অনলাইন রিচার্জে আয় বেড়েছে Reliance Jio থেকে Airtel এর

reliance-jio-airtel-benefits-from-online-recharge-platform

অতিমারির দাপটে ২০২০ সালটা আমাদের ঘরে বসেই কাটাতে হয়েছে। অচেনা ভাইরাসের রক্তচক্ষুর শাসনে নিষ্প্রভ হয়ে গেছে একটা গোটা বছরের সমস্ত আশা, আনন্দ ও উদ্দীপনা। অর্থনীতির চাকা থমকে গিয়েছে পুরোপুরি। তবে Google Pay, PhonePe বা Paytm এর মতো অনলাইন পেমেন্ট প্ল্যাটফর্মগুলির ক্ষেত্রে হিসেব কিছুটা উল্টো। লকডাউনের জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় যাবতীয় জিনিসপত্রের খরিদ্দারি, বিদ্যুতের বিল জমা বা মোবাইল রিচার্জের মতো সমস্ত কাজেই আমরা এদের ওপর ব্যাপক নির্ভরশীল হয়ে পড়েছি। ফলে তাদের মুনাফার অঙ্ক বেড়েছে অনেকখানি। পাশাপাশি ভারতের তাবড় টেলিকম সংস্থাগুলিও কিন্তু যথেষ্ট লাভবান হয়েছে। বাৎসরিক হিসেবে তাদের গ্রাহক পিছু গড় আয় বেড়েছে, বেড়েছে অনলাইন রিচার্জ মারফত প্রাপ্ত আয়ের পরিমাণ।

ET Telecom এর রিপোর্ট অনুযায়ী, গত বছরে ভারতের বিভিন্ন টেলিকম জায়ান্টদের রিচার্জ বাবদ আয়ের ৫০ শতাংশই এসেছে অনলাইন রিচার্জের মাধ্যমে। বর্তমানে দেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় টেলকো Reliance Jio’র হিসেবটা দেখলেই অনেক কিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে। যেমন গত বছরের অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকে জিও’র আয়ের অর্ধেক অর্থ অনলাইন রিচার্জের দৌলতে প্রাপ্ত। অথচ বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে জিও’র আয়ের ৩৫ শতাংশ অর্থ অনলাইন রিচার্জের মাধ্যমে এসেছে। আবার এপ্রিল-জুন প্রান্তিকে রিচার্জ বাবদ আয়ের ৬০ শতাংশ অর্থই জিও অনলাইন রিচার্জ মারফত কামিয়ে নিয়েছে, যা বিগত বছরের হিসাবে সর্বোচ্চ!

দেশের অপর টেলিকম প্রধান এয়ারটেলও অবশ্য পিছিয়ে নেই। তারাও রিচার্জ রেভিনিউয়ের অর্ধাংশ সংগ্রহ করেছে অনলাইন রিচার্জের মাধ্যমে। এছাড়া ভোডাফোন আইডিয়া লিমিটেড (Vi) ও ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড বা BSNL এর পক্ষেও একই ঘটনা ঘটতে দেখা গিয়েছে।

অনলাইন পেমেন্ট সংস্থা ফোনপে’র একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, আগের বছর টেলিকম সংস্থাগুলির গ্রাহক প্রতি গড় আয় যেমন বেড়েছে, তেমনই বাৎসরিক হিসেবে মোবাইল রিচার্জ মারফত আয়ের পরিমাণও বৃদ্ধি পেয়েছে। পরিসংখ্যান বলছে এই সময়পর্বে অনলাইন ট্রানজাকশনের মাধ্যমে মোবাইল রিচার্জের হারেও উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি (৫৫-৭৫ শতাংশ) ঘটেছে। অর্থাৎ এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই যে অতিমারি এবং লকডাউনের সময় মানুষ প্রতিদিনের জীবনে আরো বেশি করে অনলাইন পেমেন্ট সংস্থাগুলির দ্বারস্থ হতে বাধ্য হয়েছেন। এক্ষেত্রে মোবাইল রিচার্জ ছাড়া বিদ্যুতের বিল, পৌরকর বা স্কুল-কলেজের ফি মেটাতে গিয়েও আমরা Google Pay, PhonePe এবং Paytm এর মতো অনলাইন ওয়ালেটগুলির উপরে অতিরিক্ত ভরসা দেখিয়েছি।