অর্থনীতির পক্ষে বিপদজনক, ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ RBI গভর্নরের

RBI- এর ২৫ তম গভর্নর শক্তিকান্ত দাস জানান, দেশীয় অর্থনীতির পক্ষে 'ক্রিপ্টোকারেন্সি' গুরুতর ভয়াবহ

rbi-governor-says-cryptocurrencies-are-serious-threat-to-any-financial-system-till-they-are-regulated

ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কে ফের উদ্বেগ প্রকাশ সেন্ট্রাল ব্যাংকের। বুধবার, রিজার্ভ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর শক্তিকান্ত দাসের ( Saktikanta Das) বয়ানে ধরা পড়ল স্পষ্ট আশঙ্কার ছাপ। দেশে ক্রিপ্টো বিনিয়োগকারীর প্রকৃত সংখ্যা ও মার্কেট ভ্যালু নিয়েও যথেষ্ট সন্দেহ প্রকাশ করেছেন তিনি।

এই মুহুর্তে দেশে ক্রিপ্টো নিয়ে উন্মাদনা তুঙ্গে। অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে ডিজিটাল মুদ্রার প্রভাব ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। এই পরিস্থিতিতে বুধবার এক অনুষ্ঠানে, RBI- এর ২৫ তম গভর্নর শক্তিকান্ত দাস জানান, দেশীয় অর্থনীতির পক্ষে ‘ক্রিপ্টোকারেন্সি’ গুরুতর ভয়াবহ। দেশের আর্থিক স্থিতিশীলতা ও বৃহত্তর অর্থনীতির উপর ক্রিপ্টোর নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার নিয়ে রীতিমতো উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় ব্যাংক। শুধু ভারতীয় অর্থনীতিই নয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংক দ্বারা নিয়ন্ত্রিত না হওয়া অবধি বিশ্বের যে কোনো অর্থনীতির পক্ষেই ডিজিটাল মুদ্রার ব্যবহার একইভাবে ক্ষতিকারক, এমনটাই দাবি RBI- গভর্নরের।

প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই ডিজিটাল মুদ্রার ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের উদ্দেশ্যে একটি বিল প্রস্তুত করছে, যেটি সম্ভবত আসন্ন বাজেটে পার্লামেন্টের সামনে পেশ করা হতে পারে। ইতিমধ্যে, RBI -গভর্নর, ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ প্যানেল রিপোর্টে এই বিতর্কিত বিষয়টি সম্পর্কে তাঁর মতামত প্রকাশ করেছেন বলেই সূত্র মারফত খবর। PTI- কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে, তিনি আরও জানিয়েছেন, সরকার সক্রিয় ভাবে ক্রিপ্টো কারেন্সির বিষয়টি নিয়ে ভাবনাচিন্তা করছে এবং সম্ভবত শীঘ্রই কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাবে। তবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসেবে RBI-ও বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট চিন্তিত।

ক্রিপ্টোর বরাবরের সমালোচক, শক্তিকান্ত দাস দেশে ক্রিপ্টোকারেন্সির প্রকৃত বিনিয়োগকারীর সংখ্যা নিয়েও যথেষ্ট সন্দেহ দেখিয়েছেন। সম্প্রতি প্রকাশিত একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে ক্রিপ্টো ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ কোটিরও বেশী। তবে বেশ কিছু দেশীয় ক্রিপ্টো প্ল্যার্টফর্মের হিসেবে সংখ্যাটা ২ কোটির গন্ডি ছাড়ায় না।

চলতি বছরের শুরুতে,‌ RBI একটি অফিশিয়াল ডিজিটাল কারেন্সি চালু করার কথা ভেবেছিল। এমনকী CBDC (Central Banking Digital Currency) -র মডেল তৈরির উদ্দেশ্যে একটি কমিটি ও তৈরি করা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

এখন সরকারের পক্ষ থেকে বাজারচলতি ক্রিপ্টো মুদ্রা গুলি নিষিদ্ধ ঘোষিত না হলে, RBI ডিজিটাল কারেন্সি চালুর বিষয়ে কি সিদ্ধান্ত নেয়, সেটাই দেখার।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।