ইন্টারনেট শেষ করে ফেলায় ছোট ভাইকে হত্যা করল ২৩ বছরের তরুণ

ভাইয়ে-ভাইয়ে অশান্তির কথা তো প্রায়ই শোনা যায়, বিভিন্ন মতবিরোধের কারণে সেই অশান্তি-হাতাহাতি খুনোখুনির পর্যায়ে পৌঁছতেও দেখা যায়। কিন্তু এবার শুধুমাত্র ফোনের ইন্টারনেট শেষ করে ফেলায় নিজের ছোট ভাইকে হত্যা করল এক ২৩ বছরের তরুণ। হ্যাঁ ঠিকই পড়েছেন! এই সামান্য কারণেই গত বুধবার রাজস্থানের যোধপুরে অকালে ঝরে গেছে একটি তরতাজা প্রাণ।

রিপোর্ট অনুযায়ী, নিহত ছেলেটি তার দাদা রমনের মোবাইল ডেটা ব্যবহার করে গেম খেলছিল। কিন্তু, গেম খেলতে খেলতে একসময় ইন্টারনেট শেষ হয়ে যায়। এরপর বছর ২৩-এর রমন যখন বিষয়টি খেয়াল করে, তখন সে তার ভাই রয়কে বাড়ির ছাদে নিয়ে গিয়ে মোবাইল ডেটা ব্যবহার করেছে কিনা জানতে চায় এবং বকাবকি করে। শেষে রাগের বশে রমন, তার ছোটো ভাইয়ের বুকে কয়েকবার ছুরিকাঘাত করে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

রাজস্থান পুলিশের মতে, বুধবার গভীর রাতে মৃতের পরিবারের অন্যান্য সদস্যেরা, তাকে বাড়ির ছাদে রক্তাক্ত অবস্থায় খুঁজে পায়। এরপর তাকে তৎক্ষণাৎ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, কিন্তু হাসপাতাল তাকে মৃত ঘোষণা করে।

এদিকে, অভিযুক্ত রমনকে শুক্রবার রেল স্টেশন থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশি জেরায় সে নিজের দোষ স্বীকার করেছে বলে সূত্রের দাবি। তবে বলা হচ্ছে ওই তরুণ মানসিক ভারসাম্যহীন। কিন্তু যাইহোক না কেন, অন্তর্জাল (ইন্টারনেট) যে মাকড়সার জালের মতই ভয়ানক এবং আমরা ক্রমশ এতে পতঙ্গের মতই জড়িয়ে যাচ্ছি – একথা সাম্প্রতিক ঘটনা থেকে আরো একবার প্রমাণিত হয়ে গেল!