5G নেটওয়ার্কের জন্য Jio কে সাহায্য করবে Samsung?

samsung-denis-partnership-with-jio-for-5g-network

দক্ষিণ কোরিয়ান টেক জায়েন্ট স্যামসাং (Samsung) স্মার্টফোন এবং নেটওয়ার্কিংয়ের ব্যবসা প্রসারিত করতে সম্প্রতি সময়ে প্রচুর পরিমাণ বিনিয়োগ করেছে। ইতিমধ্যেই তারা 5G নেটওয়ার্কের প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি সারা বিশ্বের বিভিন্ন অপারেটরকে সরবরাহ করতে শুরু করেছে। মাঝে একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল যে, ভারতীয় টেলিকম সংস্থা রিলায়েন্স জিও-র (Reliance Jio) সঙ্গে স্যামসাং (Samsung) চুক্তিবদ্ধ হয়ে ভারতে 5G নেটওয়ার্কের যাবতীয় সরঞ্জাম যোগান দেবে। যেহেতু জিও এই বছরের শেষের দিকে ৫জি পরিষেবা চালু করতে পারে তাই রিপোর্টটি বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি স্যামসাং (Samsung) কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই রিপোর্টটি সত্যি নয়। এই ধরনের চুক্তির কথাও তাঁরা অস্বীকার করেছে। স্যামসাং (Samsung) জানিয়েছে যে এই বিষয়ে কোনো জোরালো কথাবার্তা জিওর সঙ্গে হয়নি।

প্রসঙ্গত এর আগে ভারতে ৪জি নেটওয়ার্কের জন্য স্যামসাং, রিলায়েন্স জিওর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম সরবরাহ করেছিল। ওনহ্যাপের (Yunhap) রিপোর্ট অনুযায়ী স্যামসাং, দক্ষিণ কোরিয়া ও ভিয়েতনামে ৫জি নেটওয়ার্কের জন্য কাজ করছে। এছাড়াও জাপানের সর্বোচ্চ টেলিকম সংস্থা এনটিটি ডোকোমো (NTT Docomo), কানাডার স্যাক্সটেল (SaskTel) এবং নিউজিল্যান্ডের স্পার্ক (Spark) সংস্থাগুলির সাথে সম্প্রতি ৫জি নেটওয়ার্কের সামগ্ৰী প্রদান করার বিষয়ে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত স্যামসাং ভারতীয় কোনো টেলিকম সংস্থার সাথে এখনও ৫জি নেটওয়ার্কের বিষয়ে কোনো জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে Samsung এই মুহূর্তে নানাবিধ কাজ করে চলেছে। প্রচুর অঙ্কের অর্থ বিনিয়োগ থেকে শুরু করে টেকনোলজিকে আরও উন্নত মানের করতে তাঁরা সবসময় উদ্যমী ভূমিকা পালন করে। বিশ্বের টেলিকম সংস্থাগুলির একটি রিসার্চ ইউনিট, জিএসএমএ (GSMA) ইন্টেলিজেন্সের রিপোর্ট অনুযায়ী, স্যামসাং প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সমস্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মোবাইলের পরিকাঠামোর উন্নয়নের স্বার্থে ২০২০ থেকে ২০২৫ সাল এই পাঁচ বছরের মধ্যে ১১ ট্রিলিয়ন আমেরিকান ডলার তাঁরা বিনিয়োগ করবে, যার মধ্যে ৮০ শতাংশই ৫জি নেটওয়ার্কের জন্য।

মার্কেট রিসার্চার সংস্থা ডেল’ওরোর (Dell’Oro) তথ্য অনুযায়ী ২০২০ সালের মাঝামাঝি Samsung ৫জি নেটওয়ার্ক সরঞ্জামের ক্ষেত্রে ৭.১ শতাংশ মার্কেট শেয়ার দখল করে বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম ভেন্ডার ছিল। হুয়াওয়ে (Huwai) ৩১.৪ শতাংশ মার্কেট দখল করে প্রথম স্থান, এরিকসন (Ericsson) ২৮.৯ শতাংশ মার্কেট শেয়ার সহ দ্বিতীয়স্থানে, নোকিয়া (Nokia) ১৮.৫ শতাংশ নিয়ে তৃতীয় এবং জেডটিই (ZTE) ১০.৯ শতাংশ নিয়ে চতুর্থ স্থানে অবস্থান করেছিল সেই সময়।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।