকাডট (Polka-dot), কার্ডানোর (Kardano) মতো অল্টকয়েনগুলির বাজার মূল্যেও যথেষ্ট পতন দেখা গিয়েছে। পাশাপাশি,ডোজকয়েন (Dogecoin), শিবা ইনু (Shiba Inu)-র মতো মিমকয়েনগুলিও যথাক্রমে ৭% ও ৯% মূল্য হ্রাস ঘটিয়ে ট্রেডমূল্যের নিন্মমুখী ট্রেন্ডে সামিল হয়েছে। ক্রিপ্টো গ্লোবাল মার্কেটের বাজারি মূলধন সর্বমোট ২.৩ % হ্রাস পেয়েছে।

জনপ্রিয় অল্টকয়েনগুলির মধ্যে একমাত্র টেথারই ২.৪৯% মূল্যবৃদ্ধি ঘটিয়ে লাভের খাতা খুলেছে। এছাড়াও অগুর (Augur), IOTA, আন্ডারডগের (Underdog) মতো কিছু গুটিকয়েক মুদ্রা সামান্য মূল্যবৃদ্ধি ঘটিয়েছে।

AI-নির্ভর ক্রিপ্টো বিনিয়োগ মাধ্যম Mudrex-এর প্রতিষ্ঠাতা ও কর্ণধার, ইদুল প্যাটেল (Idul Patel) জানান, গত ২৪ ঘণ্টা ক্রিপ্টোমার্কেটের বাজারদরে চরম অস্থিরতা দেখা গিয়েছে এবং আগামী ২৪ ঘন্টাও মুদ্রার হ্রাসবৃদ্ধির নিরিখে একইভাবে গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।

বিটকয়েনের মূল্যে হঠাৎ এই ছন্দপতনের তাৎক্ষণিক কারণ সম্পর্কে কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না। যদিও বিনিয়োগক্ষেত্রে অংশীদারদের একাংশ এর পিছনে, মে মাসে মুদ্রাটির বাজারমূল্য ৩০,০০০ ডলারে নেমে যাওয়ার সময় থেকেই বিটকয়েনের অত্যধিক লাভ প্রদানের (১০০% এরও বেশী) প্রবণতাকে দায়ী করেছেন। কেউ কেউ আবার চীনে ক্রিপ্টো মাইনিং নিষিদ্ধ ঘোষণা হওয়ার ঘটনাটিকেও দায়ী করেছেন,যদিও এটি অনেক পূর্বের ঘটনা।

ইতিমধ্যে, ক্রিপ্টো ও মেটাভার্স (Metaverse) সম্পর্কিত দুনিয়ায় আর এক যুগান্তকারী ঘটনা ঘটতে চলেছে। ক্ষুদ্র ক্যারিবিয়ান দ্বীপরাষ্ট্র, বারবাডোজ (Barbados) শীঘ্রই সর্বপ্রথম দেশ হিসেবে একটি ডিজিটাল দূতাবাস তৈরি করে তাদের কুটনৈতিক ক্ষেত্র বৃদ্ধি করতে চলেছে।মেটাভার্স প্ল্যার্টফর্ম, Decentraland -এর সঙ্গে চুক্তির মাধ্যমে দেশটি এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে বলেই খবর পাওয়া যাচ্ছে।

অন্যদিকে, Coinbase-এর সহ প্রতিষ্ঠাতা ফ্রেড এরসাম (Fred Ehrsam) ও সিকুইয়া (sequoia) ক্যাপিটালের প্রাক্তন অংশীদার ম্যাত হুয়াং (Matt Huang), ‘Paradigm one’ নামের ‘Next generation of crypto companies and protocols’ এর দিকে লক্ষ রেখে একটি ভেনচার ক্যাপিটাল তহবিলের জন্য ২.৫ বিলিয়ন ডলার (প্রায় ১৮,৫৯৮ কোটি টাকা) তুলেছেন। সম্ভবত এটিই এযাবৎ ক্রিপ্টো বাজারের সবচেয়ে বড় ক্রিপ্টো ভেনচার ক্যাপিটাল হতে চলেছে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।