হ্যাকিংয়ের শিকার Realme India Support-র টুইটার অ্যাকাউন্ট, চাওয়া হল ক্রিপ্টোকারেন্সি

realme-india-support-twitter-account-hacked-renamed-tesla-cryptocurrency

ইন্টারনেট তথা প্রযুক্তি নির্ভর এই জীবনে, ‘হ্যাকিং’ শব্দটির সাথে পরিচিত নন এমন মানুষ বোধহয় খুব কমই রয়েছেন। সফ্টওয়্যার দুর্বলতা, অসাবধানতা বা অজ্ঞতার মত নানা কারণে সাধারণ মানুষ আকছার হ্যাকিংয়ের শিকার হয়, যার ফলে হাতের বাইরে চলে যায় ভিক্টিমের অ্যাকাউন্ট, প্রোফাইল এমনকি আস্ত সিস্টেম ডিভাইসের অ্যাক্সেস-ও। সেক্ষেত্রে বারবার হ্যাকারদের আক্রমণে জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব বা সেলিব্রিটি প্রোফাইল হ্যাক হওয়ার পরেও যে, বহুল ব্যবহৃত মাইক্রোব্লগিং সাইট Twitter কোনো শিক্ষা নেয়নি বা সাবধানতা অবলম্বন করেনি– তা আরো একবার প্রমাণিত হয়ে গেল। আসলে গতবছর এরকম সময়েই সাইবার জালিয়াতির কবলে পড়ে প্রাক্তন মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা, মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বিডেন, অ্যামাজনের সিইও জেফ বেজোস, কিম কারদাশিয়ান এবং বিল গেটসের মত বহু বিশিষ্ট ব্যক্তির টুইটার অ্যাকাউন্ট; এই হাই-প্রোফাইল টুইটার অ্যাকাউন্টগুলি ব্যবহার করে দুই দফায় একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি স্ক্যাম করে হ্যাকাররা। কিন্তু বছর ঘুরতে না ঘুরতেই সেই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটেছে, যেখানে হ্যাকিং কাণ্ডের থাবা পড়েছে রিয়েলমি (Realme) ইন্ডিয়ার সাপোর্ট টুইটার অ্যাকাউন্টের ওপর।

91mobiles-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, হ্যাকাররা জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ডের এই টুইটার হ্যান্ডেলটির অ্যাক্সেস পেয়ে সেটিকে মার্কিন ভেহিকল কোম্পানি টেসলার প্রতীকী বানিয়ে দেয় এবং একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি কেলেঙ্কারির উদ্দেশ্যে ওই সংস্থার কর্ণধার ইলন মাস্কের টুইটগুলির জবাব দিতে শুরু করে। তবে হ্যাকাররা তেমন পটু বা চতুর ছিল বলে মনে হয়না। কারণ তারা রিয়েলমি সাপোর্টের নাম পাল্টে টেলসা করে দেয় বা প্রোফাইল পিকচার বদল করে টেসলার লোগো দেয় বটে, কিন্তু টুইটার হ্যান্ডেলটির বায়ো সেকশন অপরিবর্তিতই থাকে।

তাছাড়া স্বস্তির বিষয় এটাই যে, হ্যাকাররা খুব বেশি সময় ধরে এই অ্যাকাউন্ট নিজেদের দখলে রাখতে পারেনি; হ্যাক হওয়ার ১৫ মিনিটের মধ্যেই টুইটার অ্যাকাউন্টের আসল মালিকরা সেটি পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হন। পরে হ্যাকারদের পোস্ট করা টুইটগুলিও সংস্থাটি মুছে ফেলে। জানিয়ে রাখি, জনপ্রিয় টিপস্টার ইশান আগরওয়াল প্রথম এই হ্যাকিংয়ের ঘটনাটি লক্ষ্য করেন এবং সেটি রিপোর্ট করেন।

রিয়েলমির প্রোফাইল থেকে ঠিক কী টুইট করেছিল হ্যাকাররা?

ইশানের টুইট করা স্ক্রিনশটে দেখা গিয়েছে, হ্যাকাররা প্রচলিত বিটিসি ওয়ালেট অ্যাড্রেসের বদলে ইউজারদের একটি ওয়েবসাইটে যেতে বলেছে। সাধারণত, এসব ঘটনায় দুরাভিসন্ধিরা বিটিসি ওয়ালেট অ্যাড্রেস পোস্ট করে এবং ইউজারকে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে প্রাথমিক বিনিয়োগের দরুন দ্বিগুণ অর্থ ফেরত দেওয়ার টোপ দেয়। সেক্ষেত্রে এই ক্রিপ্টো-কেলেঙ্কারীটি বেশ অন্যরকম ছিল বলেই মনে হচ্ছে।

এই বিষয়ে খোদ রিয়েলমি, ইন্ডিয়া টুডে নামক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে যে, তারা প্রতিনিয়ত রিয়েলমি ইন্ডিয়া টুইটার সাপোর্ট অ্যাকাউন্টের ডেভেলপমেন্ট পর্যবেক্ষণ করছে এবং ঘটনাটির অভ্যন্তরীণভাবে তদন্ত করছে। এদিকে, এই ধরণের হ্যাকিং এড়াতে টুইটারকে সিকিউরিটি ব্যবস্থা মজবুত করতে হবে বলে অনেকেই দাবি করছেন। টুইটারের কোনো ত্রুটিকে হাতিয়ার করেই বারবার এরকম হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটছে বলে তাঁদের অভিমত।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.