PUBG New State: প্রশ্নের মুখে গেমের এইজ ভেরিফিকেশন ফিচার, অপ্রাপ্তবয়স্কদের নিয়ে চিন্তায় বিশেষজ্ঞরা

PUBG New State গেম ওপেন করার পর আপনার স্ক্রিনে 'USER INFO VERIFICATION' হেডলাইনে একটি প্রম্পট আসবে

pubg-new-state-asks-for-age-verification-of-under-18-players

কয়েকদিন আগেই ভারতসহ বিশ্বের ২০০ টি দেশে চালু হয়েছে পাবজির নতুন ভার্সন, PUBG New State। ডেভেলপার সংস্থা Krafton তাদের এই ব্যাটেল রয়েল গেম এনে ইয়াং জেনারেশনের মধ্যে নতুন করে উন্মাদনা তৈরি করতে চাইছে। যদিও এই গেম ফের সমাজে কুপ্রভাব ফেলবে বলে অনেকে মনে করছেন। আসলে নতুন এই গেমের এলিজিবিলিটি ফিচারে কোনওরকম পরিবর্তন না আনায়, অপ্রাপ্তবয়স্করা অনাহাসেই এই গেমটি খেলতে পারবে।

আপনি যদি গেমটি খেলতে চান, তাহলে প্রথমেই আপনার বয়স জানতে চাওয়া হবে। উল্লেখ্য, PUBG Mobile-এর ভারতীয় ভার্সন, BGMI (Battlrground Mobile India) গেমেও একইভাবে বয়স জানতে চাওয়া হয়। অপ্রাপ্তবয়স্ক গেমাররা যাতে তাদের বাবা-মায়ের অনুমতি ছাড়া গেমটি খেলতে না পারে, তার জন্যই Krafton সংস্থার তরফ থেকে এই কৌশল অবলম্বন করা হয়।

আপনি আপনার Android বা iOS যে প্লাটফর্ম থেকেই PUBG New State গেম খেলতে চান না কেন, গেমটি ওপেন করার পর আপনার স্ক্রিনে ‘USER INFO VERIFICATION’ হেডলাইনে একটি প্রম্পট আসবে। সেখানে আপনাকে জিজ্ঞেস করা হবে, আপনার বয়স ১৮ বছর বা তার বেশি কিনা। সেখানে আপনি ‘হ্যাঁ’ কিংবা ‘না’ দুটি অপশনের মধ্যে যেকোনো একটি বেছে নেবেন। যদিও বিষয়টি খুবই হাস্যকর। কারণ কোনও গেমার ১৮ বছর না হওয়া সত্বেও ‘হ্যাঁ’ অপশনটি সহজেই বেছে নিতে পারেন। যেহেতু এখানে তার বয়সের কোনো প্রমানপত্র দাখিল করতে হচ্ছে না। তাই সহজেই খেলার নিয়মকে ফাঁকি দেওয়া যেতে পারে।

এইজ ভেরিফিকেশনের এই সিস্টেম তখনই কার্যকর হবে , যদি গেমাররা তাদের সঠিক বয়স সেখানে দেয়। যদি ১৮ বছরের কম বয়সী কোনও গেমার সেখানে তার বয়স দেয় তাহলে তার কাছে তার বাবা-মায়ের একটি ফোন নাম্বার চাওয়া হবে। তারপর সেই ফোন নাম্বারে একটি ভেরিফিকেশন কোড যাবে। সংস্থার দাবি, এর মাধ্যমে ১৮ বছরের কম বয়সী গেমাররা তাদের বাবা-মায়ের তত্ত্বাবধানে গেমটি খেলতে পারবে। অপ্রাপ্তবয়স্ক গেমাররা যে এই গেমটি খেলছে সেটা তাদের বাবা-মায়েরা জানতে পারবেন। পাবজির আগের ভার্সনে এই একই ধরনের এইজ ভেরিফিকেশনের ফিচার ছিল। যার ফলে অপ্রাপ্তবয়স্ক গেমাররা খুব সহজেই সংস্থাকে ফাঁকি দিয়ে, তাদের বাবা-মায়ের নজর এড়িয়ে এই খেলার প্রতি আসক্ত হয়ে পড়েছিল।

চিকিৎসকদের মতে, পাবজির প্রতি অতিরিক্ত আসক্তির জন্য বাচ্চাদের মধ্যে কিছু স্বভাবগত পরিবর্তন লক্ষ্য করা গিয়েছিল। বিশেষ করে তারা ব্যাটেল রয়েল গেমের বিভিন্ন অস্ত্র ব্যবহার করে খুবই হিংসাত্মক হয়ে উঠছিল।

এখন আবার একই গেম চালু হওয়ায় অপ্রাপ্তবয়স্ক গেমারদের নিয়ে যথেষ্টই চিন্তিত বিশেষজ্ঞরা। অতি শীঘ্র এই গেমের এইজ ভেরিফিকেশন ফিচারে পরিবর্তন আনা না হলে, তা অপ্রাপ্তবয়স্ক গেমারদের জন্য যথেষ্টই ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।