পাওয়ারফুল ব্যাটারি সহ Redmi 9 Prime ভারতে লঞ্চ হল, দাম শুরু ৯৯৯৯ টাকা থেকে

redmi-9-prime-launched-price-in-india-specifications-first-sale-6-august-amazon

সত্যি হল আশংকা, গ্লোবাল মার্কেটে লঞ্চ হওয়া Redmi 9 এর রিব্রান্ডেড ভার্সন হিসাবে Redmi 9 Prime কে ভারতে আনলো Xiaomi। স্টোরেজ ছাড়া দুটি ফোনের স্পেসিফিকেশনের মধ্যে কোনো বদল নেই। ভারতে রেডমি ৯ প্রাইম এর দাম শুরু হয়েছে ৯,৯৯৯ টাকা থেকে। Redmi 9 Prime এর বিশেষ বিশেষ ফিচারের কথা বললে এতে পাবেন মিডিয়াটেক হেলিও জি৮০ অক্টা কোর প্রসেসর, ৫,০২০ এমএএইচ ব্যাটারি ও কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ।

Redmi 9 Prime ভারতে দাম:

ভারতে রেডমি ৯ প্রাইম ফোনটি দুটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের সাথে লঞ্চ হয়েছে। এর ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ৯,৯৯৯ টাকা। আবার ৪ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১১,৯৯৯ টাকা।  রেডমি ৯ প্রাইম এর সেল ৬ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া Amazon Prime Day সেলে শুরু হবে। যদিও Mi.com থেকেও ফোনটি কেনা যাবে। ফোনটি মিন্ট গ্রীন, সানরাইজ ফ্লেয়ার, স্পেস ব্লু এবং ম্যাট ব্ল্যাক কালারে পাওয়া যাবে।

গ্লোবাল মার্কেটে রেডমি ৯ এর ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজের দাম প্রায় ১০,০০০ টাকা। আবার ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজের দাম প্রায় ১২,৬৫০ টাকা। এর ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজও লঞ্চ করা হয়েছে, যার দাম প্রায় ১৪,৬০০ টাকা। 

Redmi 9 Prime স্পেসিফিকেশন:

রেডমি ৯ প্রাইম এর ফিচারের কথা বললে এটি ওয়াটারড্রপ নচ ডিজাইন সহ ৬.৫৩ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস এলসিডি প্যানেলের সাথে এসেছে। যার রেজুলেশন ১০৮০x২৩৪০ পিক্সেল এবং আসপেক্ট রেশিও ১৯.৫:৯। এই ফোনে হালকা বেজেল উপলব্ধ এবং ডিসপ্লের প্রটেকশনের জন্য আছে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৩। রেডমি ৯ প্রাইম ফোনে কোম্পানি কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ দিয়েছে। যার প্রাইমারি ক্যামেরা এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ১৩ মেগাপিক্সেল। এছাড়াও আছে ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড সেন্সর, ৫ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর ও ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্ত সেন্সর। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ৩০ এফপিএস এ ১০৮০পি ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। এছাড়াও পোর্ট্রেট মোড, ওয়াইড এঙ্গেল মোড প্রভৃতি উপলব্ধ। ভিডিও কল ও সেলফির জন্য ফোনের সামনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে।

রেডমি ৯ প্রাইম ফোনে পাবেন মিডিয়াটেক হেলিও জি৮০ অক্টা কোর প্রসেসর, ৪ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে। ফোনটি ১৮ ওয়াট কুইক চার্জার ৩.০ সাপোর্টের সাথে শক্তিশালী ৫,০২০ এমএএইচ ব্যাটারির সাথে এসেছে। যদিও বক্সের মধ্যে ১০ ওয়াট ফাস্ট চার্জার উপলব্ধ। চার্জিংয়ের জন্য এখানে পাবেন ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। সিকিউরিটির জন্য এতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও ফেস আনলক ফিচার আছে। অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে এই ফোনে পাবেন অ্যান্ড্রয়েড ১০ বেসড এমআইইউআই ১১ ইউআই।