দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ ও দুর্দান্ত সাউন্ড সহ লঞ্চ হল Redmi Buds 3 ওয়্যারলেস ইয়ারফোন

Redmi Buds 3 সেমি ইন-ইয়ার ডিজাইন, কোয়ালকম প্রসেসর, নয়েজ ক্যান্সলেশন ফিচার সহ লঞ্চ হল

redmi-buds-3-tws-earbuds-launched-with-20-hours-battery-life-price-features

ফের নিজের Redmi ব্র্যান্ডিংয়ের অধীনে একটি নতুন ট্রু ওয়্যারলেস স্টেরিও (TWS) ইয়ারবাড বাজারে আনল Xiaomi। চীনা টেক জায়ান্ট কর্তৃক লঞ্চ হওয়া এই লেটেস্ট ইয়ারবাডটির নাম Redmi Buds 3 (রেডমি বাডস ৩), যাতে সেমি ইন-ইয়ার ডিজাইন, কোয়ালকম প্রসেসর, নয়েজ ক্যান্সলেশন ইত্যাদি ফিচার রয়েছে। তাছাড়া এই ইয়ারবাড ২০ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাটারি লাইফ অফার করবে বলে কোম্পানির তরফে দাবি করা হয়েছে। আসুন Redmi Buds 3 এর দাম ও ফিচার জেনে নেওয়া যাক।

Redmi Buds 3-এর দাম

রেডমি বাডস ৩ ইয়ারবাডের দাম রাখা হয়েছে ১৯৯ ইউয়ান (মোটামুটি ২,৩০০ টাকা)। তবে প্রাথমিকভাবে ক্রাউডফান্ডিং ক্যাম্পেইনের অধীনে এটি ১৫৯ ইউয়ানে (প্রায় ১,৮০০ টাকা) বিক্রি হবে। আগামীকাল অর্থাৎ বুধবার থেকে সংস্থার ঘরোয়া বাজারে অনুষ্ঠিত হবে এই ক্রাউডফান্ডিং। আপাতত এর বৈশ্বিক প্রাপ্যতা সম্পর্কে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

Redmi Buds 3-এর স্পেসিফিকেশন ও ফিচার

রেডমি বাডস ৩ ইয়ারবাড ১২ মিমি ড্রাইভারসহ এসেছে এবং এতে কোয়ালকম কিউসি৩০৪০ (QC3040) চিপসেট, এপটিএক্স (aptX) অ্যাডাপটিভ অডিও ডিকোডিং প্রযুক্তি বর্তমান। শাওমি জানিয়েছে, এই ইয়ারবাডটি Redmi K40 Pro সহ কোম্পানির অন্যান্য ডিভাইসগুলির সাথে যুক্ত করে ব্যবহার করলে, ইউজাররা ৯৫ মিলিসেকেন্ডের কম লেটেন্সি রেট উপভোগ করতে পারবেন। রেডমি বাডস ৩ ইয়ারবাডে মিউজিক প্লে, ট্র্যাক চেঞ্জ বা কল রিসিভের জন্য বিশেষ টাচ কন্ট্রোলের সুবিধা পাওয়া যাবে।

শুধু তাই নয়, MIUI 12 এবং তার পরবর্তী সফ্টওয়্যার ভার্সন চালিত ফোনগুলির ক্ষেত্রে ইয়ারবাডটি কুইক পেয়ারিংয়ের সুবিধা দেবে। প্রতিটি বাডে থাকবে দুটি মাইক্রোফোন যা কোয়ালকমের সিভিসি (cVc) প্রযুক্তির সাহায্যে ভয়েস কলের সময় শব্দ কমাবে। রেডমি বাডস ৩ ইয়ারবাড একক চার্জে পাঁচ ঘন্টা পর্যন্ত প্লেব্যাক এবং চার্জিং কেসসহ ২০ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাটারি ব্যাকআপ দেবে।সেক্ষেত্রে ইয়ারবাডে ফাস্ট চার্জিংয়ের সুবিধা থাকায়, ১০ মিনিটের চার্জে ১.৫ ঘন্টা প্লেব্যাক পাওয়া যাবে বলে দাবি করা হয়েছে। বাডগুলির এক একটির ওজন ৪.৫ গ্রাম।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.