ভারত সরকার ব্যান করার আগেই প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তন করলো PUBG

pubg-has-changed-privacy-policy-in-india-amid-ban-rumors

গতমাসেই ভারতে ব্যান করা হয়েছে টিকটক সহ ৫৯টি অ্যাপ। কয়েকদিন আগে আরও ৪৭টি ক্লোন অ্যাপকে ব্যান করা হয়। এবার শোনা যাচ্ছে, কেন্দ্র সরকার আরও ২০০টির বেশি অ্যাপ্লিকেশনের তালিকা তৈরী করছে, যেগুলি কোনো ভাবে জাতীয় স্বার্থ লঙ্ঘন করলে ভারতে ব্যান করা হতে পারে। এই তালিকায় রয়েছে জনপ্রিয় PUBG Mobile গেমের নাম। তবে, এখনো পর্যন্ত সরকার বা গেমের নির্মাতা সংস্থা টেনসেন্ট এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

কিন্তু, এই গুজবের মধ্যেই সংস্থাটি, গেমের প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তন করে ফেললো। আসলে গেমটি কোনোভাবেই ভারত সরকারের রোষের মুখে পড়তে চায়না। সেকারণেই PUBG তড়িঘড়ি তাদের ভারতীয় প্লেয়ারদের জন্য নতুন প্রাইভেসী পলিসি এনেছে।

সংস্থার নতুন এবং আপডেটেড প্রাইভেসি পলিসিতে ইউজারের ডেটা সংরক্ষণের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রাইভেসি পলিসি পেজে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, এবার থেকে ভারতীয় ইউজারদের ডেটা আলাদা সার্ভারে সংরক্ষণ করে রাখা হবে। ভারত ছাড়াও সিঙ্গাপুর, হংকং এসএআর এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গেমের আলাদা সার্ভার থাকবে। এছাড়া বিশ্বজুড়ে সাপোর্ট টিম বা ইঞ্জিনিয়ারের দল থাকবে। অর্থাৎ গেম সম্পর্কিত সমস্ত সমস্যাগুলি এবার থেকে অভ্যন্তরীণভাবে সমাধান করা হবে।

ডেটা স্টোরেজ ছাড়া এই নতুন পলিসিতে, কিভাবে তৃতীয় পক্ষ ইউজার ডেটা হ্যান্ডেল করে, তা স্পষ্ট করা হয়েছে। ক্লাউড ব্যাক-আপ, সাপোর্ট টিকিট ইত্যাদি বিষয়ে ইউজারদের উন্নত অভিজ্ঞতা দিতে নির্দিষ্ট তৃতীয় পক্ষের সাথে কিছু ডেটা শেয়ার করে সংস্থাটি। তবে তাদের দাবি, ইউজার আইডি, তাদের ডিভাইস ইনফরমেশন বা IP অ্যাড্রেসের মত বিষয়গুলি চট করে তৃতীয় পক্ষের সাথে শেয়ার করেনা।

ইতিমধ্যেই পাবজি প্লেয়াররা নতুন প্রাইভেসি পলিসি জানার জন্য গেম চালু করার সময় পপ আপ পেতে শুরু করেছে। এথেকে স্পষ্ট PUBG ভারত সরকারের সমস্ত নিয়ম মেনে ব্যবসা চালাতে উদ্যোগি হয়েছে। এখন দেখার সরকার পাবজির কাজকর্মে খুশি হয়ে ভারতে এই গেমকে সচল রাখে কিনা।