দিনরাত পাবজি খেলার মাসুল, অকালে প্রাণ গেল ১৬ বছরের কিশোরের

pubg-addiction-16-years-old-boy-dies-after-playing-game-continuously-for-days-in-andhra-pradesh

PUBG বা Call Of Duty-এর মত অনলাইন গেমে মজে আছে তরুণ প্রজন্মের একাংশ। বলা ভালো এই গেমগুলিতে আসক্ত হয়ে পড়ছে বেশির ভাগ প্লেয়াররা। এই কারণেই মাঝে মাঝে PUBG Mobile গেমটি সম্পর্কে বিভিন্ন নেতিবাচক খবর সামনে আসে। সম্প্রতি এই গেমটির কারণে আবার একটি দুর্ঘটনা ঘটেছে, যার জেরে অকালে ঝরে গেছে একটি ১৬ বছরের প্রাণ।

অন্ধ্র প্রদেশের পশ্চিম গোদাবরী জেলার ওই ১৬ বছরের কিশোর, লকডাউনের জন্য দেশের আর পাঁচজন পড়ুয়ার মতই বাড়িতে ছিল। কিন্তু বাধ সাধল পাবজি খেলার মারাত্মক নেশা। বেশ কয়েকদিন ধরে স্নান-খাওয়া ভুলে অবিরাম গেম খেলছিল ওই কিশোর। এমনকী জলপান করতেও সে মাঝে মাঝে ভুলে যেত।

এভাবে কয়েকদিন চলার পর হঠাৎই সে অসুস্থ হয়ে পড়ে, এবং বাড়ির লোক তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু তখন অনেক দেরি হয়ে গেছে। স্বাভাবিকভাবেই করোনার আশঙ্কায় তার কোভিড-১৯ টেস্ট করানো হয়, কিন্তু রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। চিকিৎসকরা জানান, ছেলেটির ডায়েরিয়া হয়েছে। এর ঠিক কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ওই কিশোর ডিহাইড্রেশনের ফলে মারা যায়।

এই ধরণের ঘটনা প্রথমবার ঘটেনি। চলতি বছরের শুরুতে মধ্যপ্রদেশের এক দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র একইভাবে বেশ কয়েকদিন ধরে টানা পাবজি খেলে শেষমেশ কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে মারা যায়। গত জানুয়ারি মাসে পুণেতে বছর পঁচিশের এক যুবক অতিরিক্ত পাবজি খেলার কারণে ব্রেন স্ট্রোকে মারা যায়। অন্যদিকে বেশ কয়েকদিন আগে পাঞ্জাবের জলন্ধরের একটি ছেলে, বাড়িতে পাবজি খেলা নিয়ে বচসার কারণে নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যা করে।

অতএব, PUBG যে মোটেও ভালো প্রভাব ফেলছে না তা নির্দ্বিধায় বলা যায়। বেশ কয়েকদিন আগেই শোনা গিয়েছিল ভারত সরকার ব্যান করতে পারে এই দক্ষিণ কোরিয়ার গেমটি, তবে এখনো পর্যন্ত এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি সরকার। দেখা যাক, আগামী দিনে পাবজি সংক্রান্ত আরো কী খবর সামনে আসে।