চলতি মাসেই আসতে পারে Royal Enfield Meteor 350, জেনে নিন ইঞ্জিন সহ অন্যান্য বৈশিষ্ট্য

Royal Enfield যে নতুন একটি মোটরবাইকের ডেভলপমেন্টের ওপর কাজ করছে, সে সম্পর্কে গত এপ্রিলে স্টুডিও ইমেজের মাধ্যমে জানা গিয়েছিল। এই বাইকটির অফিসিয়াল নাম হবে Royal Enfield Meteor 350। সংস্থা অনেক আগেই বাইকটি লঞ্চ করার পরিকল্পনা নিলেও করোনা ভাইরাসের কারনে বাইকটিকে এখনও বাজারে আনা হয়নি। Royal Enfield, বাইকটি নিয়ে গোপনীয়তা অবলম্বন করলেও গত মাসে মডেলটি কি কি ভ্যারিয়েন্টে আসবে সেটা জানা গিয়েছিল। এবার ফাঁস হওয়া একটি ব্রোশারের মাধ্যমে মডেলটির ইঞ্জিন স্পেসিফিকেশনও সামনে এল। ফলে অনুমান করা যায়, এই মাসের শেষের দিকে বা অক্টোবরের প্রথমদিকে Royal Enfield, Meteor 350 নামের এই রেট্রো ক্রুজার ক্যাটেগরির বাইকটিকে লঞ্চ করবে।

Meteor 350 এর ইঞ্জিন স্পেসিফিকেশন:

জানা গিয়েছে, বাইকটিতে ৩৫০ সিসির ইঞ্জিন থাকবে। এয়ার-কুলড সিঙ্গেল সিলিন্ডারের এই ইঞ্জিন সর্বোচ্চ ২০.৫ হর্সপাওয়ার এবং ২৭ ন্যানোমিটার টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম। এছাড়া জানা গেছে, এটি দীর্ঘ স্ট্রোকের ইঞ্জিন হবে যাতে কম আরপিএমে বর্ধিত টর্কের সরবরাহ নিশ্চিত করা যায়। এছাড়া আসন্ন Meteor 350 রয়্যাল এনফিল্ডের প্রথম বাইক হবে যেটি স্মার্টফোন কানেক্টিভিটির সাথে আসবে।

বাইকটির মূল আলোচ্য বিষয় এর নতুন ডিজিট্যাল অ্যানালগ ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার। টুইন পডের এই ইউনিট অ্যানালগ স্পিডোমিটার ও ডিজিটাল এলসিডি স্ক্রিন নিয়ে গঠিত। এই এলসিডি স্ক্রিনে ওডোমিটার, ডুয়াল ট্রিপমিটার, টাইম, ফুয়েল গ্রাফ বার, সার্ভিস রিমাইন্ডার, গিয়ার পজিশান ইন্ডিকেটরের, ইকো মোড ইন্টিকেটর দেখা যাবে। বাইকটিতে নতুন Tripper Navigation display Unit থাকছে। এই নেভিগেশান আসলে রয়্যাল এনফিল্ডের ব্লুটুথ এনাবেলড জিপিএস সিস্টেমের অফিসিয়াল নাম। ডিসপ্লেতে এর অ্যারোমার্ক টার্ন বাই টার্ন ডিরেকশানের সাথে ডিসট্যান্সও নির্দেশ করবে। ডিসপ্লেটি ডে এবং নাইট মোডের সাথে এসেছে। এই নেভিগেশান ফিচারটি স্মার্টফোনে একটি ডেডিকেটেড অ্যাপ্লিকেশানের মাধ্যমে অ্যাকসেস করা যাবে।

Royal Enfield Meteor 350 মোটরবাইকটি কে তিনটি ভ্যারিয়েন্ট লঞ্চ করা হবে, যেগুলি হল- Supernova, Stella এবং Fireball।

Royal Enfiled Meteor 350 Supernova

এটি Meter 350 সিরিজের সবচেয়ে দামী ভ্যারিয়েন্ট হবে। বাইকটি দুটি ডুয়াল-টোন রঙের বিকল্পে উপলব্ধ হবে। যেগুলি হল লাইট ব্লু/ব্ল্যাক এবং ব্রাউন/ব্ল্যাক। বাইকটিতে প্রিমিয়াম ডুয়াল-টোন অ্যালয় হুইল, প্রিমিয়াম সিট কভার, ক্রোম ইন্ডিকেটর ও উইন্ডস্ক্রিন থাকবে।

Royal Enfiled Meteor 350 Steller

এই ভ্যারিয়েন্টটি তিনটি রঙের বিকল্পে কেনা যাবে। যথা- মেটালিক রেড, মেটালিক ব্লু এবং ম্যাট ব্ল্যাক। বাইকটিতে সংস্থার 3D লোগো, পিলিয়ন ব্যাকরেস্ট, বডি কালারড প্যানেল এবং ক্রোম-ফিনিশড হ্যান্ডেলবার থাকবে বলে জানা গিয়েছে।

Royal Enfiled Meteor 350 Fireball

এটি হবে Meteor 350 সিরিজের বেস ভ্যারিয়েন্ট। বাইকটি হলুদ এবং লাল এই দুটি রঙের বিকল্পে পাওয়া যাবে।