প্রথম সেলে Realme 7 Pro কিনলে পাবেন বিনামূল্যে একবছরের ডিসকভার প্লাস ইন্ডিয়া সাবস্ক্রিপশন

Realme 7 Pro first sale on 14 september get 2 year Discovery Plus India subscriptions

আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর প্রথমবার ভারতে সেলের জন্য উপলব্ধ হবে Realme 7 Pro। কয়েকদিন আগেই কোম্পানি এই ফোনকে Realme 7 এর সাথে লঞ্চ করেছিল। ইতিমধ্যেই রিয়েলমি ৭ এর সেলের অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবার রিয়েলমি ৭ প্রো ও ফ্ল্যাশ সেলের জন্য উপলব্ধ হচ্ছে। লঞ্চ অফার হিসাবে এই ফোনের ওপর কোম্পানি বিশেষ কিছু অফারের ঘোষণা করেছে। যেমন আপনি প্রথম সেলে Realme 7 Pro কিনলে এবছরের সাবস্ক্রিপশন চার্জ দিয়ে ২ বছরের Discovery Plus India সাবস্ক্রিপশন পাবেন। সাধারণ ভাবে ১ বছরের জন্য ডিসকভার প্লাস ইন্ডিয়া সাবস্ক্রিপশন নিতে ২৯৯ টাকা দিতে হয়। তবে রিয়েলমি ৭ প্রো কিনলে আপনি ২৯৯ টাকা দিয়ে ২ বছরের সাবস্ক্রিপশন পেয়ে যাবেন।

এছাড়াও ফোনটির ওপর কিছু ব্যাংক অফারও পাওয়া যাবে। ফোনটির নো কস্ট ইএমআই শুরু হবে ৩,৬৬৭ টাকা থেকে। ভারতে রিয়েলমি ৭ প্রো লঞ্চ হয়েছে দুটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে। এর ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম ১৯,৯৯৯ টাকা। আবার ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম ২১,৯৯৯ টাকা। ফোনটি মিরর সিলভার ও মিরর ব্লু কালারে পাওয়া যাবে। 

Realme 7 Pro স্পেসিফিকেশন:

রিয়েলমি ৭ প্রো ফোনে আছে ৬.৪ ইঞ্চি সুপার এমোলেড ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের রেজুলেশন ১০৮০ x ২৪০০ পিক্সেল এবং রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্টজ। আবার এর স্ক্রিন টু বডি রেশিও ৯০.৮ শতাংশ। এতে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি প্রসেসর। এছাড়াও আছে ৮ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম (LPDDR4x) এবং ১২৮ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ২৫৬ জিবি বাড়ানো যাবে।

এই ফোনের পিছনে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ আছে। যার প্রাইমারি ক্যামেরা ৬৪ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স৬৮২ সেন্সর। এর অ্যাপারচার এফ/১.৮। অন্য তিনটি ক্যামেরা হল ১১৯ ডিগ্রী ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড সেন্সর (এফ/২.৩), ২ মেগাপিক্সেল সাদা এবং কালো পোর্ট্রেট ক্যামেরা, ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর। এই ক্যামেরায় স্টারি মোড, প্রো নাইটস্কেপ মোড প্রভৃতি ফিচার আছে। সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য Realme 7 Pro ফোনের সামনে ৩২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। যার অ্যাপারচার এফ/২.৫।

সিকিউরিটির জন্য এই ফোনে আছে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। এতে ৬৫ ওয়াট সুপার ডার্ট চার্জিং টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে। যা ৩৪ মিনিটে ফোনকে ০-১০০ চার্জ করে দেবে। ফোনটিতে আছে ৪,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি। চার্জিংয়ের জন্য এতে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট উপলব্ধ। এতে ডলবি অ্যাটমস সাউন্ড সাপোর্ট করবে।