পাবজি খেলার জন্য বাবার সাথে বচসা, নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যা করলো কলেজ ছাত্র

pubg-mobile-death-punjab-college-boy-kills-self-by-gun-as-dad-interrupted

বেশ কিছুদিন ধরে PUBG Mobile সংবাদের শিরোনামে রয়েছে। শোনা যাচ্ছে ভারতে এই গেমটিকে ব্যান করা হতে পারে। কারণ গেমটি ভারতীয়দের ডেটার অপব্যবহার করতে পারে। এইসবের মধ্যে জানা গেল পাবজি খেলতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছে আরও একজন কিশোর। এর আগেও একটি কিশোর পাবজী গেমে হেরে যাওয়ার কারণে ডিপ্রেশনে চলে যায় এবং রাত ৩ টে নাগাদ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। এবার এরকম আরো একটি ঘটনা আমাদের সামনে এলো, যা পুনরায় পাবজি গেম নিয়ে সকলের মাথায় চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে।

আজ এই ব্যাটেল রয়াল গেম আরো একটি কিশোরের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। জানা গিয়েছে, পাঞ্জাবের জলন্ধরের একটি কলেজ ছাত্র এই PUBG খেলা নিয়ে বচসার কারণে নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশি রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, জলন্ধরের বাসিন্দা মানিক নামের ওই ছেলেটির পাবজি খেলা নিয়ে তার বাবার সঙ্গে বচসা হয়। এই বচসা আরো গড়ায় যখন ওই ছেলেটির বাবা তার কাছ থেকে তার স্মার্টফোনটিকে কেড়ে নেয়। তার পরেই ওই ছেলেটি তার বাবার লাইসেন্স করানো রিভলভার দিয়ে নিজেকে শুট করে।

জানা গিয়েছে ছেলেটি সুইসাইড করার আগে একটি সুইসাইড নোট লিখে রেখে যায়। এদিকে ছেলেটির অ্যাকাডেমিক কোর্স নিয়ে ধন্দ রয়েছে। প্রথমে রিপোর্টে জানানো হয়েছিল যে, ছেলেটি BBA তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। পরবর্তীকালে, ওই কোর্স পাল্টে B.Com. হয়ে যায়।

এই মোবাইল গেম খেলার জন্য ওই ছেলেটির সাথে তার বাবার আগেও ঝগড়া হয়েছে বলে রিপোর্টে দাবি করা হয়। এছাড়াও ছেলেটির অ্যাকাডেমিক গ্রেড এই গেম খেলার কারণে ক্রমাগত নিচের দিকে নামতে শুরু করেছিল। এই গেমের কারণে সে তার পড়াশোনার দিকে একেবারেই মনোনিবেশ করছিল না বেশ কয়েক দিন ধরে। এই কারণে এর আগেও তার বাবা একটি স্মার্টফোন নষ্ট করেছিলেন। তারপরে ওই ছেলেটি তার বাবার ফোনেই পাবজি মোবাইল খেলা শুরু করে।

এদিকে এই নতুন ঘটনা সামনে আসার পর বেশ চিন্তায় রয়েছেন অন্যান্য অভিভাবকরা। যুবসমাজের কাছে এই PUBG Mobile খুবই জনপ্রিয় একটি মোবাইল মাল্টিপ্লেয়ার গেম। লকডাউন চলাকালীন সময়ে এই গেম খেলে বহু কিশোর নিজেদের সময় অতিবাহিত করছে। এই গেম আগেও অনেক ক্রাইম এর কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল।